হোয়াইট ওয়াশের পরও আশাবাদী মাশরাফি

নেলসনের স্যাক্সটন ওভালে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ একদিনের ম্যাচের পর ব্যাটিং বিপর্যয়ের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে শব্দ হাতড়াতে হচ্ছিলো বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে।
মাশরাফি বিন মর্তুজা
ফাইল ছবি

নেলসনের স্যাক্সটন ওভালে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ একদিনের ম্যাচের পর ব্যাটিং বিপর্যয়ের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে শব্দ হাতড়াতে হচ্ছিলো বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাকে।

গতকাল কিউইরা ৮ উইকেটে ম্যাচ জিতে নিয়ে ৩-০ তে সিরিজ শেষ করে। তবে ম্যাচ শেষের ব্রিফিংয়ে হোয়াইট ওয়াশের বদলে বাংলাদেশের পর পর দুই ম্যাচে ব্যাটিং বিপর্যয়ের বিষয়টি সামনে চলে আসছিল।

শেষ ওয়ানডেতে তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েসের উদ্বোধনী জুটিতে ১০৪ রান আসার পরও ১৩৬-৯ এ শেষ হয় বাংলাদেশের ইনিংস। এর দুই দিন আগেই ওই একই ভেন্যুতে এক উইকেটে ১০৫ করার পর আর ৭৯ রান যোগ করতে গিয়েই গুটিয়ে যায় টাইগাররা।

মাশরাফি বলেন, “ওই একই ভুল করেছি আমরা। এটা কিভাবে ব্যাখ্যা করব? হয়তো ওরা যেটা করতে পেরেছে সেখানে মানসিকভাবেই হেরে গেছি আমরা। বার বার এটা ঘটছে। এটা দেখিয়ে দিচ্ছে মানসিকভাবে যথেষ্ট শক্তিশালী নই আমরা।” তাঁর পর্যবেক্ষণ, “দক্ষতায় একই পর্যায়ের হলেও আমরা মানসিকভাবে পিছিয়ে রয়েছি।”

মুশফিকুর রহিমের অনুপস্থিতিতে লোয়ার মিডিল অর্ডারে যে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে সে বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে দলের অধিনায়ক সোজাসাপ্টা উত্তর দিয়ে বলেন, ব্যাকআপ খেলোয়াড়রা কখনোই সেই মাপের হয় না।

“যেভাবে আমাদের মিডল অর্ডার ভেঙ্গে পড়েছিল তা আমরা প্রত্যাশা করেনি। আমাদের ব্যাকআপ খেলোয়াড় ছিল কিন্তু গত দেড় বছর তাঁরা যে রকম খেলেছিল সে রকম ভালো খেলেনি। গত দেড় বছরে আমাদের খেলোয়াড়দের খেলার একটা ধারাবাহিকতা তৈরি হয়েছিল। তাদের পরিবর্তে ব্যাকআপ খেলোয়াড়দের দিয়ে খেলানো খুব কষ্টসাধ্য ছিলো।”

দলের জ্যেষ্ঠ খেলোয়াড়দের পারফরমেন্স নিয়ে জানতে চাওয়া হলে মাশরাফি বলেন, “সত্য বলতে কি, সিনিয়র খেলোয়াড়দের মধ্যে কয়েকজন ভালো খেলেছেন। প্রথম ম্যাচে সাকিব ভালো খেলেছিল। তামিম আজকে ভালো খেলেছে। ইমরুল কায়েসও গত দুটি খেলোয় ভালো করেছে। তবে অবশ্যই বলতে হয় যে এগুলো কার্যকর হয়ে উঠেনি।”

টাইগার ক্যাপ্টেন কিছুটা আক্ষেপ নিয়েই বলেন যে যদি তারা আরও মনোযোগ দিয়ে খেলতেন তাহলে ফলাফল ভিন্ন হতো।

“দেশের মাটিতে আমরা ভালো খেলেছি। এখন আমরা যেন আগামী দেড় বছর দেশের বাইরে ভালো খেলতে পারি। তবে এই পরাজয়ের পর এখনই কোন মূল্যায়ন করা ঠিক হবে না। পরাজয়ের পরও অনেক ইতিবাচক দিক রয়েছে। আমরা সুযোগ সৃষ্টি করেছি। আমাদের সামনে আরও দীর্ঘ পথ রয়েছে এবং একটি ভালো পারফরমেন্স সবকিছু বদলে দিতে পারে,” এভাবেই আশা প্রকাশ করেন মাশরাফি।

Click here to read the English version of this news

Comments