সীতাকুণ্ডে অগ্নিকাণ্ড: আরও ৫ দিন সময় চাইল তদন্ত কমিটি

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বি এম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণের ঘটনায় তদন্ত শেষ করতে আরও ৫ দিন সময় চেয়ে আবেদন করেছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় তদন্ত কমিটি।
ছবি: মোহাম্মদ সুমন/স্টার

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বি এম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণের ঘটনায় তদন্ত শেষ করতে আরও ৫ দিন সময় চেয়ে আবেদন করেছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় তদন্ত কমিটি।

কমিটি প্রধান অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান রোববার বিকেলে বিভাগীয় কমিশনার মো. আশরাফ উদ্দিনের কাছে সময় চেয়ে আবেদন করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আমরা আরো ৫ কর্মদিবস সময় চেয়েছি। আগামীকাল আমরা আবারও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করব।'

তিনি জানান, ইতোমধ্যে তারা বি এম ডিপোর ১০ কর্মকর্তা-কর্মচারীর সঙ্গে কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, 'গত ৩ তারিখ চট্টগ্রাম বন্দরে পাঠানো কনটেইনারের তালিকা ডিপো কর্তৃপক্ষ আমাদের কাছে দিয়েছে। সেখানে এই কেমিক্যাল ভর্তি কনটেইনারগুলোর কথা আছে। আমরা কাস্টমস কমিশনারের কাছে এই কনটেইনারগুলোর বিল অফ এন্ট্রি দাখিল হয়েছে কি না, তা লিখিতভাবে জানতে চেয়েছি।'

'সবকিছু বিবেচনায় নিয়েই আমরা তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবো,' যোগ করেন মিজানুর রহমান।

গত ৪ জুন রাতে সীতাকুণ্ডের বি এম ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এ পর্যন্ত ৪৭ জন মারা গেছেন এবং প্রায় দেড়শ জন আহত হয়েছে।

ঘটনা তদন্তে পরদিন বিভাগীয় কমিশনার ৯ সদস্যের কমিটি গঠন করেন। কমিটিকে ৫ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

আজ রোববার ৫ কার্যদিবস শেষ হলেও, তদন্ত শেষ না হওয়ায় কমিটি আরও ৫ দিন সময় চাইল।

অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে কমিটির অপর সদস্যরা হলেন-পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জাকির হোসেন খান, চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউজের অতিরিক্ত কমিশনার আবু নুর রাশেদ আহমেদ, পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম জেলার পরিচালক মুফিদুল আলম, সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের ইঞ্জিনিয়ার ব্যাটালিয়নের মেজর আবু হেনা মো. কাউসার জাহান, চট্টগ্রাম বন্দরের পরিচালক (পরিবহন) এনামুল করিম ও চট্টগ্রামের বিস্ফোরক পরিদর্শক তোফাজ্জল হোসেন। কমিটিতে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুমনী আক্তারকে সদস্য সচিব করা হয়েছে।

এ ঘটনায় আহত ও দগ্ধদের মধ্যে রোববার ৬৩ জন চট্টগ্রামের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। তাদের মধ্যে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৪৭ জন, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ৮ জন, পার্ক ভিউ হাসপাতালে ৮ জন চিকিৎসাধীন আছেন।

পার্ক ভিউ হাসপাতালে রোববার ১ জন মারা গেছেন।

Comments

The Daily Star  | English

One dead as Singapore Airlines flight hit by turbulence

 A Singapore Airlines SIAL.SI flight from London made an emergency landing in Bangkok on Tuesday due to severe turbulence, officials said, with one passenger on board dead and local media reporting multiple injuries.

1h ago