নিউইয়র্ক সিনেটে ‘বাংলাদেশি অভিবাসী দিবস’ প্রস্তাব পাস

২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো ‘বাংলাদেশি অভিবাসী দিবস’ পালনের বিল পাস করেছিলেন সাবেক গভর্নর অ্যান্ড্রু এম কুওমো।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের সিনেট সপ্তমবারের মতো বাংলাদেশি অভিবাসী দিবস প্রস্তাব পাস করেছে।

মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক ও প্রতিষ্ঠাতা বিশ্বজিত সাহার প্রস্তাবে, নিউইয়র্ক রাজ্যের সিনেটর স্ট্যাভিস্কির উদ্যোগে সম্প্রতি প্রস্তাবটি সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয়।

নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য সচিব আলেজান্দ্রা পাউলিনো এ সংক্রান্ত ঘোষণার একটি অনুলিপি প্রকাশ করেছেন। ২৫ সেপ্টেম্বর 'বাংলাদেশি অভিবাসী দিবস' পালনে নিউইয়র্ক রাজ্যের গভর্নর কেথি হুকুল এ নিয়ে এক অনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রথমবারের মতো ১৯৭৪ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে বাংলায় ভাষণ দেন। ওই দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো 'বাংলাদেশি অভিবাসী দিবস' পালনের বিল পাস করেছিলেন সাবেক গভর্নর অ্যান্ড্রু এম কুওমো। নিউইয়র্ক স্টেট সিনেটের  ৫৬৩ রেজুলুউশনে বলা হয়েছে, নিউইয়র্ক শহরে সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যতা বাড়াতে বৈচিত্র্যময় জাতি গোষ্ঠীর গুরুত্বপূর্ণ দিনগুলিকে স্বীকৃতি দিয়ে নিউ ইয়র্ক আইনসভা সম্মানিত বোধ করে। 

মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিত সাহা বলেন, আমরা গত ছয় বছর ধরে বর্ণাঢ্যভাবে দিবসটি উদযাপন করে আসছি যুক্তরাষ্ট্রের সকল বাংলাদেশি অভিবাসীদের সহযোগিতা নিয়ে। এবারও এ  উপলক্ষে আগামী ২২ ও ২৩ সেপ্টেম্বর নিউ ইয়র্ক শহরের হিলটন মিডটাউন হোটেলে 'বাংলাদেশি অভিবাসী দিবস ও বাণিজ্য মেলা-২০২৩' আয়োজন করা হবে। নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য গভর্নর অফিসের সহযোগিতায় মুক্তধারা নিউইয়র্ক এবং ইউএসএ-বাংলাদেশ বিজনেস লিংক, গ্রেটার নিউইয়র্ক চেম্বার অব কমার্স এই আয়োজন করছে।

Comments