টম ক্রুজের ‘দ্য মমি’ রহস্য

টম ক্রুজের ভক্তরা ধরেই নিয়েছিলেন “দ্য মমি” হবে এই বছরের সেরা হিট ছবি। সবকিছু মিলিয়ে ওরকমই আভাস পাচ্ছিলেন সিনেমা প্রেমীরা। আফসোস! দর্শকদের দারুণভাবে হতাশ করল ২০১৭ সালের রিবুট “দ্য মমি”।
The Mummy

টম ক্রুজের ভক্তরা ধরেই নিয়েছিলেন “দ্য মমি” হবে এই বছরের সেরা হিট ছবি। সবকিছু মিলিয়ে ওরকমই আভাস পাচ্ছিলেন সিনেমা প্রেমীরা। আফসোস! দর্শকদের দারুণভাবে হতাশ করল ২০১৭ সালের রিবুট “দ্য মমি”।

মমি-ভিত্তিক আগের ছবিগুলোর তুলনায় এ ছবিটিতে অনেক বড় এবং নামি-দামি তারকারা অভিনয় করেছেন। টম ক্রুজ, রাসেল ক্রো, এনাবেল ওয়ালিস এবং সোফিয়া বুতেলাসহ আরও অনেকেই এই চলচ্চিত্রে নিজেদের প্রতিভার ঝলক দেখিয়েছেন।

তবে টম ক্রুজের অভিনয় তাঁর ভক্তদের হতাশ করেছে। “মিশন ইম্পসিবল”-খ্যাত এই তারকা থেকে আরও অনেক বেশি কিছু আশা করা বোধহয় কোনো অপরাধ নয়। ছবির শুরু থেকেই তাঁকে হাস্যোজ্জ্বল দেখা গেছে যা ছবির সঙ্গে বেমানান লেগেছে।

এবার “দ্য মমি”-র মূল আকর্ষণ ছিলেন সোফিয়া বুতেলা। তিনি এই সিরিজের প্রথম নারী যিনি “মমি”-র চরিত্রে অভিনয় করেছেন। বাকি সবার চেয়ে তাঁর অভিনয় প্রাণবন্ত এবং স্বতঃস্ফূর্ত ছিল।

রাসেল ক্রো তাঁর “ডক্টর জ্যাকিল” চরিত্রে বরাবরই ভালো ছিলেন, তবে এই চরিত্রটি “দ্য মমি” সিরিজের সঙ্গে কোনোভাবেই মানায় নি। “ডক্টর জ্যাকিল” একটি ক্লাসিক ইংরেজি উপন্যাসের চরিত্র, যাঁকে নির্মাতা অ্যালেক্স কারৎজমান তাঁর এই ছবিটিতে সেভাবে তুলে ধরতে পারেননি।

“দ্য মমি” সিরিজের আগের চলচ্চিত্রগুলোর সেটিং ১৯৭০-৮০ দশকের হলেও এবারের কাহিনী বর্তমান সময়ে স্থাপিত। ছবিটির শুরুর কিছু অংশ পিরামিড-খ্যাত মিশরে দেখা গেলেও বাকি অংশগুলো দেখা যায় লন্ডনে। এতে এই চলচ্চিত্রের রহস্য এবং আকর্ষণের অনেকটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ছবিটির পুরোটাই অ্যাকশন-ভিত্তিক ছিল, যা অনেক সময় মনে হয়েছে স্ক্রিপ্টের দুর্বলতা ঢাকার জন্যই করা হয়েছে।

ছবিটির শেষের দৃশ্যগুলো এর পরবর্তী পর্বের আভাস দেয়। ক্লাইম্যাক্স শেষে টম ক্রুজ তাঁর পুনর্জন্ম নেওয়া বন্ধুর সঙ্গে যেভাবে সূর্যাস্তের দিকে ধাবিত হলেন তাতে বোঝা গেল এই কাহিনীর আরও অনেক পর্ব আমরা দেখব।

রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সে “দ্য মমি” থ্রি-ডিতে দেখার ব্যবস্থা থাকলেও ছবিটি প্রত্যাশা অনুযায়ী মন রাঙাতে পারেনি। আশাকরি, পরিচালক কারৎজমান সামনে আরও ভালো চিত্রনাট্য ও কাহিনী আমাদের সামনে উপস্থাপন করবেন।

এই চলচ্চিত্রের মূল আকর্ষণ এতদিন ধরে ছিল এর সাসপেন্স, অ্যাকশন এবং মমিকে ঘিরে নানা রহস্য ও জল্পনা-কল্পনা। তবে ছবিটির প্রথম আধ ঘণ্টার মধ্যেই সব রহস্য উন্মোচিত হওয়াতে বিরতির পরে দর্শকের আগ্রহ দেখা যায়নি। তাই বলা যায়, “দ্য মমি” ২০১৭ সালের সেরা ফ্লপ ছবির মধ্যে অন্যতম।

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

Some government employees are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Centre has found.

7h ago