বিশ্বকবির আঁকা অপ্রকাশিত ছবি দেখার সুযোগ মিলবে এবার

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আঁকা বহু অপ্রকাশিত ছবি এবার দেখার সুযোগ মিলবে। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনের পাশে ২০ কোটি টাকা খরচে নির্মাণ করা হবে একটি আধুনিকমানের জাদুঘর ও একটি গ্যালারি। এখানে রাখা হবে কবিগুরুর আঁকা চিত্রকর্মগুলো।
Tagore

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আঁকা বহু অপ্রকাশিত ছবি এবার দেখার সুযোগ মিলবে। বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনের পাশে ২০ কোটি টাকা খরচে নির্মাণ করা হবে একটি আধুনিকমানের জাদুঘর ও একটি গ্যালারি। এখানে রাখা হবে কবিগুরুর আঁকা চিত্রকর্মগুলো।

কবির আঁকা ছবির পাশাপাশি সেখানে দেখার সুযোগ মিলবে নন্দলাল বসু, রামকিঙ্কর বেইজ ও বিনোদবিহারীর মতো ক্ষণজন্মাদের অসামান্য সৃষ্টিরও।

বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য স্বপন দত্ত জানান, সম্প্রতি তারা কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে জাদুঘর ও গ্যালারি নির্মাণ সংক্রান্ত চূড়ান্ত চিঠি পেয়েছেন। যেহেতু বিশ্বভারতী একটি কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়, তাই গোটা বিষয়টির নিয়ন্ত্রক ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।

উপাচার্য সাংবাদিকদের আরও বলেন, একটি গ্যালারি এবং একটি জাদুঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। এর একটি হবে কলাভবনের পাশে ১০ হাজার ৭০০ বর্গফুটের এবং অন্যটি হবে নাট্যভবনের পাশে ২৫ হাজার ২২১ বর্গফুটের।

নিজের হাতে গড়া শান্তিনিকেতনের এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শেষ দিনগুলো কেটেছে বিশ্বকবির। সেই সময় বসবাসের জন্য কবি গড়েছিলেন কোনার্ক, শ্যামলী, উদীচী, উদয়ন এবং পুনশ্চবাড়ি। এই বাড়িগুলোর স্থাপত্যকর্ম আন্তর্জাতিক মানের বলে গণ্য করা হয়।

উত্তরায়ণে বাড়িগুলো ইতোমধ্যে সংরক্ষণ করা রয়েছে। ওই বাড়িগুলোতে থাকার সময় কবি অসংখ্য ছবি এঁকেছিলেন। এরমধ্যে কিছু ছবি ১৯৬১ সালে তৈরি ‘বিচিত্রা’ ভবনে প্রদশর্নীর ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু অধিকাংশ আঁকা ছবি আজও পড়ে রয়েছে উত্তরায়ণের স্ট্রং রুমে।

স্ট্রং রুমে পড়ে থাকা কবির আঁকা সেই অপ্রকাশিত ছবি সংরক্ষণ ও প্রদর্শনের জন্য তৈরি করা হচ্ছে জাদুঘর ও গ্যালারি। তবে এ দুটির নাম এখনো চূড়ান্ত করা হয়নি।

Comments

The Daily Star  | English

Dhaka footpaths, a money-spinner for extortionists

On the footpath next to the General Post Office in the capital, Sohel Howlader sells children’s clothes from a small table.

6h ago