সাক্ষাৎকার

‘দেশকে অনেক ভালো জায়গায় নিয়ে যেতে চাই’

জনপ্রিয় অভিনেতা শহীদুজ্জামান সেলিম-এর জন্মদিন আজ। এ উপলক্ষে তাঁর সঙ্গে কথা বলে দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন।

জনপ্রিয় অভিনেতা শহীদুজ্জামান সেলিম-এর জন্মদিন আজ। এ উপলক্ষে তাঁর সঙ্গে কথা বলে দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন। কথা হয় তাঁর জন্মদিনের প্রতিজ্ঞা, স্বপ্ন ও পরিকল্পনা নিয়ে। পাঠকদের জন্যে তুলে ধরা হলো সাক্ষাৎকারটি:

দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন: জন্মদিনের প্রতিজ্ঞা কি?

শহীদুজ্জামান সেলিম: আমাদের এই ছোট্ট জীবনে এক একটি বছর চলে যাওয়া মানে, জীবনটা আরো ছোট হয়ে যাওয়া। এমন একটা পরিস্থিতিতে আমার পদচিহ্ন যদি রেখে যেতে না পারি তাহলে তো জীবনটা বৃথা হয়ে যাবে!

দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন: আপনার ওয়াইল্ড ফ্যান্টাসি কি?

শহীদুজ্জামান সেলিম: না, কোন ওয়াইল্ড ফ্যান্টসি নেই। তবে কোন নির্জন জায়গায় থাকতে বেশ পছন্দ করি।

দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন: কোন স্বপ্ন?

শহীদুজ্জামান সেলিম: নিজেকে নিয়ে স্বপ্ন দেখি না। দেশকে নিয়ে বড় স্বপ্ন আছে। বাংলাদশেকে আমি অনেক ভালোবাসি। একদিন গুলশানে একটি বড় ক্রেনের মাথায় একটি জাতীয় পতাকা উড়তে দেখে বেশ আপ্লুত হয়েছিলাম। যিনি পতাকাটি বেঁধেছেন তাঁর দেশপ্রেম দেখে মুগ্ধ হয়েছিলাম। তাই স্বপ্ন হলো বাংলাদেশকে অনেক ভালো জায়গায় নিয়ে যেতে চাই।

দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন: কোন নতুন পরিকল্পনা?

শহীদুজ্জামান সেলিম: পরিকল্পনা আছে। তবে কোন ম্যাটেরিয়ালিস্টিক পরিকল্পনা নেই। পরিকল্পনা হলো আমার অনন্ত চিন্তা। নতুন পরিকল্পনা হয় আবার বদলায়।

দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন: আপনার ভক্তদের উদ্দেশ্যে কোন বার্তা?

শহীদুজ্জামান সেলিম: আমি আমার ভক্তদের অনুরোধ করবো বাংলাদেশের নাটক দেখতে, গান শুনতে। আমাদের শিল্প-সংসস্কৃতিটাকে আমাদেরকেই রক্ষা করতে হবে।

দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন: নতুন-পুরোনোদের মধ্যে কাদের কাজ ভালো লাগে?

শহীদুজ্জামান সেলিম: নতুনদের মধ্যে অনেকেই আছেন প্রতিশ্রুতিশীল। অনেকের কাজ ভালো লাগে। পুরোনোদের অনেকে এখন আর অভিনয় করছেন না। একজনকে হয়তো একটা নাটকে ভালো লাগছে। হয়তো অন্যটায় ভালো লাগছে না। তাই সেভাবে কারো নাম বলতে চাই না।

দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন: আপনার সমসাময়িকদের মধ্যে কাকে ‘নাম্বার ওয়ান’ মনে হয়।

শহীদুজ্জামান সেলিম: আমিই নাম্বার ওয়ান।

দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন: টেলিভিশনের অনুষ্ঠান দেখানোর জন্য আন্দোলন করতে হচ্ছে, এ বিষয়ে আপনার মতামত?

শহীদুজ্জামান সেলিম: টেলিভিশনের অনুষ্ঠান দেখানোর জন্য আন্দোলন হচ্ছে না। আন্দোলন হচ্ছে বিদেশি সংস্কৃতির খারাপ দিকগুলোর বিরুদ্ধে। বিশ্বমানের নাটক-সিনেমা দেখানো যেতে পারে। ভালো প্রামাণ্যচিত্র দেখানো যেতে পারে। কিন্তু একটি ঐতিহাসিক নাটকের নামে এখন যা দেখানো তা আমাদের সামাজিক কনটেক্সটে যায় না। তাই এগুলো বন্ধের দাবি করছি।

দ্য ডেইলি স্টার অনলাইন: আপনাকে ধন্যবাদ

শহীদুজ্জামান সেলিম: আপনাকেও ধন্যবাদ।

Comments

The Daily Star  | English
Deposits of Bangladeshi banks, nationals in Swiss banks hit lowest level ever in 2023

Deposits of Bangladeshi banks, nationals in Swiss banks hit lowest level ever

It declined 68% year-on-year to 17.71 million Swiss francs in 2023

33m ago