শাকিব খানের জিডি জায়েদ, সায়মনের বিরুদ্ধে

শাকিব খান গত রাতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান এবং কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য সায়মন সাদিকসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় লিখিত অভিযোগপত্র (জিডি) দায়ের করেছেন।
Shakib Khan
অভিনেতা শাকিব খান। ছবি: দ্য ডেইলি স্টার

শাকিব খান গত রাতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান এবং কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য সায়মন সাদিকসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় লিখিত অভিযোগপত্র (জিডি) দায়ের করেছেন।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনের রাতে ঘটে যাওয়া ঘটনার জন্য তিনি ৮ মে রাত ১১টায় রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় এই অভিযোগপত্র দায়ের করেন। অভিযোগপত্র নম্বর ৩৬৫।

এতে তিনি মুল পরিকল্পনাকারী হিসেবে জায়েদ খানের নাম উল্লেখ করেন। এছাড়াও এতে রয়েছে চিত্রনায়ক সায়মন সাদিকের নাম।

অভিযোগপত্রটিতে শাকিব খান বলেন, “আমি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বর্তমান সভাপতি পদে দায়িত্বরত আছি। ৫ মে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন-২০১৭ অনুষ্ঠিত হয়। ৬ মে দিবাগত রাত প্রায় ১টা ৩০ মিনিটে বিভিন্ন মারফত আমার কাছে খবর আসে যে নির্বাচনের ফলাফল এখন পর্যন্ত প্রকাশিত হয়নি। আপিল বিভাগের লোকজন শিল্পী সমিতির ভেতরে ভোট গণনা কেন্দ্রে অবস্থান করছেন।”

তিনি আরও উল্লেখ করেন, “চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বর্তমান সভাপতি হিসেবে বিষয়টি দেখা আমার এখতিয়ারভুক্ত বিধায় আমি বিএফডিসিতে আসি। এবং দেখি যে, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির অফিসে আপিল বিভাগের লোকজন ও বাইরে বহিরাগত লাল গেঞ্জি পরিহিত পিস্তল হাতে একজন সন্ত্রাসীসহ চাপাতি হাতে কয়েকজন লোক অবস্থান করছে।”

“এই সকল বহিরাগত লোকজন বিএফডিসির ভেতরে এতরাতে কিভাবে এলো এবং কেন অস্ত্র হাতে অবস্থান করছে জানতে চাইলে ওইখানে উপস্থিত সাইফ খান কালু (নৃত্য পরিচালক), সায়মন সাদিক (নায়ক), জিয়া (অভিনেতা), ফাইটার শামীমসহ অজ্ঞাতনামা অনেক লোকজন আমার ওপর হামলা করতে আসে। আমাকে ছোরা দিয়ে আঘাত করার চেষ্টা করে। আমার একজন ভক্ত আমাকে রক্ষা করতে গেলে আক্রমণকারীর ছুরির আঘাতে তার হাত কেটে যায়। আমি নিজের প্রাণ রক্ষার্থে পুলিশ, আমার ব্যক্তিগত দেহরক্ষী, কিছু কলাকুশলীর সহযোগিতায় ঘটনাস্থল ত্যাগ করি।”

অভিযোগে শাকিব খান বলেন, “তখন উক্ত সন্ত্রাসীরা আমাকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ধর ধর বলে ধাওয়া দেয়। বর্তমানে বিভিন্ন মারফত থেকে আমাকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে যে আমাকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করবে এবং রাস্তা ঘাটে একা পেলে মেরে ফেলবে। এমতাবস্থায় আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি এবং এই সমস্ত কর্মকাণ্ডের পরিকল্পনাকারী অভিনেতা জায়েদ খানসহ আরও অনেকেই জড়িত বলে আমার বিশ্বাস।”

অভিযোগের বিষয়ে সায়মন সাদিক দ্য ডেইলি স্টার অনলাইনকে বলেন, “সেদিন রাতে কী হয়েছে এটা উপস্থিত সবাই দেখেছেন। আমি শাকিব ভাইকে সেভ করে গাড়িতে তুলে দিয়েছি। এটা তিনিও দেখেছেন। এখন তিনি যদি অভিযোগ করেন তাহলে কী আর করার আছে।”

সায়মন আরও বলেন, “শাকিব ভাই আমার বড় ভাই। তিনি বাংলা সিনেমার এক নম্বর নায়ক। এটাতো অস্বীকার করতে পারিনা। তবে এটাতো অভিযোগ মাত্র। এর তদন্ত হোক, তারপর সব বোঝা যাবে।”

এ বিষয়ে জায়েদ খানের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেন নি।

 

আরও পড়ুন:

শাকিবের অপমানে অপুর ক্ষোভ

Comments

The Daily Star  | English

2 MRT lines may miss deadline

The metro rail authorities are likely to miss the 2030 deadline for completing two of the six planned metro lines in Dhaka as they have not yet started carrying out feasibility studies for the two lines.

8h ago