বাণিজ্য

মার্চে বিজনেস সামিটে সিএনএনকে সাক্ষাৎকার দেবেন প্রধানমন্ত্রী: এফবিসিসিআই

আগামী মার্চের ১১-১৩ তারিখ বাংলাদেশ বিজনেস সামিট ২০২৩ আয়োজন করতে যাচ্ছে দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই।
প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

আগামী মার্চের ১১-১৩ তারিখ বাংলাদেশ বিজনেস সামিট ২০২৩ আয়োজন করতে যাচ্ছে দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সামিটের উদ্বোধন করবেন। সেখানে তিনি সিএনএনের বিজনেস রিপোর্টার রিচার্ড কোয়েস্টের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নেবেন।

আজ বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এফবিসিসিআই এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজনেস সামিটের আয়োজন উপলক্ষে আজ রাজধানীর একটি হোটেলে ব্রিফিং করে এফবিসিসিআই। এতে বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনার, বাংলাদেশের মন্ত্রী, সংসদ সদস্য ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ অংশ নেন। 

এফবিসিসিআই জানায়, সংগঠনটির ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে মার্চের ১১-১৩ তারিখে হবে ৩ দিনব্যাপী এই সামিট অনুষ্ঠিত হবে। আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণের লক্ষ্যকে সামনে রেখে এই সামিটের আয়োজন করা হবে।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) সহযোগিতায় আয়োজিত এই সামিটের মিডিয়া পার্টনার হিসেবে থাকছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সিএনএন। সামিটের অনুষ্ঠান প্রচারের পাশাপাশি বাংলাদেশে বিনিয়োগ ও বাণিজ্য সম্ভাবনা বিষয়ে অনুষ্ঠানও প্রচার করবে সিএনএন।

বিজনেস সামিটে বাংলাদেশে উৎপাদিত সেরা পণ্যগুলোকে উপস্থাপন করা হবে। পাশাপাশি ব্যবসা-বাণিজ্যে বিশেষ অবদানের জন্য সম্মাননা দেওয়া হবে উদ্যোক্তাদের। 

দেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণের সম্ভাবনা, বাধা এবং করণীয় নির্ধারণে ব্যবসায়ী, বিনিয়োগকারী, বিশ্লেষক এবং নীতিনির্ধারকদের নিয়ে সামিটে ৩টি প্লেনারি সেশন, ১৩ টেকনিক্যাল সেশন, উন্মুক্ত আলোচনাসহ বিটুবি এবং নেটওয়ার্কিং সেশন অনুষ্ঠিত হবে।

আজকের ব্রিফিংয়ে এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশী। 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন এ আয়োজনের জন্য এফবিসিসিআইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, 'বাংলাদেশ এখন যোগাযোগ ও উৎপাদনের হাব। বৈশ্বিক সংকটেও দেশের জিডিপির ইতিবাচক প্রবৃদ্ধির মাধ্যমে বোঝা যাচ্ছে যে বাংলাদেশ সঠিক পথেই এগোচ্ছে।'

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশী বাংলাদেশকে এশিয়ার বিজনেস হাব হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে বাংলাদেশ বিজনেস সামিট আয়োজনের উদ্যোগকে স্বাগত জানান। 

তিনি বলেন, 'বিশ্ব অর্থনীতি নিয়ন্ত্রণকারী দেশ সৌদি আরব, সিঙ্গাপুর, জাপান, ভারত, চীন, রাশিয়া এবং আমেরিকার বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতে সক্ষম বাংলাদেশ।'

তিনি আরও বলেন, 'বাংলাদেশের কৃষিনির্ভর অর্থনীতি এখন রপ্তানি নির্ভর শিল্প-কারখানায় রূপান্তরিত হচ্ছে এবং ধীরে ধীরে জ্ঞাননির্ভর অর্থনীতির দিকে এগোচ্ছে।'

সামিটে অংশ নিয়ে বিনিয়োগের অন্যতম গন্তব্য হিসেবে বাংলাদেশকে নিজেদের দেশে ব্র্যান্ডিং করতে কূটনীতিকদের প্রতি আহ্বান জানান বাণিজ্যমন্ত্রী। 

সভাপতির বক্তব্যে এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, 'তিন দিনব্যাপী বাংলাদেশ বিজনেস সামিটে বিশ্ব ব্যবসায়ীদের কাছে বাংলাদেশের ইতিবাচক অবস্থান, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সামর্থ্য, বিনিয়োগ প্রতিযোগিতাসহ অংশীদারত্বের বিশেষ সুযোগ-সুবিধা তুলে ধরা হবে।'

Comments