বাণিজ্য

‘দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কাজ করে যাবে শেল্‌টেক্‌’

৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আজ রোববার রাজধানীর পান্থপথে শেল্‌টেকে্‌র প্রধান কার্যালয়ে এক আলোচনাসভা ও অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।  
ছবি: সংগৃহীত

দেশের আবাসন খাতের প্রতিষ্ঠান শেল্‌টেক্‌ (প্রা.) লি. ৩৫ বছর পূর্ণ করেছে।

৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আজ রোববার রাজধানীর পান্থপথে শেল্‌টেকে্‌র প্রধান কার্যালয়ে এক আলোচনাসভা ও অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।  

শেল্‌টেক্‌ গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী কুতুবউদ্দীন আহমেদ এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর আহমেদ গ্রুপের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও সহযোগী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের নিয়ে এ সময় কেক কাটেন।

শেল্‌টেক্‌ গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী কুতুবউদ্দীন আহমেদ বলেন, '৩৫ বছরের যাত্রায় আবাসনের পাশাপাশি নির্মাণ ব্যবসা, প্রিমিয়াম ফ্লোর ও ওয়াল টাইলস, তারকা মানের বুটিক হোটেল, বৈদ্যুতিক খুঁটি, এভিয়েশন, ব্রোকারেজ হাউসসহ বিভিন্ন ব্যবসায় যুক্ত হয়েছে শেল্‌টেক্‌। শতভাগ আমদানি–বিকল্প নতুন এক শিল্পের সূচনা করেছে শেল্‌টেক্ গ্রুপ। দেশে প্রথমবারের মতো ইউরোপীয় প্রযুক্তির সিরিশ কাগজের কারখানা চালু করেছে।'

'স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে ব্যবসা সম্প্রসারণের মাধ্যমে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে শেল্‌টেক্‌ গ্রুপ ভবিষ্যতেও কাজ করে যাবে', যোগ করেন তিনি।

শেল্‌টেক্‌ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর আহমেদ বলেন, 'কর্মরত স্থপতি ও প্রকৌশলীদের তত্ত্বাবধানে পরিবেশ বান্ধব আবাসিক প্রকল্প গড়ে তোলার মাধ্যমে আধুনিক ঢাকার স্বপ্ন বাস্তবায়নে ৩৫ বছর ধরে কাজ করে যাচ্ছে শেল্‌টেক্‌। আন্তর্জাতিক মানের ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করায় শেল্‌টেক্‌ ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ডাইজেশন অর্গানাইজেশনের আইএসও সনদপ্রাপ্ত বাংলাদেশের শীর্ষ আবাসন কোম্পানিগুলোর একটি। ব্যবসা সম্প্রসারণ, অর্থনীতির বিকাশ এবং উন্নয়নে শেল্‌টেক্‌ দেশ ও মানুষের জন্য কাজ করে যাবে।'

৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পান্থপথে শেল্‌টেকে্‌র প্রধান কার্যালয়ে প্রয়াত প্রতিষ্ঠাতা ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. তৌফিক এম. সেরাজের নামে মিলনায়তনের উদ্বোধন করেন শেল্‌টেক্‌ গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী কুতুবুদ্দিন আহমেদ ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর আহমেদসহ ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যরা।

১৯৮৮ সাল থেকে শেল্‌টেকে্‌র যাত্রা শুরু। ৩৫ বছরে প্রতিষ্ঠানটি ১৬৬টি প্রকল্পের প্রায় ৪ হাজার ইউনিট ক্রেতাদের কাছে হস্তান্তর করেছে।

Comments

The Daily Star  | English

Three out of four people still unbanked in Bangladesh

Only 28.3 percent had an account with a bank or NBFI last year, it showed, increasing from 26.2 percent the year prior.

1h ago