১ নভেম্বর শুরু হচ্ছে করসেবা মাস

করদাতাদের সেবা গ্রহণ ও রিটার্ন দাখিলের সুবিধার্থে আগামী ১ নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে করসেবা মাস। চলবে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত।
ছবি: সংগৃহীত

করদাতাদের সেবা গ্রহণ ও রিটার্ন দাখিলের সুবিধার্থে আগামী ১ নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে করসেবা মাস। চলবে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত।

আজ বুধবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিদ্যমান করোনা পরিস্থিতিতে আয়কর মেলা আয়োজনের পরিবর্তে সব কর অঞ্চলে অন্যান্য বছরের মতো মেলার পরিবেশে ১ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর আয়কর রিটার্ন গ্রহণের জন্য সেবা প্রদান করা হবে। কর সংস্কৃতি বিকাশ, কর সচেতনতা বৃদ্ধি এবং সম্মানিত করদাতাদের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনের লক্ষ্যে নভেম্বর মাসব্যাপী করসেবা প্রদানের কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, আগামী ১ নভেম্বর সকাল ১০টায় সেগুনবাগিচার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সম্মেলন কক্ষে করসেবা মাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

করসেবা মাসে করদাতারা প্রতিটি কর অঞ্চলে যেসব সুবিধা প্রদান করা হবে-

  • করদাতারা নির্ধারিত কর অঞ্চলে তাদের ২০২২-২০২৩ করবর্ষের স্ব স্ব আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবেন।
  • প্রতিটি কর অঞ্চলের ওয়েবসাইটে আয়কর সংক্রান্ত বিভিন্ন ফরম, পরিপত্র, রিটার্ন পূরণের নির্দেশিকা, ভিডিও টিউটোরিয়ালসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য সন্নিবেশিত থাকবে।
  • দেশব্যাপী ৩১টি কর অঞ্চলের ৬৪৯টি সার্কেলে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত অফিস চলাকালীন সময়ে নিরবচ্ছিন্নভাবে আয়কর রিটার্ন গ্রহণ করা হবে।
  • কর অঞ্চল-৪ ঢাকার ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশ সচিবালয় ও অফিসার্স ক্লাব ঢাকায় রিটার্ন গ্রহণ বুথ ও হেল্প ডেস্ক স্থাপনের মাধ্যমে নভেম্বর মাসের প্রথম দুই সপ্তাহ (১৪ নভেম্বর পর্যন্ত) এবং পরিকল্পনা কমিশন শের-ই-বাংলানগরে ৫ দিন (২০ নভেম্বর থেকে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত) কর তথ্য সেবা প্রদান করা হবে।
  • সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের জন্য ঢাকা সেনানিবাসের সেনা মালঞ্চে আগামী ৯ ও ১০ নভেম্বর ২ দিন করদাতাদের রিটার্ন গ্রহণ ও কর তথ্য সেবা প্রদান করা হবে।
  • অনলাইনে আয়কর রিটার্ন দাখিল সিস্টেম চালু আছে। ইতোমধ্যে করদাতারা ওই সিস্টেমে রেজিস্ট্রেশন করাসহ রিটার্ন তৈরি এবং রিটার্ন দাখিল করতে পারছেন। হট লাইন নম্বর- ০৯৬১২৭১৭১৭১ এর মাধ্যমে ই-রিটার্ন নিয়ে পরামর্শ গ্রহণ করে অনলাইনে রিটার্ন দাখিল করতে পারবেন।
  • ই-টিডিএস সিস্টেমের মাধ্যমে সব কর অঞ্চলের অধিক্ষেত্রাধীন উৎসে কর কর্তনকারী কর্তৃপক্ষে বাস্তবায়ন কার্যক্রম চলমান আছে।
  • করদাতাদের আয়কর রিটার্ন, টিআইএন আবেদন এবং চালান ফরম প্রদান করা হবে।
  • ই-পেমেন্টের মাধ্যমে করদাতারা অনলাইনে আয়কর পরিশোধ করতে পারবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করসেবা মাসের প্রধান উদ্দেশ্য হলো কর সংস্কৃতির বিকাশ, কর সচেতনতা বৃদ্ধি এবং সম্মানিত করদাতাদের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করা। আয়কর নিয়ে ভীতি দূর, কর সচেতনতা বৃদ্ধি ও আরও নিবিড় করসেবা প্রদানের জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের আয়কর বিভাগ ২০২০ সালে প্রথমবারের মতো নভেম্বর মাসকে করসেবা মাস  ঘোষণা করে।

Comments

The Daily Star  | English

Create right conditions for Rohingya repatriation: G7

Foreign ministers from the Group of Seven (G7) countries have stressed the need to create conditions for the voluntary, safe, dignified, and sustainable return of all Rohingya refugees and displaced persons to Myanmar

3h ago