অর্থনীতি

রিজার্ভ বাঁচাতে ফল আমদানি নিরুৎসাহিত করা হয়েছে: বাণিজ্যমন্ত্রী

বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাঁচাতে ফল আমদানি নিরুৎসাহিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।
বাণিজ্যমন্ত্রী
বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি | ছবি: টেলিভিশন থেকে নেওয়া

বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাঁচাতে ফল আমদানি নিরুৎসাহিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। আজ বুধবার দুপুরে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা জানান।

এদিন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সরকারি ক্রয় কমিটির সভায় ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) জন্য স্থানীয় উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে ১ কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল এবং আন্তর্জাতিক উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে ৮ হাজার মেট্রিক টন মসুর ডাল কেনার সিদ্ধান্ত হয়।

সভা শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, 'আগের দামের চেয়ে কিছু কমে, ১৭৬ টাকায় তেল কেনার সিদ্ধান্ত হয়েছে।'

টিপু মুনশি বলেন, 'প্রতি মাসেই আমরা দাম ঠিক করি আন্তর্জাতিক বাজার দর দেখে। সে হিসাবে তেল ও ডালের দাম কম আছে।'

'টিসিবির জন্য আমাদের কিনতেই হয়, রমজান মাস জন্য একটু বেশি কিনতে হচ্ছে। আজকে যেটা কেনার সিদ্ধান্ত হয়েছে সেটা দেওয়া হবে ১ কোটি মানুষকে। এর বাইরে যেটা রয়েছে, সেটার জন্য এলসি (আমদানি ঋণপত্র) খোলা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে কিছু সমস্যা ছিল, এখন তারা খুলতে পারছে। আমরা আশাবাদী, রমজান মাসে সমস্যা হবে না। যা দরকার সেই পরিমাণ মাল পাওয়া যাবে,' বলেন তিনি।

ফল আমদানিতে সমস্যা হচ্ছে, এলসি খোলা যাচ্ছে না। রমজানে ফলের ব্যাপক চাহিদা থাকে সে বিষয়ে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, 'যেটা বলা হয়েছে, ফল তো আমাদের দেশে প্রচুর হচ্ছে। এই সময় ফরেন কারেন্সির রিজার্ভের ওপর যাতে চাপ না পড়ে...ফল আমাদের দেশে যেটা উৎপাদন হচ্ছে সেটারও দাম পাওয়া দরকার। যে কারণে একটু নিষেধ করা হয়েছে। আবার সময় একটু ভালো হলে খুলে দেওয়া হবে।'

তিনি আরও বলেন, 'এখন প্রয়োজন আমাদের ডলার সেভ করা, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দিকে লক্ষ রাখা।'

Comments