সিনেমা করতে চাই, ভালো গল্পের অপেক্ষায় আছি: মেহজাবীন

‘এমন গল্প ও চরিত্র চাই, যার জন্য প্রচুর পরিশ্রম করতে ইচ্ছে করবে। অনেক প্রস্তুতি নিয়ে কাজ করতে চাই।’
মেহজাবীন
মেহজাবীন। ছবি: শেখ মেহেদি মোর্শেদ/স্টার

ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরী। ওটিটিতে নিজের শক্ত অবস্থান তৈরি করেছেন তিনি। তাকে কেন্দ্র করে গল্প তৈরি ও নাটক নির্মাণও করেছেন পরিচালকরা।

নতুন বছরের কর্মপরিকল্পনা নিয়ে মেহজাবীন কথা বলেছেন দ্য ডেইলি স্টারের সঙ্গে।

নতুন বছরের শুরুতে দেশের বাইরে আছেন, কেমন সময় কাটছে?

মেহজাবীন: সত্যি কথা বলতে অনেক দিনের চাওয়া ছিল, নতুন বছরের শুরুতে দেশের বাইরে থাকব। নিউ ইয়ার বিদেশে উদযাপন করব। শোবিজে আসার পর এটাই আমার প্রথম বিদেশে নতুন বছর উদযাপন। যখন বিদেশে থাকতাম তখন তো করেছি। কিন্তু শোবিজে আসার পর সময় হয়নি। শুটিং এবং অন্যান্য ব্যস্ততার জন্য যেতে পারিনি। চাওয়াটা অনেক দিনের ছিল। সেজন্য ভালো লাগছে। দারুণ সময় পার করছি। বন্ধুরা মিলে ঘুরতে এসেছি। সুন্দর সুন্দর লোকেশন দেখছি। বেশ ভালো লাগছে। উপভোগ করছি। সুন্দর সময় কাটাচ্ছি।

নতুন বছরে কাজ নিয়ে স্বপ্ন কিংবা চাওয়া?

মেহজাবীন: আগের তুলনায় যেন আরও ভালো কাটে এ বছর। গত বছরও ভালো কেটেছে। নতুন বছরে আরও ভালো কাজ করতে চাই। এমন গল্প পেতে চাই যেখানে নিজে প্রচুর পরিশ্রম করে শুটিং করতে পারব। এমন গল্প ও চরিত্র চাই, যার জন্য প্রচুর পরিশ্রম করতে ইচ্ছে করবে। অনেক প্রস্তুতি নিয়ে কাজ করতে চাই।

পরিবার নিয়ে চাওয়া?

মেহজাবীন: এ বছর পরিবার নিয়ে অনেক ঘুরতে চাই। আগেও ঘুরেছি। এবছর বেশি ঘুরতে চাই পরিবারের সাথে। সেটা দেশে কিংবা বিদেশে। কাজের পাশাপাশি পরিবারকে আরও সময় দিতে চাই।

২০২৩ সাল কেমন গেছে?

মেহজাবীন: ভালো কেটেছে। এক বছরে মাত্র পাঁচটা নাটক ও ওয়েব সিরিজ করেছি। গত বছর ভিন্ন কিছু করার চেষ্টা করেছি। একটা সময় অনেক কাজ করেছি শেখার জন্য। এখন কমিয়ে দিয়েছি। একটা কথা আছে, যত কাজ করব তত শিখব। তাই একসময় করেছি। সব মিলিয়ে গত বছর ভালো কেটেছে। গত বছর ভালো গল্পে এবং ভালো পরিচালকের সাথে কাজ করেছি। আরও চাই এমন কাজ।

আপনাকে ভেবে এখন গল্প লেখা হয়, কেমন লাগে?

মেহজাবীন: আমাকে কেন্দ্র করে গল্প লেখা হয়েছে। সেসব নাটকে আমি অভিনয় করেছি। এটার জন্য আমাকে অপেক্ষা করতে হয়েছে। একদিনে হয়নি। আগে হয়ত বছরে ৫০টা কাজ করতাম। সেখানে এখন বছরে ৫-৬টা করছি। কম কাজ করার কারণে ভয় ছিল। টেনশন ছিল। পর্দায় কম থাকলে দর্শকরা কীভাবে নেবে? পর্দায় কম থাকলে নাকি ভক্তরা ভুলে যায়। কিন্তু আমি কম কাজ করেও আলোচনায় থাকতে পেরেছি। ফ্যানরা পুরো বছরজুড়ে আমার কাজের অপেক্ষায় ছিলেন। নতুন পাঁচটি কাজ রিলিজ হয়েছে। নীল জলের কাব্যটা তো কোভিডের সময়ে শুটিং করা। আমার ভালো লাগে আমাকে ভেবে গল্প লেখা হয়। এটা একধরনের প্রাপ্তি।

নাটকে ও ওয়েব সিরিজে অভিনয় করে সফলতা পেয়েছেন, সিনেমা নিয়ে কী ভাবনা?

মেহজাবীন: এখন তো ভালো সিনেমা হচ্ছে। সিনেমার বিষয়ে আমি পজেটিভ, কিন্ত গল্প ও চরিত্র পছন্দ হতে হবে। সিনেমা নিয়ে আশা করছি ভালো কিছু হবে। সিনেমা করতে চাই, ভালো গল্পের অপেক্ষায় আছি। সবসময় ভালো গল্প করতে চাই।

আপনার কাছে বিনোদন কী?

মেহজাবীন: নিজেকে রিফ্রেশ করা। ঘুরে বেড়াতে খুব পছন্দ করি। এটা আমার কাছে বিনোদন। এ বছর অনেক ঘুরতে চাই। ভ্রমণে গিয়ে নিজের কাজ নিজে করা, ব্যাগ টানা, সবকিছু দারুণ। শপিং করতে ভালো লাগে। এটাও এক রকম বিনোদন। বন্ধুদের সাথে, পরিবারের সাথে অনেক ঘুরব। শপিং করব।

এতদূর আসার পেছনে কার অবদান বেশি?

মেহজাবীন: পরিবারের প্রত্যেক সদস্যর অবদান আছে। শুরুটা হয়েছিল আম্মুর অবদানে। আব্বুরও সাপোার্ট ছিল। মা তখন আমাকে সময় দিয়েছেন। সেসময় ভাই বোনরা ছোট ছিল, আমার কারণে মা'কে কম পেয়েছে। ভাই-বোনদের অবদানও আছে। তারা আমাকে কাজ করার স্পেস দিয়েছে। এক কথায় বলব, পরিবারের সবার অবদান আছে।

Comments

The Daily Star  | English
fire incident in dhaka bailey road

Fire Safety in High-Rise: Owners exploit legal loopholes

Many building owners do not comply with fire safety regulations, taking advantage of conflicting legal definitions of high-rise buildings, according to urban experts.

9h ago