এলএনজি টার্মিনাল মেরামত চলছে, জুনে গ্যাসের সরবরাহ বাড়ার সম্ভাবনা নেই

ঘূর্ণিঝড় রিমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত সামিট গ্রুপের ফ্লোটিং স্টোরেজ অ্যান্ড রিগ্যাসিফিকেশন ইউনিট (এফএসআরইউ) মেরামতের জন্য বিদেশে পাঠানো হয়েছে। এ কারণে চলতি মাসে দেশে গ্যাস সরবরাহ বাড়বার কোনো সম্ভাবনা নেই।
এলএনজি, স্পট মার্কেট, দক্ষিণ এশিয়া, বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান,
এলএনজি কার্গো। ছবি: সংগৃহীত

ঘূর্ণিঝড় রিমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত সামিট গ্রুপের ফ্লোটিং স্টোরেজ অ্যান্ড রিগ্যাসিফিকেশন ইউনিট (এফএসআরইউ) মেরামতের জন্য বিদেশে পাঠানো হয়েছে। এ কারণে চলতি মাসে দেশে গ্যাস সরবরাহ বাড়বার কোনো সম্ভাবনা নেই।

আজ এক বিবৃতিতে সামিট গ্রুপ জানিয়েছে, 'আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে এলএনজি টার্মিনালটি মেরামত শেষে বাংলাদেশে ফেরত আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।'

গত মাসে রিমাল আঘাত করার সময় কয়েকশ টন ওজনের একটি ভাঙা ইস্পাত কাঠামো সামিটের এলএনজি টার্মিনালকে আঘাত করে। এতে পানির স্তরের এক মিটার নিচে এলএনজি টার্মিনালের কাঠামো ফেটে গিয়ে ব্যালাস্ট ট্যাংকে পানি ঢুকে যায়।

পেট্রোবাংলার তথ্য অনুযায়ী বর্তমানে দেশে দৈনিক ৩ হাজার ৮০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাসের চাহিদার বিপরীতে ২ হাজার ৬০০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে।

Comments