সেন্টমার্টিন সৈকতে ১১৬টি ডিম পাড়ল কাছিম

বেলাভূমিতে গর্ত করে প্রায় আধা ঘণ্টা অবস্থান নিয়ে ১১৬টি ডিম পাড়ে এটি।
কাছিম
ছবি: সংগৃহীত

টেকনাফের সেন্টমার্টিন দ্বীপের বেলাভূমিতে ১১৬টি ডিম পেড়েছে একটি মা কাছিম। ডিম পাড়ার আধা ঘণ্টা পর কাছিমটি আবার সাগরে নেমে যায়।

গতকাল শনিবার রাত ৯টার দিকে সেন্টমার্টিন ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম পাড়ার সৈকতে এমন দৃশ্যটি চোখে পড়েছে স্থানীয়দের।

দ্বীপের বিচ কর্মীদের তদারককারী জয়নাল উদ্দিন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দ্বীপের পশ্চিম সমুদ্র সৈকতে সাগর থেকে একটি মা কাছিম উঠে আসে। বেলাভূমিতে গর্ত করে প্রায় আধা ঘণ্টা অবস্থান নিয়ে ১১৬টি ডিম পাড়ে এটি। ডিম দেওয়া কাছিমটির ওজন প্রায় ৩০ কেজি হবে।

সেন্টমার্টিনে কর্মরত পরিবেশে অধিদপ্তরের কর্মী আবদুল আজিজ বলেন, 'শনিবার রাতে সৈকতের বেলাভূমি থেকে কাছিমের ১১৬টি ডিম আমরা সংগ্রহ করেছি। মূলত দ্বীপে পর্যটকদের চাপসহ পরিবেশ বিপর্যয়ের কারণে মা কাছিমের অনেকদিন তীরে আসা বন্ধ। এখন দ্বীপের সৈকতে মানুষের উপস্থিতি একটু কম হওয়ায় শনিবার আবারও মা কাছিম তীরে এসে ডিম দিয়ে গেল। কাছিমের ডিমগুলো পরিবেশ অধিদপ্তরের মেরিন পার্কে নিয়ে রাখা হয়েছে। প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এগুলো ফোটানোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান বলেন, 'দ্বীপের পশ্চিম সৈকতে একটি মা কাছিম ১১৬টি ডিম ছেড়েছে বলে খবর পেয়েছি। এটা আমাদের এবং প্রকৃতির জন্য একটি শুভ সংবাদ। দ্বীপে প্রাণীদের সহায়ক পরিবেশ বিনষ্টের অভিযোগ উঠছে বারবার। এ কারণে কাছিম আর আগের মতো তীরে আসছে না বলেও বিস্তর অভিযোগ। শনিবার রাতে মা কাছিম আবার তীরে এসে ডিম দেওয়ায় আগের প্রাকৃতিক পরিবেশ ফিরছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।'

Comments