চতুর্থ ‘রহস্যময় বস্তু’ ভূপাতিত করল মার্কিন বাহিনী

পেন্টাগনের এক বিবৃতিতে বলা হয়, রহস্যময় বস্তুটি ২০ হাজার ফুট (৬ হাজার ১০০ মিটার) উচ্চতায় উচ্চতায় উড়ছিল
যুক্তরাষ্ট্র, চীন, রহস্যময় বস্তু, লেক হিউরন,
যুক্তরাষ্ট্রের এফ-১৬ যুদ্ধবিমান। রয়টার্স ফাইল ফটো

চলতি মাসে আরেকটি 'রহস্যময় বস্তু' ভূপাতিত করেছে মার্কিন সামরিক বাহিনী। বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন রোববার বিকেলে কানাডা সীমান্তের কাছাকাছি লেক হিউরনের কাছে বিমানটি ভূপাতিত করার নির্দেশ দেন।

পেন্টাগনের এক বিবৃতিতে বলা হয়, রহস্যময় বস্তুটি ২০ হাজার ফুট (৬ হাজার ১০০ মিটার) উচ্চতায় উচ্চতায় উড়ছিল। ফলে, বাণিজ্যিক বিমান চলাচলে বাধাগ্রস্ত হতো।

বিবিসি বলছে, শনিবার মন্টানার সামরিক স্থাপনার ওপরে প্রথম এটিকে শনাক্ত করা হয়েছিল। তবে, বস্তটিকে সামরিক হুমকি হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে না। প্রতিরক্ষা কর্মকর্তারা এটিকে মনুষ্যবিহীন 'অক্টাগোনাল' কাঠামো হিসেবে বর্ণনা করেছেন। এর সঙ্গে স্ট্রিং সংযুক্ত আছে। স্থানীয় সময় ১৪টা ৪২ মিনিটে (জিএমটি ১৯টা ৪২ মিনিট) একটি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান থেকে ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে বস্তুটি বিধ্বস্ত হয়।

এর আগে, গত ৪ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ ক্যারোলিনা উপকূলে একটি সন্দেহভাজন চীনা 'গুপ্তচর বেলুন' ভূপাতিত করা হয়। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এটি চীনের বেলুন এবং কিছু সংবেদনশীল এলাকা পর্যবেক্ষণে ব্যবহৃত হচ্ছিল।

তবে, গুপ্তচরবৃত্তির জন্য ব্যবহারের অভিযোগ অস্বীকার করেছে চীন। তারা বলেছে, এটি একটি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ ডিভাইস। ওই ঘটনা এবং এর পরে কথার আক্রমণ-পাল্ট আক্রমণে ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে।

রোববার এক মার্কিন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা জানান, কয়েক দিন কোনো সাড়া না পাওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র বেইজিংয়ের সঙ্গে প্রথম বস্তুটির বিষয়ে যোগাযোগ করেছে। তবে, কী নিয়ে আলোচনা হয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

প্রথম ঘটনার পর মার্কিন যুদ্ধবিমানগুলো কয়েক দিনের মধ্যে আরও ৩টি রহস্যময় বস্তু গুলি করে ভূপাতিত করল। জো বাইডেন শুক্রবার উত্তর আলাস্কায় একটি বস্তু ভূপাতিত করার নির্দেশ দিয়েছিলেন এবং শনিবার উত্তর-পশ্চিম কানাডার ইউকনের ওপরে একই ধরনের আরেকটি বস্তু ভূপাতিত করার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

কর্মকর্তারা প্রকাশ্যে এই বস্তুগুলোর উত্স বা উদ্দেশ্যের কথা জানাননি। হোয়াইট হাউসের ন্যাশনাল সিকিউরিটির এক মুখপাত্র বলেন, 'এই বস্তুগুলো বেলুনের সঙ্গে খুব একটা সাদৃশ্যপূর্ণ ছিল না। ৪ ফেব্রুয়ারির বস্তুটি বেলুনের চেয়েও অনেক ছোট ছিল এবং ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত আমরা নিশ্চিতভাবে চিহ্নিত করতে পারব না।'

Comments