পারমাণবিক অস্ত্রে পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে গেল ভারত

স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট (এসআইপিআরআই) জানায়, ২০২৪ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত ভারতের কাছে মোট ১৭২টি পারমাণবিক অস্ত্র ছিল। আর পাকিস্তানের অস্ত্রভাণ্ডারে ছিল ১৭০টি।
ছবি: সংগৃহীত

পাকিস্তানের চেয়ে ভারতের কাছে বেশি সংখ্যক পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে বলে দাবি করেছে সুইডিশ এক প্রতিষ্ঠান।

স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট (এসআইপিআরআই) জানায়, ২০২৪ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত ভারতের কাছে মোট ১৭২টি পারমাণবিক অস্ত্র ছিল। আর পাকিস্তানের অস্ত্রভাণ্ডারে ছিল ১৭০টি।

২০২৩ সালে ভারত তার পারমাণবিক অস্ত্রাগারের আকার বাড়িয়েছে এবং ভারত ও পাকিস্তান উভয়েই নতুন ধরনের পারমাণবিক সরবরাহ ব্যবস্থার বিকাশ অব্যাহত রেখেছে।

গতকাল এসআইপিআরআইয়ের প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে বলে আজ মঙ্গলবার জানিয়েছে এনডিটিভি।

এসআইপিআরআই বলছে, পারমাণবিক অস্ত্রধারী নয় দেশ যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, চীন, ভারত, পাকিস্তান, উত্তর কোরিয়া এবং ইসরায়েল তাদের পারমাণবিক অস্ত্রের আধুনিকায়ন অব্যাহত রেখেছে এবং ২০২৩ সালে বেশ কয়েকটি দেশ নতুন পারমাণবিক অস্ত্রবাহী সিস্টেম মোতায়েন করেছে।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ২০২৩ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২৪ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত চীনের অস্ত্রাগারে পারমাণবিক ওয়ারহেডের সংখ্যা ৪১০ থেকে বেড়ে ৫০০ হয়েছে। এ সংখ্যা ক্রমশ বাড়তে থাকবে বলে আশঙ্কা করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, মোতায়েন করা পারমাণবিক ওয়ারহেডগুলোর মধ্যে প্রায় দুই হাজার ১০০ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রকে যেকোনো সময় ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে, যেগুলোর প্রায় সবই রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের।

এ ছাড়া, এই প্রথমবারের মতো চীন তার কিছু পারমাণবিক ওয়ারহেডকে যেকোনো সময় ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত রেখেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বর্তমানে সারাবিশ্বে ১২ হাজার ১২১টি পারমাণবিক অস্ত্র আছে, যার প্রায় ৯০ শতাংশই যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার অস্ত্রভাণ্ডারে মজুদ রয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

Students bleed as BCL pounces on them

Not just the students of Dhaka University, students of at least four more universities across the country bled yesterday as they came under attack by Chhatra League men during their anti-quota protests.

1h ago