ফ্যাশন ও সৌন্দর্য

বাজেটের মধ্যেই ফ্যাশনেবল থাকার ৭ টিপস

স্টাইলিংয়ের জন্য অনেক কিছু কেনাকাটার পেছনে অর্থ ব্যয় করা সবসময় সম্ভব হয় না। তবে তাতে চিন্তার কারণ নেই। খুব বেশি ব্যয় না করেও নিজেকে চমৎকারভাবে উপস্থাপন করা সম্ভব।
ছবি: সংগৃহীত

সবাই নিজেকে ফ্যাশনেবল ও সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতে চায়। কিন্তু স্টাইলিংয়ের জন্য অনেক কিছু কেনাকাটার পেছনে অর্থ ব্যয় করা সবসময় সম্ভব হয় না। তবে তাতে চিন্তার কারণ নেই। খুব বেশি ব্যয় না করেও নিজেকে চমৎকারভাবে উপস্থাপন করা সম্ভব।

চলুন জেনে এই এ সংক্রান্ত ৭টি টিপস-

মিক্স-ম্যাচ করুন

ফ্যাশন ক্রমাগত পরিবর্তিত হতে থাকে। যেহেতু স্টাইল দ্রুত আসে ও দ্রুত যায়, তাই সবসময় নতুন, ট্রেন্ডি পোশাক খুঁজুন এবং সেগুলো আগের পোশাকের সঙ্গে সমন্বয় করে পরুন। শুধু আগের পোশাক নিয়েই থাকলে আপনার ফ্যাশন একটু সেকেলে থেকে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

যেমন ধরুন, আপনার কোনো সালওয়ার কামিজের সালওয়ারটা এখন আর ট্রেন্ডে নেই। সেক্ষেত্রে পুরো পোশাকটা আলমারিতে ফেলে না রেখে এবং এটির বদলে নতুন জামা না কিনে কামিজটা ট্রেন্ডে থাকা কোনো পালাজ্জো বা লেগিংস দিয়ে পরে ফেলতে পারেন।

পুরস্কার ও লয়্যালটি প্রোগ্রাম

প্রায়ই কেনাকাটা করেন এমন দোকানে লয়্যালটি কার্ড প্রোগ্রামের জন্য সাইন আপ করুন। এর মাধ্যমে আপনি ফ্রি ডেলিভারি, জন্মদিনে উপহার পাওয়ার মতো কিছু বাড়তি সুবিধা পাবেন।

এ ছাড়া, বিল পরিশোধের আগে কোনো ডিসকাউন্ট আছে কি না ভালোভাবে দেখে নিন। এটি আপনার স্টাইলিং খরচ উল্লেখযোগ্যভাবে কমাতে সাহায্য করবে।

পুরনো পোশাক রিসাইকেল করুন

পুরনো জামাকাপড় নতুন করে রিসাইকেল করলে নতুন পোশাক কেনার টাকা বাঁচাতে পারে। কেনার সময় কাপড় ও রং দুটোই টেকসই হবে এমন ভালো মানের পোশাক বেছে নিন। এগুলো বেশিদিন পরতে পারবেন এবং পরে রিসাইকেল করেও পরতে পারবেন।

পুরনো জামাকাপড়ের ওপর ট্রেন্ডি কোনো ডিজাইন এমব্রয়ডারি করিয়ে এটিকে নতুন রূপ দিতে পারেন বা লেইস ব্যবহার করে পোশাকটিকে ট্রেন্ডি করে তুলতে পারেন। তবে এই কাজগুলো করার সময় কাপড়টি কেমন সেটি বুঝে কাজ করা গুরুত্বপূর্ণ। খুব পাতলা বা খুব পুরনো কাপড় ব্যবহার করা উচিত নয় এবং পোশাক তৈরির সময় ফ্যাব্রিকের প্যাটার্ন উপেক্ষা করা উচিত নয়।

কাপড় লেয়ার আপ করুন

নতুন পোশাক না কিনেই ফ্যাশন লেভেল বাড়ানোর একটি চমৎকার পদ্ধতি হলো কয়েকটি ভিন্ন ভিন্ন পোশাক পরা এবং একটিকে অপরটির ওপর লেয়ার করা। একটি ব্লাউজ বা টি-শার্ট আলমারি থেকে বের করে কার্ডিগান, সোয়েটার বা ওয়েস্টকোটের কোটের সঙ্গে পরে ফেলুন। মাথায় বেঁধে নিন একটি স্কার্ফ। সবমিলিয়ে চমৎকার ও ট্রেন্ডি দেখাবে। মনে হবে নতুন একটি পোশাক পরে আছেন।

স্টাইল পুরনো হয় না সে ধরনের পোশাক কিনুন

ক্লাসিক কালো বা সাদা টি-শার্ট মোটামুটি যে কোনো কিছুর সঙ্গে পরা যেতে পারে এবং এর আবেদন চিরন্তন। অর্থাৎ এটি কখনই ট্রেন্ডের বাইরে যাবে না। একইভাবে একটি নিউট্রাল রঙের জিন্স আপনার আলমারির যে কোনো পোশাকের সঙ্গে যাবে এবং এটিও ট্রেন্ডেই থাকবে সবসময়। পোশাক কেনার সময় যেসব পোশাকের আবেদন কখনো ফুরায় না তেমন পোশাক কিনতে পারেন। এতে এক পোশাক বহু বছর ট্রেন্ডে থাকবে এবং পরতে পারবেন।

আনুষঙ্গিক জিনিস ও ব্যাগ

ছিমছাম স্ট্রাকচার্ড ব্যাগ এবং আনুষঙ্গিক বাছাই করলে দেখতে ফ্যাশনেবল লাগে। বাজেটের মধ্যে স্ট্রাকচার্ড ব্যাগ কিনে নিন। এই ব্যাগ বিভিন্ন ধরনের পোশাকের সঙ্গে মানায়। খুব বড় বা খুব উজ্জ্বল ব্যাগ কেনা এড়িয়ে চলুন। অন্তত একটি সাদা ও একটি কালো স্ট্রাকচার্ড ব্যাগ সংগ্রহে রাখুন।

পোশাক স্টাইলিংয়ে ক্ষেত্রে গয়না সবসময় হালকা রাখুন। এগুলো যেন আপনার পোশাককে ছাপিয়ে না যায়।

বেল্ট ও ওভারসাইজড পোশাক

পছন্দের প্যান্টের সঙ্গে যেমন বেল্ট পরতে পারেন, তেমনি বেল্টকে ব্যবহার করতে পারেন আপনার জ্যাকেট বা পোশাকটিকে আরও স্টাইলিশ চেহারা দেওয়ার কাজেও। একটি বেল্টকে খুব সাধারণ মনে হলেও, সঠিকভাবে সমন্বয় করে পরতে পারলে এটি যে কোনো পোশাকের চেহারা পল্টে দিতে পারে।

ওভারসাইজড পোশাক পরার ট্রেন্ড এখন দারুণ জনপ্রিয়। সাশ্রয়ী দামের পোশাকও ওভারসাইজড পরলে দামি মনে হয়।

অনুবাদ করেছেন নাদিয়া বিনতে ইসলাম

Comments

The Daily Star  | English

Response to Iran’s attack: Israel war cabinet weighing options

Israel yesterday faced pressure from allies to show restraint and avoid an escalation of conflict in the Middle East as it considered how to respond to Iran’s weekend missile and drone attack.

5h ago