স্কাইডাইভিং: কোথায়-কখন করবেন, খরচ কত পড়বে

আমাদের যদি পাখির মতো ডানা থাকতো, যদি উড়তে পারতাম, কতই না আনন্দ হতো।
একসঙ্গে অনেকের স্কাইডাইভিং। ছবি: সংগৃহীত

'মানুষ আমি, আমার কেন পাখির মতো মন' গানের এই কথাটি যেন সবারই মনের কথা। আমাদের যদি পাখির মতো ডানা থাকতো, যদি উড়তে পারতাম, কতই না আনন্দ হতো। এমন কল্পনা মাঝেমধ্যেই উঁকি দেয় কমবেশি অনেকেরই মনে। কিন্তু সুযোগ না থাকায় স্বপ্ন দেখেই সেই তেষ্টা মেটাতে হয়। 

তবে বাস্তবে সেই আকাঙ্ক্ষাও পূরণ করা যেতে পারে স্কাইডাইভিংয়ের মাধ্যমে। সামর্থ্য না থাকলেও স্বপ্নের ঝুলিতে যাদের বিদেশ ভ্রমণের ইচ্ছা আছে, তাদের জন্যই আজকের এই লেখা। 

মাউন্ট এভারেস্ট, নেপাল

স্কাইডাইভিংয়ের কথা কল্পনা করলেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে চিরাচরিত নীল আকাশে উড়ে বেড়ানো আর প্যারাসুট নিয়ে মাটিতে বা সমুদ্রের পানিতে নেমে আসার দৃশ্যপট। কিন্তু মেঘের পর মাটি না হয়ে যদি পাহাড় চূড়া দেখার সুযোগ হয় তাহলে তো কোনো কথাই নেই। আপনাকে এমন অভিজ্ঞতা দেওয়ার অপেক্ষায় নেপালের মাউন্ট এভারেস্ট। ভূমি থেকে ২৩ হাজার ফুট উচ্চতায় স্কাইডাইভিং করার সুযোগ রয়েছে নেপালে। সেখান থেকে নামতে হয় সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১৫ হাজার ফুট উপরে আমা ডাবলাম বেস ক্যাম্পে বা ১২ হাজার ৩৪০ ফুট উচ্চতার সায়াংবোচে বিমানবন্দরে। নেপাল স্কাইডাইভিং করার জন্য বিশ্বের সেরা স্থানগুলোর মধ্যে অন্যতম। এখানে খরচ পড়বে জনপ্রতি ২৯০ মার্কিন ডলার। সবচেয়ে ভালো সময় মে থেকে আগস্ট মাস। 

পাম জুমেইরাহ, দুবাই 

মার্ভেলপ্রেমী না হলেও দুবাইয়ের আসমান থেকে চমৎকার স্থাপত্যশৈলী দেখার দৃশ্য মুগ্ধ করবে যে কাউকে। আকাশচুম্বী ভবন, মরুভূমি, সমুদ্র সব একসঙ্গে উপভোগ করার সুযোগ মিলবে এখানে। তবে এটি স্কাইডাইভিংয়ের জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় স্থান হিসেবে পরিচিতি পাওয়ায় আপনাকে আগে থেকেই নাম লেখাতে হবে। নয়ত দীর্ঘ তালিকার অপেক্ষায় বসে থাকতে হবে। এখানে জনপ্রতি খরচ হবে ৫৩০ মার্কিন ডলার। অক্টোবর থেকে মার্চ মাস স্কাইডাইভিংয়ের সেরা সময়। 

ইন্টারলেকেন, সুইজারল্যান্ড 

পাহাড় না হয়ে যদি তুষার ঢাকা উপকূল আর অসাধারণ হিমবাহের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের সাক্ষী হয়ে আকাশে উড়ে বেড়াতে চান, তাহলে স্কাইডাইভিংয়ের জন্য বেছে নিতে পারেন সুইজারল্যান্ড। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১৫ হাজার ফুট উচ্চতা থেকে ঝাঁপিয়ে পড়লে পৃথিবীকে স্বর্গ মনে হবে। ইন্টারলেকেন থেকে লেক থুন ও লেক ব্রিয়েঞ্জের মতো জলাশয়ের সঙ্গে আইগার, মঞ্চ ও জংফ্রাউ এর মতো পাহাড় চূড়ার দেখা পাবেন সহজে। খরচ পড়বে ৪২০ মার্কিন ডলার আর জুন থেকে সেপ্টেম্বর হবে উপযুক্ত সময়। 

নর্থ উলোংগং বিচ, অস্ট্রেলিয়া

সিডনি থেকে ঘণ্টাখানেক পথ পেরোলেই অস্ট্রেলিয়ায় স্কাইডাইভিংয়ের জন্য সবচেয়ে সেরা ড্রপ জোনের দেখা মিলবে। ১৪ হাজার ফুট উচ্চতা থেকে নর্থ উলোংগং বিচের সমুদ্রে তিমি ও ডলফিন ভেসে বেড়াতে দেখলে মন আনন্দে ভরে যাবে। উলোংগংয়ে ট্যান্ডেম ও সোলো জাম্প করারও সুযোগ রয়েছে। খরচ পড়বে ২৫০ মার্কিন ডলার। যেতে পারেন ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি মাসে। 

স্নোহমিশ, ওয়াশিংটন 

স্কাইডাইভিং করার জন্য চমৎকার স্থানের তালিকায় রয়েছে ওয়াশিংটনের স্নোহমিশ। এখানে ভাসমান সান জুয়ানের সবুজাভ দ্বীপপুঞ্জে মাউন্ট রেইনিয়ার, মাউন্ট বেকারের সৌন্দর্য দেখলে অবাক হবেন আপনিও। ২৩০ মার্কিন ডলারে এমন দৃশ্য দেখা যাবে এ জায়গায় এলে। মে থেকে অক্টোবর সবচেয়ে ভালো সময় স্নোহমিশের জন্য। 

ভিক্টোরিয়া জলপ্রপাত, আফ্রিকা

ভেবে দেখুন, আপনি আকাশ থেকে নিচে পড়ার সময় রংধনুর সঙ্গে দেখা, শরতের মেঘের জলের ঝাপটা লাগছে গায়ে ক্ষণে ক্ষণে, তারপর নেমে এলেন কোনো এক নদীর ধারে। ঠিক এমন অভিজ্ঞতার দেখা মিলবে আফ্রিকার ভিক্টোরিয়া জলপ্রপাতের অ্যাডভেঞ্চারে। এখানে ৬ হাজার থেকে ১০ হাজার ফুট উচ্চতা থেকে স্কাইডাইভিং করার সুযোগ রয়েছে। খরচ পড়বে ২৩০ থেকে ৩০৫ মার্কিন ডলার, যেতে পারেন নভেম্বর থেকে মার্চে।  

দেনারাউ আইল্যান্ড, ফিজি

ভূমির সীমানা থেকে কিছুক্ষণের ছুটি নিয়ে আকাশের জল, বাতাসের অনুভূতি পেতে ইচ্ছে করলে ফিজি যেতে পারেন স্কাইডাইভিং করতে। প্রবাল প্রাচীরে অ্যাডভেঞ্চার ভ্রমণের জন্য এর চেয়ে ভালো জায়গা আর হতে পারে না। দেনারাউ আইল্যান্ড থেকে কয়েক হাজার ফুট উচ্চতায় চমৎকার প্রকৃতি আপনাকে স্বাগত জানাবে এখানে। নভেম্বর থেকে এপ্রিল মাসে যেতে পারেন, প্রয়োজন পড়বে ২৫০ মার্কিন ডলার।  

সান্তা বারবারা, ক্যালিফোর্নিয়া 

ক্যালিফোর্নিয়ার উপকূলরেখা পাশ কাটিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে নেমে আসা যাবে সান্তা বারবারায় গেলে। প্রথমবার স্কাইডাইভিং করার অভিজ্ঞতায় সাহায্য পাওয়া যাবে প্রশিক্ষকের। মাটি থেকে ১৮ হাজার ফুট উঁচু স্থান থেকে ঝাঁপ দেওয়া যাবে এখানে। মে থেকে অক্টোবরে যেতে পারেন, জনপ্রতি খরচ হবে ২০০ মার্কিন ডলার। 

কুইন্সটাউন, নিউজিল্যান্ড

অ্যাডভেঞ্চারপ্রেমী হলে কুইন্সটাউন সফরে স্কাইডাইভিং করার পরিকল্পনা করতে পারেন। নিউজিল্যান্ড অবাক করার মতো সৌন্দর্যের দ্বার খুলে রেখেছে। এখানে এলে আকাশের সঙ্গে বন্ধুত্ব না করে ফেরত যাওয়া পর্যটকদের সংখ্যা খুব কমই। ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি (গ্রীষ্ম) বা জুন থেকে জুলাই (শীতকালীন) যেকোনো স্লটে অভিজ্ঞতা নিয়ে আসতে পারবেন জনপ্রতি মাত্র ৩৮০ মার্কিন ডলারে। 

কুইবেক সিটি, কানাডা 

একইসঙ্গে সমৃদ্ধ ও প্রাণবন্ত এমন জায়গা খুব একটা দেখা যায় না। এ ক্ষেত্রে কুইবেকে সংস্কৃতি, শিল্প, অ্যাডভেঞ্চার, ধর্ম, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য,  বিলাসিতা সবই রয়েছে। এটি বিশ্বের বহুমুখী এলাকা হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। তাই পর্যটকরাও ঘুরতে যান সুযোগ পেলে। এখানে স্কাইডাইভিং করা যায় যেকোনো সময়ে। খরচ পড়বে ২০০ মার্কিন ডলার।  

মরিশাস সিটি, মরিশাস 

ভারত মহাসাগরের পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে মরিশাস জনপ্রিয়। পাখির চোখে উজ্জ্বল নীল জল দেখার সুযোগ পাওয়া যায় এখানকার স্কাইডাইভিংয়ে। অনন্য প্রকৃতি ও নান্দনিকতা উপভোগ করতে যেতে পারেন সময় পেলে। যেতে পারেন জুলাই থেকে অক্টোবরে, ব্যয় হবে ৩৮০ মার্কিন ডলার করে। 

Comments

The Daily Star  | English

PM briefing media on China visit

The press conference started at the prime minister's official residence Ganabhaban here at 4pm today.

1h ago