নাগাল্যান্ডের ৬ জেলায় ৪ লাখ ভোটারের একজনও ভোট দেয়নি

এই ছয় জেলায় পোলিং কর্মকর্তারা প্রায় নয় ঘণ্টা অপেক্ষা করেও চার লাখ ভোটারের কাউকেই পাননি কেন্দ্রে।
শুক্রবার নাগাল্যান্ডের শামাতোরের একটি নির্জন ভোটকেন্দ্র। ছবি: পিটিআইয়ের সৌজন্যে

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের প্রথম ধাপে দেশটির নাগাল্যান্ড রাজ্যের পূর্বাঞ্চলের ছয়টি জেলায় মোট ভোট পড়েছে শূন্য শতাংশ।

আজ শনিবার ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে বলা হয়েছে, গতকালের এই নির্বাচনের আগে একটি সংগঠনের পক্ষ থেকে হরতালের ডাক দিয়ে ভোট বর্জনের আহ্বান জানানো হয়। সেই ডাকে সাড়া দিয়েই ভোটাররা কেন্দ্রে যাননি।

নির্বাচন কমিশনের এক কর্মকর্তা দাবি করেন, দু-একজন হয়তো ভোট দিয়েছেন, কিন্তু শতাংশের হিসাবে তা শূন্য।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নাগাল্যান্ডের স্বায়ত্তশাসনের দাবিতে দ্য ইস্টার্ন নাগাল্যান্ড পিউপিলস অর্গানাইজেশন (ইএনপিও) এই হরতালের ডাক দেয়।

দ্য হিন্দুর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই ছয় জেলায় পোলিং কর্মকর্তারা প্রায় নয় ঘণ্টা অপেক্ষা করেও চার লাখ ভোটারের কাউকেই পাননি কেন্দ্রে।

রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী নিফিউ রিও বলেছেন, ইএনপিও যে দাবি জানিয়েছে তা নিয়ে রাজ্য সরকারের কোনো সমস্যা নেই। কারণ, তারা ইতোমধ্যেই স্বায়ত্তশাসনের জন্য সুপারিশ করেছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদন বলছে, নির্বাচন ব্যাহত করায় রাজ্যের প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তা ইএনপিওকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৭১সি ধারা অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তা জানতে চেয়েছেন।

জবাবে ইএনপিও জানিয়েছে, এটা জনগণের 'ঐচ্ছিক উদ্যোগ' এবং নির্বাচনে কোনো অযাচিত প্রভাব সম্পর্কিত অপরাধ সংঘটিত না হওয়ায় ১৭১সি ধারা এ ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়।

ভারতের লোকসভায় নাগাল্যান্ডের আসন মাত্র একটি। বর্তমানে ক্ষমতাসীন বিজেপির মিত্র দল ন্যাশনালিস্ট ডেমোক্রেটিক প্রগ্রেসিভ পার্টির (এনডিপিপি) তোখেহো ইয়েপথোমি নাগাল্যান্ড থেকে লোকসভার সদস্য হিসেবে রয়েছেন।

এবারের নির্বাচনে লোকসভা সদস্য হতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এনডিপিপির চুম্বেন মুরি, কংগ্রেসের সুপংমেরেন জামির এবং স্বতন্ত্র হাইথুং টুঙ্গো লোথা।

সারা দিনে রাজ্যটিতে মোট ভোটার উপস্থিতি ছিল ৫৬ শতাংশ।

গতকাল শুরু হওয়া এই নির্বাচনটি ভারতের ১৮তম লোকসভা নির্বাচন। ফেডারেল রাষ্ট্রব্যবস্থায় বিধানসভা নির্বাচনের মাধ্যমে রাজ্যসরকার এবং লোকসভা বা জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে তৈরি হয় কেন্দ্রীয় সরকার।

৫৪৩ আসনের লোকসভা নির্বাচনে সরকার গঠনের জন্য দরকার হয় ২৭২টি আসন।

সাত ধাপে ৪৪ দিন ধরে চলবে এই নির্বাচন। প্রথম ধাপে ১৯ এপ্রিল ভোটগ্রহণ হয়েছে ১০২ আসনে এবং দ্বিতীয় ধাপে ২৬ এপ্রিল ৮৯ আসনে, তৃতীয় ধাপে ৭ মে ৯৪ আসনে, চতুর্থ ধাপে ১৩ মে ৯৬ আসনে, পঞ্চম ধাপে ২০ মে ৪৯ আসনে, ষষ্ঠ ধাপে ২৫ মে ৫৭ আসনে ও শেষ ধাপে ১ জুন ৫৬ আসনে ভোটগ্রহণ হবে।

ভোট গণনা ও ফলাফল ঘোষণা হবে ৪ জুন।

 

Comments

The Daily Star  | English
MP Azim’s body recovery

Feud over gold stash behind murder

Slain lawmaker Anwarul Azim Anar and key suspect Aktaruzzaman used to run a gold smuggling racket until they fell out over money and Azim kept a stash worth over Tk 100 crore to himself, detectives said.

10h ago