অপরাধ ও বিচার

ছাদে যাত্রী বহন বন্ধে যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে আদালতকে জানাল রেল

টিকিট কালোবাজারি ও ট্রেনের ছাদে যাত্রী ওঠা বন্ধে মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে বলে আদালতকে জানিয়েছে রেল মন্ত্রণালয়। এ ছাড়া, বিনা টিকিটে ভ্রমণ রোধে সরকারের পক্ষ থেকে অর্ধশত রেলওয়ে স্টেশনে বেষ্টনী দেওয়া হয়েছে।
২১ আগস্ট, গ্রেনেড হামলা
ফাইল ছবি

টিকিট কালোবাজারি ও ট্রেনের ছাদে যাত্রী ওঠা বন্ধে মনিটরিং সেল গঠন করা হয়েছে বলে আদালতকে জানিয়েছে রেল মন্ত্রণালয়। এ ছাড়া, বিনা টিকিটে ভ্রমণ রোধে সরকারের পক্ষ থেকে অর্ধশত রেলওয়ে স্টেশনে বেষ্টনী দেওয়া হয়েছে।

আজ রোববার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চে মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন জমা দেয়। এর আগে একই বেঞ্চ স্বপ্রণোদিত (সুয়োমুটো) রুল দিয়েছিলেন।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক মন্ত্রণালয়ের পক্ষে প্রতিবেদন জমা দেন। তিনি দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, রেলের নেওয়া উদ্যোগে আদালত সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। আগামী ১০ আগস্ট আদালত এ বিষয়ে আদেশ দেবেন।

গত ২১ জুলাই হাইকোর্ট বেঞ্চ পর্যবেক্ষণ জানিয়ে বলেন, ট্রেনের ছাদে এখন থেকে আর কোনো যাত্রী নেওয়া যাবে না। যদি কোনো ট্রেনের ছাদে যাত্রী বহন করা হয়, তাহলে ব্যর্থতার দায়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ রেলওয়ের অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার বদল চেয়ে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন রনির অবস্থানের কারণ এবং এ বিষয়ে কী উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে—গত ২০ জুলাই তা জানতে চেয়েছিলেন হাইকোর্ট বিভাগ।

Comments