অপরাধ ও বিচার

নিম্নমানের ভোজ্যতেল বাজারজাত, নুরজাহান গ্রুপের চেয়ারম্যানের ১ বছরের কারাদণ্ড

নিম্নমানের ভোজ্যতেল বাজারজাত করায় নুরজাহান গ্রুপের চেয়ারম্যান জহির আহম্মদকে ১ বছর কারাদণ্ড ও আড়াই লাখ টাকা সাজা দিয়েছেন আদালত। 
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

নিম্নমানের ভোজ্যতেল বাজারজাত করায় নুরজাহান গ্রুপের চেয়ারম্যান জহির আহম্মদকে ১ বছর কারাদণ্ড ও আড়াই লাখ টাকা সাজা দিয়েছেন আদালত। 

বিএসটিআইয়ের করা একটি মামলায় আজ মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম কাজী শরিফুল ইসলাম এ রায় দেন।

আসামি পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

বিএসটিআইয়ের আইনজীবী আশরাফ উদ্দিন খন্দকার রনি দ্য ডেইলি স্টারকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, 'সয়াবিন তেলে যে সব উপাদান থাকার কথা, কোম্পানিটির জাসমির ব্র্যান্ডের তেলে তা নিশ্চিত না করেই সংরক্ষণ, সরবরাহ ও বাজারজাত করা হচ্ছিল। বিএসটিআই আইনে এটি অপরাধ হওয়ায় মামলা করা হয়।'

মামলার বিবরণী অনুযায়ী, বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় নিম্নমানের তেল বাজারজাতের প্রমাণ পাওয়ায় ২০১৯ সালের ২০ অক্টোবর আদালতে মামলাটি করা হয়।

মামলায় বলা হয়, জাসমির ব্র্যান্ডের সয়াবিনে ভিটামিন 'এ'র স্ট্যান্ডার্ড মান নির্ধারণ করা আছে ১৫ মিলিগ্রাম থেকে ৩০ মিলিগ্রাম। কিন্তু বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় এই ব্র্যান্ডের সয়াবিন তেলে ভিটামিন 'এ'র উপাদান পাওয়া গেছে ৪ দশমিক ২৭ মিলিগ্রাম।

আইনজীবী আশরাফ উদ্দিন খন্দকার জানান, মামলায় নুরজাহান গ্রুপের চেয়ারম্যান ও গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান জাসমির সুপার অয়েল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জহির আহম্মদকে আসামি করা হয়েছিল। 

আজ আদালতে রায়ের সময় আসামি পক্ষের কোনো আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন না বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে মন্তব্য জানতে নুরজাহান গ্রুপের চেয়ারম্যান জহির আহম্মদকে একাধিকবার ফোন দিলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।
 

Comments