মাদকের কারণে ফারদিন হত্যাকাণ্ড আমরা কখনো বলিনি: ডিবি প্রধান

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী ফারদিন নূর পরশ হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) প্রধান হারুন অর রশীদ বলেছেন, এখানে মাদক সংশ্লিষ্টতা আছে সে কথা আমরা কখনো বলিনি।
হারুন-অর-রশিদ। ফাইল ছবি

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী ফারদিন নূর পরশ হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) প্রধান হারুন অর রশীদ বলেছেন, এখানে মাদক সংশ্লিষ্টতা আছে সে কথা আমরা কখনো বলিনি।

আজ শনিবার দুপুরে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

হারুন বলেন, ফারদিনের বাবা একটি মামলা করেছেন। সেই মামলায় এক নম্বর আসামি করেছেন তারই (ফারদিন) একজন বন্ধুকে। তাকে আমরা গ্রেপ্তার করেছি। আমরা এটাও বলছি না, যার নামে মামলা হয়েছে সে এর জন্য দায়ী। তাকে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে, তার সঙ্গে আমরা কথা বলছি। ফারদিন ঢাকা শহরের যেখানে যেখানে গেছে প্রযুক্তি ব্যবহার করে সেগুলো আমরা খুঁজে বের করেছি। সত্যিকার অর্থে, সুনির্দিষ্ট তথ্য বের করতে পারিনি বলে আমরা জানাতে পারছি না। তবে আমাদের কাজ চলছে।

হারুণ আরও বলেন, এই হত্যাকাণ্ডে মাদকের সংশ্লিষ্টতা, এটাও কোনো কনক্রিট বিষয় না। তার মোবাইল ফোনের ডেটা এনালাইসিস, বিভিন্ন জায়গায় সে কথা বলেছে, সব কিছু মিলে আমার মনে হচ্ছে ঢাকা শহরের কোনো একটি জায়গা...তার মোবাইল ফোনের লোকেশন কোনো এক সময় নারায়ণগঞ্জেও গেছে। তদন্তের স্বার্থে আমরা এখন কিছু বলতে পারছি না।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বলতে শুরু ডিবিকে বোঝায় না, আরও অনেক বাহিনী রয়েছে। এ রকম কথা ডিবি থেকে বলা হয়নি। আমরা এ কথা বলতে পারিও না। আমরা এখনো বলছি না—মাদকের কারণে সে খুন হয়েছে। আমরা বিচার-বিশ্লেষণ করছি, আমরা এখনো কোনো কনক্রিট তথ্য পাইনি।

ডিবি নির্দিষ্ট কাউকে খুঁজছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, তদন্তের স্বার্থে আমরা চনপাড়া, ডেমরা, খিলগাঁও গিয়েছিলাম। সব জায়গায় আমাদের টিম কাজ করছে, আমরা এখনো কোনো কনক্রিট তথ্য পাইনি। ডিবির পক্ষ থেকে কখনো বলা হয়নি, ফারদিন চনপাড়া গিয়ে মাদকের কারণে মারা গেছে।

Comments