নারায়ণগঞ্জে ছেলেকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগে মা গ্রেপ্তার

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দগ্ধ কিশোরের মৃত্যুর ঘটনায় তার মা লিপি বেগমকে (৩৪) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দগ্ধ কিশোরের মৃত্যুর ঘটনায় তার মা লিপি বেগমকে (৩৪) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

লিপির প্রাক্তন স্বামী আনোয়ার হোসেন এই মৃত্যুকে হত্যাকাণ্ড দাবি করে মামলা দায়ের করেছেন। অভিযোগ আনা হয়েছে, লিপি তার ছেলে রেদোয়ান আহমেদ রাজুর (১৪) হাত-পা বেঁধে শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছিলেন।

আজ রোববার সকালে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনিচুর রহমান মোল্লা দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, লিপিকে আদালতে তোলার প্রস্তুতি চলছে।

মামলা দায়েরের পর গত রাতে পুলিশ তাকে বেপারীপাড়ার ভাড়া বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে। লিপি ২ ছেলেকে নিয়ে বসবার করতেন৷

পুলিশ জানায়, গত ১৩ নভেম্বর রাজু দগ্ধ হন এবং ১৮ নভেম্বর দুপুরে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়৷ ওই ঘটনায় গত রাতে আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আনোয়ার দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, ৪ বছর আগে স্ত্রীর সঙ্গে তার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এলাকাবাসীর কাছে তিনি জানতে পারেন, রাজুর হাত-পা বেঁধে শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে লিপি৷ তার শরীরের ৭০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল৷

লিপির বোন মিনু বেগমের দাবি, হোসিয়ারি কারখানার চাকরি চলে যাওয়ায় লিপি রাজুকে বকাঝকা করে। সেই কারণে আত্মহত্যার উদ্দেশ্যে রাজু নিজেই তার শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

বেপারীপাড়ার বাসিন্দা মো. ইরান ডেইলি স্টারকে বলেন, 'সবাই বলছে, লিপি তার ছেলেকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা করেছে৷ তবে কেউই স্বচক্ষে দেখেনি৷'

Comments