সারাদেশে ৬ মাসে ধর্ষণের শিকার ৬৪০ নারী: আসক

গত বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সারাদেশে ৬৪০ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন।
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

গত বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সারাদেশে ৬৪০ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন।

মঙ্গলবার গাজীপুর শহরের মধ্য ছায়াবিথী এলাকায় সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছে আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)।

আসকের সমন্বয়কারী অ্যাডভোকেট আসমা খানম রুবা জানান, গাজীপুরে ৬ মাসে ২৭ জন নারী ধর্ষণ ও সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। সারাদেশে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৬৪০ জন। ধর্ষণ পরবর্তী হত্যার শিকার হয়েছেন ২৩ জন এবং ধর্ষণের পর আত্মহত্যা করেছেন একজন।

একই সময়ে সারা দেশে যৌন হয়রানি ও উত্যক্তের শিকার হয়েছেন ১৬১ জন নারী। এসব ঘটনার প্রতিবাদ করতে গিয়ে নির্যাতন ও হয়রানির শিকার হয়েছেন ৩৭ জন পুরুষ এবং খুন হয়েছেন ৫ জন পুরুষ। উত্যক্তের কারণে আত্মহত্যা করেছেন ২ জন নারী।

আসক জানায়, ২০২২ সালের (জুলাই-ডিসেম্বর) সারা দেশে পারিবারিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ২৫১ নারী। যার মধ্যে নির্যাতনের কারণে মারা গেছেন ১৫২ জন এবং আত্মহত্যা করেছেন ৫৫ জন। ২০২১ সালে পারিবারিক নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন ৬৪০ জন নারী। ওই বছরের একই সময়ে যৌতুকের জন্য নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ৭৬ নারী। এর মধ্যে শারীরিক নির্যাতনের পর হত্যার শিকার হন ৩০ জন নারী এবং আত্মহত্যা করেন একজন নারী।

আসকের তথ্য সংরক্ষণ ইউনিটের হিসাব মতে, গত বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বরে সালিশ ও ফতোয়ার মাধ্যমে ৩ নারী নির্যাতনের শিকার হন। এর মধ্যে সালিশে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হন ৩ নারী, নির্যাতন পরবর্তী সময়ে আত্মহত্যা করেন একজন নারী। উল্লেখ্য, ২০২১ সালে সালিশ ও ফতোয়ার শিকার হয়েছিলেন মোট ১২ জন নারী।

একই বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর সময়ে ১৪ জন নারী গৃহকর্মী নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে শারীরিক নির্যাতনের পরবর্তী সময়ে মারা যান ৭ জন নারী এবং আত্মহত্যা করেছেন একজন নারী। অন্যদিকে গত বছরে (জুলাই থেকে ডিসেম্বর) এসিড নিক্ষেপের শিকার হয়েছেন ৫ জন নারী।

মঙ্গলবার অনুষ্ঠানে এ সংক্রান্ত মাল্টিমিডিয়া স্লাইড প্রদর্শন করেন আসকের গাজীপুর জেলা ব্যবস্থাপক আসাদুজ্জামান। এতে গাজীপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহতাব উদ্দিন আহম্মদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাহিম সরকার, সিনিয়র সহ-সভাপতি সৈয়দ মোকছেদুল আলম লিটন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আফজাল হোসেন, কোষাধ্যক্ষ সাদেক আলী, কার্যনির্বাহী সদস্য রায়হানুল ইসলাম আকন্দ, সদস্য কাজী মকবুল হোসেন, কালিয়াকৈর প্রেসক্লাবের সভাপতি আইয়ুব রানা, কালীগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আশরাফুল আলম আইয়ুব, শ্রীপুর উপজেলা সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আনিছুর রহমান শামীমসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

Comments

The Daily Star  | English

Cyclones in Bangladesh: Fewer but fiercer since the 90s

Though the number of cyclones in general has come down in Bangladesh over the years, the intensity of the cyclones has increased, meaning the number of super cyclones has gone up, posing a greater threat to people in coastal areas, a recent study found

35m ago