রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার

‘অস্ত্রের মুখে ঘর থেকে তুলে নেওয়ার ৬ ঘণ্টা পর’ তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।   
স্টার অনলাইন গ্রাফিক্স

কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী ৮ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে 'অস্ত্রের মুখে ঘর থেকে তুলে' নিয়ে ১ জনকে গলাকেটে ও গুলি করে হত্যা করেছে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা।

নিহত রোহিঙ্গার নাম ছৈয়দ আলম (৪০)। তিনি উখিয়ার বালুখালী ৮ ক্যাম্পের ই-ব্লকের বাসিন্দা। 'অস্ত্রের মুখে ঘর থেকে তুলে নেওয়ার ৬ ঘণ্টা পর' তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।   

নিহতের স্বজন ও স্থানীয়দের বরাতে উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  শেখ মোহাম্মদ আলী দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'শনিবার রাত ১১টার দিকে ছৈয়দ আলমকে ৮ থেকে ১০ জন অস্ত্রের মুখে ঘর থেকে তুলে নিয়ে যায়। পরে রাতে স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজির পরও তার সন্ধান পাননি।'

শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, 'আজ রোববার ভোর ৫টায় উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের বালুখালী ৮ নম্বর ক্যাম্পের ই-ব্লকের রোহিঙ্গা খায়রুল বশরের বসতঘরের পাশে পতিত জায়গায় স্থানীয়রা একজনের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে গলাকাটা ও গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করেছে।'

ওসি আরও বলেন, 'কী কারণে এ খুনের ঘটনা ঘটেছে পুলিশ তা এখনো নিশ্চিত নয়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের দুষ্কৃতিকারী লোকজন ঘটনাটি ঘটিয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করে গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।'

নিহতের মরদেহ কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

Comments