ঢাকা ও গাজীপুরের ৫ সরকারি হাসপাতাল থেকে ৪১ দালাল আটক

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানাধীন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল, হৃদরোগ হাসপাতাল, শিশু হাসপাতাল ও পঙ্গু হাসপাতালে অভিযান চালান র‌্যাব-২ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত।
রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে অভিযান শেষে ব্রিফিং। ছবি: র‍্যাবের সৌজন্যে

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালসহ চারটি হাসপাতাল থেকে ৩৮ জন দালালকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দিয়েছেন র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

অন্যদিকে, গাজীপুরে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে অভিযান চালিয়ে দালাল চক্রের ৩ সদস্যকে আটক করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানাধীন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল, হৃদরোগ হাসপাতাল, শিশু হাসপাতাল ও পঙ্গু হাসপাতালে অভিযান চালান র‌্যাব-২ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত।

র‍্যাব জানায়, সংঘবদ্ধ দালাল চক্রটি হাসপাতালগুলোতে রোগী ও রোগীর আত্মীয়-স্বজনদের দ্রুত ও ভালো সেবা দেওয়ার আশ্বাসে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তি প্রচারিত হওয়ার পরও দালাল চক্র সাধারণ মানুষকে হয়রানি করা বন্ধ করেনি।

আজ র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু হাসান ও মো. মাজহারুল ইসলামের পরিচালনায় বিশেষ ভ্রাম্যমাণ এই দালাল চক্রের ৩৮ জনকে আটক করেছেন।

অন্যদিকে বিকেল ৩টার দিকে গাজীপুরে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন ওয়ার্ড ও জরুরি বিভাগের সামনে থেকে দালাল চক্রের তিন জনকে আটক করা হয়েছে।

তারা হলেন—ফাতেমা, অজুফা, স্বান্তনা। তাদের বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি।

গাজীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা আক্তার লাবণী দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, সরকারি কাজে বাধা এবং সরকারি হাসপাতাল থেকে রোগীদের বেসরকারি ক্লিনিকে যেতে বাধ্য করায় তিন জনকে ২০ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

গত এক সপ্তাহ ধরে তাদেরকে নজরদারিতে রাখা হয়েছিল বলে জানান তিনি।

আটককৃতরা সবাই বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার এবং অ্যাম্বুলেন্স সিন্ডিকেটের চিহ্নিত দালাল বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

Comments