‘আপনি নৌকা নিয়া গাঙ্গ পার করতে পারেন না, আমি কলাগাছের ভেলা বানাইয়া পার হই’

নিক্সন বলেন, 'সামনের ১২ দিন কোনো গুজবে কান দেবেন না। আমাকে আপনাদের কাছ থেকে, এখান থেকে কোনো শক্তি নিতে পারবে না।'
নিক্সন
নির্বাচনী জনসভায় মজিবুর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন। ছবি: সংগৃহীত

ফরিদপুর-৪ (ভাঙ্গা, সদরপুর, চরভদ্রাসন) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও ওই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন বলেছেন, 'আমার ফুপু (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) আপনারে (ওই আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কাজী জাফর উল্যাহ) খালি ডোঙ্গাডাই দেয়, বৈঠা আমারে দেয়। আপনি ওই নৌকা নিয়া গাঙ্গ ঘুরে পার করতে পারেন না। আমি কলা গাছের ভেলা বানাইয়া ভেলা বাইয়া বাইয়া গাঙ্গ পার হই।'

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় এক নির্বাচনী জনসভায় তিনি এ কথা বলেন। আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ভাঙ্গার নাসিরাবাদ ইউনিয়নের আবদুল্লাবাদ স্কুল মাঠে এ নির্বাচনী জনসভার আয়োজন করা হয়।

নিক্সন বলেন, 'সামনের ১২ দিন কোনো গুজবে কান দেবেন না। আমাকে আপনাদের কাছ থেকে, এখান থেকে কোনো শক্তি নিতে পারবে না।'

তিনি আরও বলেন, 'প্রথমে কইছে আমারে যুবলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার বানাইয়া খাঁচায় আটকাইছে, নির্বাচন করতে দেবে না। এরপর বলেছে এমপি উনি হইয়া আইছে, এখন বলতেছে আমাকে এখান থেকে ঘোষণা দিয়া উঠাই নিয়া যাবে। দুইবার দেখছি কেমন ঘোষণা দেয়, দেখবানে কে ঘোষণা দেয়।'

'নির্বাচন করব নাকি গুজব ঠেকাব! উনি (কাজী জাফর উল্যাহ) নিজেই নির্বাচন ছাড়েb, আবার নিজেই ধরেন। উনার লোকরা বিজয় মিছিল দেয়। আপনাকে ছাড়তে বলেছে কে? মাঠে থাকেন। প্রমাণ হবে জনগণ ভোটের মালিক। আমি যে ভালবাসা ১০ বছরে কামাই করছি কাজীরা ১০০ বছরেও কামাই করতে পারবে না', যোগ করেন তিনি।

নিক্সন আরও বলেন, 'আমি দেড় মাস ধরে নির্বাচনী এলাকায় আছি। মাঝে একদিন ঢাকায় গিয়েছিলাম রাতে থাকতে পারিনি। নির্বাচনের টেনশনে চলে আসছি। তবে আমার চাচাজান (জাফর উল্যাহ) আজকে ৮ দিন ধরে ঢাকায় আছেন। আগামীকাল আসবেন বলে বিজয় মিছিল হয়েছে। ওদের কাছে গুজব ছাড়া কিছু নেই। আমি আমার মুরুব্বিরে জিজ্ঞেস করব, আপনাকে প্রেসিডিয়াম কে বানাইছে? এই ভাঙ্গার মানুষ বানাইছে। করোনার সময় মানুষের পাশে দাঁড়াননি, আজকে কোন মুখ নিয়ে আসছেন?'

তিনি বলেন, 'মঞ্চে দাঁড়াইয়া নিক্সনকে গালি দিলে বা দুইটা টোকাই দিয়ে গালি দেওয়ালে ভোট পাবেন না। নিক্সন চৌধুরীর সঙ্গে এই তিন থানার মানুষের প্রেম হয়ে গেছে। তারা আমাকে ভালোবাসে। আমার মেয়ে সেদিন একটা বক্তব্য দিয়েছে। বলেছে, আমার বাবার ১০ বছর আপনারা যেভাবে পেয়েছেন, আমি সেভাবে পাইনি।'

জাফর উল্যাহর কর্মীদের উদ্দেশে নিক্সন বলেন, 'এতটুকু মুখ, এত বড় কথা কয়। গালি দেও, একটা কথা মনে রাইখ ৭ তারিখের পর কিন্তু ৮ তারিখ আইব। হজম করতে পারবা? তোমার ওস্তাদরে কও ঢাকা থেকে এসে আমারে গাইলাইতে। নিক্সনকে গাইলাইলে ভোট পাবেন না।'

সভায় সভাপতিত্ব করেন নাসিরাবাদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলমগীর খান। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন নাসিরাবাদ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহজাহান খান, মতিউর রহমান ও রোকন ফকির।

Comments