খেলার মাঠে আশ্রয়ণের ঘর চায় না গ্রামবাসী, সংঘর্ষে আহত এসিল্যান্ড

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে খেলার মাঠে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণকে কেন্দ্র করে গ্রামবাসীর সঙ্গে স্থানীয় প্রশাসনের লোকজনের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। 
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি-এসিল্যান্ড) লিয়াকত সালমান। ছবি: সংগৃহীত

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে খেলার মাঠে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণকে কেন্দ্র করে গ্রামবাসীর সঙ্গে স্থানীয় প্রশাসনের লোকজনের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। 

এতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি-এসিল্যান্ড) লিয়াকত সালমান ও সুমাইয়া খাতুন নামে ৯ বছর বয়সী এক শিশু আহত হয়েছে।

শাহজাদপুরের হলদিঘর এলাকায় খেলার মাঠে আশ্রয়ণ প্রকল্পের স্থান নির্ধারণ করায় গ্রামবাসী শুরু থেকেই এর প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে। এর আগে গ্রামবাসীরা বিক্ষোভ, মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে।

আজ রোববার সকালে শাহজাদপুর উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা প্রকল্প এলাকা পরিদর্শনে গেলে গ্রামবাসীরা আগে থেকেই রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে রাখে।

এ সময় ব্যারিকেড ভেঙে যাওয়ার চেষ্টা করলে গ্রামবাসীর সঙ্গে স্থানীয় প্রশাসনের লোকজনের কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে ধাওয়া, পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু হয়।

সেসময় মাথায় ইটের আঘাতে আহত হয়েছেন শাহজাদপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) লিয়াকত সালমান ও স্কুল শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার (৯)। তাদের দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

প্রশাসনের দাবি, প্রকল্প এলাকা পরিদর্শনে গেলে কিছু 'উশৃঙ্খল গ্রামবাসী' সরকারি কর্মকর্তাদের ওপর হামলা করে। তবে গ্রামবাসীদের ওপর কোনো হামলার ঘটনা ঘটেনি।

শাহজাদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'সরকারি কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছালে গ্রামবাসীরা তাদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় এতে সহকারি কমিশনার আহত হন।' 

সেসময় পুলিশ কোনো হামলা চালায়নি বলে দাবি করেন তিনি।

তিনি বলেন, 'পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উদ্ধার করে নিয়ে আসে।'

এদিকে গ্রামবাসীদের অভিযোগ, প্রশাসনের কর্মকর্তারা ব্যারিকেড ভেঙে ঢোকার চেষ্টা করলে গ্রামবাসীরা এর প্রতিবাদ করে। তর্ক-বিতর্কের একপর্যায়ে প্রশাসনের লোকজনের মাধ্যমে সুমাইয়া নামে ৯ বছর বয়সী একটি শিশু আঘাত পায়। এরপরই গ্রামবাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে।

জানতে চাইলে সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহমেদ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'প্রশাসনের কর্মকর্তারা সরকারি কাজে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন। হলদিঘর এলাকায় আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করেই সরকারি জায়গায় কাজের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা প্রকল্প এলাকা পরিদর্শনে গেলে পূর্বপরিকল্পিতভাবে তাদের ওপর এই হামলা করা হয়েছে।'

এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

 

Comments

The Daily Star  | English

Tk 127 crore owed to customers: DNCRP forms body to facilitate refunds

The Directorate of National Consumers' Right Protection (DNCRP) has formed a committee to facilitate the return of Tk 127 crore owed to the customers that remains stuck in the payment gateways of certain e-commerce companies..AHM Shafiquzzaman, director general of the DNCRP, shared this in

12m ago