বাংলাদেশ

‘প্রেজেন্টেবল না হলে মুজিব বায়োপিকের ট্রেলার কানে দেখাত না’

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ নিয়ে কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: বাসস

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক 'মুজিব: একটি জাতির রূপকার' নিয়ে কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সাম্প্রতিক ভারত সফর নিয়ে আজ বুধবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে প্রধানমন্ত্রীর সফর সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ের সঙ্গে 'মুজিব' বায়োপিক নিয়েও প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'করোনার কারণে অনেক দিন এটার শুটিং বন্ধ ছিল, করতে পারিনি। আসলে এই সিনেমার মূল শুটিং ঢাকায় করার কথা ছিল, করোনার কারণে সেটা হয়নি। কিছু শুটিং ঢাকায় হয়েছে। এখন সেটার এডিটিং চলছে। ট্রেইলার দেখার পর কিছু প্রশ্ন এসেছে। এখানে একটা বিষয় বলতে পারি, ট্রেলারটা যদি গ্রহণযোগ্য না হতো, তাহলে ফ্রান্সের কান ফেস্টিভ্যাল এটা গ্রহণ করত না।'

'কাজেই এর কোয়ালিটি নিয়ে আমাদের এখানে অনেকে অনেক কথা বলতে পারে। কিন্তু এ কথা আপনাদের বিবেচনা করতে হবে, কান ফেস্টিভ্যাল কিন্তু যা-তা গ্রহণ করে না,' বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, 'আমি যেটা বুঝলাম, আসলে ৭ মার্চে জাতির পিতাকে ওভাবে দেখার পর সেটাকে অভিনয় করে দেখালে এটা নিতে অনেকের একটু কষ্ট হয়। যখন সিনেমা হবে তখন কাউকে না কাউকে তো অভিনয় করতেই হবে, আর সেভাবে করার চেষ্টা করতে হবে। আমি মনে করি যেটুকু করেছে চমৎকার করেছে। ট্রেলার কানে যাওয়ার আগে আমাকে দেখানো হয়েছে। দেখার পর যেখানে যেখানে সংশোধন করার বলে দিয়েছি, সেটাই নিয়েছে। সব থেকে বড় প্রশ্ন, কান ফেস্টিভ্যালে এটা প্রেজেন্টেবল না হলে দেখাত না।'

প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'আমাদের ভেতরে (বঙ্গবন্ধু) যিনি আছেন, তাকে তো ফিরিয়ে আনতে পারব না বা ওটা ওভাবে নিয়ে আসাও ঠিক না। তারপরও আমি বলব আমাদের যারা অভিনয় করেছে, অত্যন্ত আন্তরিকতার সঙ্গে অভিনয় করেছে। এডিটিং শেষ হলে আমরা একটা ভালো সময় চিন্তা করব।'

'মুজিব' বায়োপিকে বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ। এ ছাড়া শেখ হাসিনার চরিত্রে চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া ও বঙ্গবন্ধুর স্ত্রী শেখ ফজিলাতুন্নেছার বড়বেলার চরিত্রে অভিনয় করছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা।

 

Comments