বিশ্ব ক্ষুধা সূচকে ১২১ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৪তম

গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স (জিএইচআই) বা ক্ষুধা সূচক-২০২২ অনুযায়ী বিশ্বের ১২১টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৪তম। এ ছাড়া পাকিস্তান, ভারত ও আফগানিস্তানসহ ৩৫টি দেশে ক্ষুধার মাত্রা মারাত্মকভাবে দেখা গেছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে।
স্টার ফাইল ছবি

গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স (জিএইচআই) বা ক্ষুধা সূচক-২০২২ অনুযায়ী বিশ্বের ১২১টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৪তম। এ ছাড়া পাকিস্তান, ভারত ও আফগানিস্তানসহ ৩৫টি দেশে ক্ষুধার মাত্রা মারাত্মকভাবে দেখা গেছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে ওই প্রতিবেদনে।

আজ বৃহস্পতিবার একটি অনলাইন ইভেন্টের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী এই হাঙ্গার ইনডেক্স প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২২ সালের গ্লোবাল হাঙ্গার ইনডেক্স (জিএইচআই) অনুসারে, বিশ্বের ৪৪টি দেশ গুরুতর বা উদ্বেগজনক মাত্রায় ক্ষুধায় ভুগছে। বিশ্বে ক্ষুধার মাত্রা এখন বিপর্যয়কর অবস্থায় পৌঁছেছে।

আন্তর্জাতিক মানবিক সংস্থা কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড এবং এর অংশীদার ওয়েল্টহাঙ্গারহিলফ যৌথভাবে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। 

সূচকে দেখা গেছে, দক্ষিণ এশিয়ায় বিশ্বের সবচেয়ে বেশি সংখ্যক শীর্ণকায় (উচ্চতা অনুযায়ী কম ওজন) ও অপুষ্টির শিকার শিশু রয়েছে। এ ছাড়া সাহারার দক্ষিণে আফ্রিকা অঞ্চলে অপুষ্টি ও শিশু মৃত্যুর হার সবচেয়ে বেশি। 

কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড-এর চিফ এক্সিকিউটিভ ডমিনিক ম্যাকসোর্লি বলেন, 'বিশ্বে ক্ষুধা মোকাবিলায় অগ্রগতি অনেকাংশে থেমে গেছে।'

'বিভিন্ন ধরনের সংঘাত, জলবায়ু পরিবর্তন এবং কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ইতোমধ্যেই লাখ লাখ মানুষকে খাদ্যমূল্য বৃদ্ধির ফলে সংকটে পড়তে হয়েছে এবং এই সংকটকে আরও বাড়িয়ে তুলেছে।'

'এটা দুঃখজনক যে আজ ৮২৮ মিলিয়ন মানুষ অপুষ্টিতে ভুগছেন এবং তাদের মধ্যে অনেকেই শিশু। যাদের এই খাদ্য এবং সম্পদের অভাবে পৃথিবীতে কষ্ট পাওয়া উচিত নয়' বলেন ডমিনিক।

Comments

The Daily Star  | English

How helicopters took Dhaka’s denizens to the skies

AK Azad, chairman and chief executive officer of Ha-Meem Group and a member of parliament from Faridpur-3 constituency, used to visit his factories in his car once or twice a month around a year ago.

14h ago