বাংলাদেশ

এবার পটুয়াখালী ও বরগুনায় বাস ধর্মঘট

আগামীকাল শুক্রবার থেকে পটুয়াখালী ও বরগুনায় ২ দিনের জন্য সব ধরনের যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে পটুয়াখালী ও বরগুনা জেলা বাস মালিক সমিতি।
এবার পটুয়াখালী ও বরগুনায় বাস ধর্মঘট
আগামীকাল শুক্রবার থেকে পটুয়াখালী ও বরগুনায় ২ দিনের জন্য সব ধরনের যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে পটুয়াখালী ও বরগুনা জেলা বাস মালিক সমিতি। ছবি: সংগৃহীত

আগামীকাল শুক্রবার থেকে পটুয়াখালী ও বরগুনায় ২ দিনের জন্য সব ধরনের যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে পটুয়াখালী ও বরগুনা জেলা বাস মালিক সমিতি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে দ্য ডেইলি স্টারকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পটুয়াখালী জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন মৃধা ও বরগুনা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছগির মিয়া।

আগামী ৫ নভেম্বর বরিশালে বিএনপির গণসমাবেশ হবে। এর আগে বরিশালে বাস ধর্মঘটের ডাক দেয় বাস মালিক সমিতি। 

জানা যায়, মহাসড়কে থ্রি হুইলার ও অটোরিকশা চলাচল বন্ধের দাবিতে এই ধর্মঘটের ডাক দেয় দুই জেলার বাস মালিক সমিতি। তাদের দাবি, অটোরিকশা চলাচলের কারণে দুর্ঘটনা ঘটে। এতে যেমন সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি হয় তেমনি পরিবহন ব্যবসায়ীদের ক্ষতি হয়। তাই তারা এই ধর্মঘট ডেকেছেন।

পটুয়াখালী জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন মৃধা বলেন, 'উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও প্রশাসন মহাসড়কগুলোতে থ্রি-হুইলার চলাচল বন্ধ করছে না। এটি একটি বিপজ্জনক যানবাহন। মহাসড়কগুলোতে দুর্ঘটনার জন্য এ থ্রি-হুইলার অনেকাংশে দায়ী।'

বরগুনা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছগির মিয়া বলেন, 'সড়কে অবৈধ গাড়ির দৌরাত্ম্য ঠেকাতে আমাদের এই ধর্মঘট কর্মসূচি। এরপরেও যদি প্রশাসন অবৈধ গাড়ি বন্ধ না করে তাহলে আমরা অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মসূচি দেবো।'

এ বিষয়ে বরগুনার জেলা প্রশাসক হাবিবুর রহমান বলেন, 'জেলা আইনশৃঙ্খলা সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছিল মহাসড়কে থ্রি-হুইলার ও অটোরিকশা চলাচল বন্ধের জন্য। কিন্তু এত বড় মহাসড়কে থ্রি হুইলার ও অটোরিকশা বন্ধ করতে যে পরিমাণ পুলিশ ফোর্স দরকার সেই পরিমাণ পুলিশ সদস্য বরগুনা জেলা পুলিশের কাছে নেই। তাই বন্ধ করা যাচ্ছে না। তবে বিষয়টি নিয়ে আমরা কাজ করছি।'

Comments