বাংলাদেশ

কৃষি প্রণোদনা সামগ্রী বিতরণে অনিয়ম, কৃষি কর্মকর্তাকে খাগড়াছড়ি বদলি

কৃষি প্রণোদনা সামগ্রী বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ ওঠা বাগাতিপাড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. হাসান আলীকে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়িতে বদলি করা হয়েছে।
নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলায় গত ২৬ অক্টোবর ১০০ কৃষককে বিনামূল্যে কৃষি প্রণোদনা সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় তা স্থগিত করা হয়। স্টার ফাইল ফটো

কৃষি প্রণোদনা সামগ্রী বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ ওঠা বাগাতিপাড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. হাসান আলীকে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়িতে বদলি করা হয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের (খামার বাড়ি) মহাপরিচালক মো. বেনজির আলমের সই করা এক আদেশ অধিদপ্তরের সরকারি ওয়েব সাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

বদলিযোগে পদায়নকৃত কর্মকর্তাকে ১৪ নভেম্বরের মধ্যে তার দায়িত্বভার হস্তান্তর করতে বলা হয়েছে, অন্যথায় ১৫ নভেম্বর থেকে তাৎক্ষণিক অবমুক্ত বলে গণ্য হবেন বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।

গত ২৬ অক্টোবর গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজের প্রণোদনা সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠায় বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত করেন উপজেলা প্রশাসন এবং নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল।

পেঁয়াজ চাষের প্রণোদনা বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনের সময় কৃষকরা সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুলের কাছে অভিযোগ করেন যে, বরাদ্দকৃত উপকরণ ঠিকমতো না দিয়ে কৃষি কর্মকর্তারা দুর্নীতি করেছেন।

পরে বরাদ্দের তালিকা যাচাই করে জানা যায়, একজন কৃষক এক কেজি পেঁয়াজ বীজ, ২০ কেজি ডিএপি, ২০ কেজি এমওপি সার, ১০০ টাকার বালাইনাশক এবং জমি প্রস্তুতি, সেচ ও বাঁশের বেড়া তৈরিতে বিকাশের মাধ্যমে ২ হাজার ৮০০ টাকা পাবেন। সেই সঙ্গে ২ হাজার ১০০ টাকার পলিথিন ও ১৫০ টাকার নাইলনের সুতা দেওয়ার কথা আছে।

তবে কৃষক প্রতি বরাদ্দের ২ হাজার ১০০ টাকার পলিথিনের বদলে দিয়েছেন বড়জোর ৫০০ টাকার পলিথিন। ১৫০ টাকার নাইলনের সুতার বদলে দিয়েছেন ৬০ টাকার প্যারাসুট সুতা।

নাটোর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আব্দুল ওয়াদুদ বদলির আদেশের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মো. হাসান আলীকে জনস্বার্থে খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলায় বদলি করা হয়েছে।

সম্প্রতি সার নিয়ে অনিয়মের অভিযোগে হাসান আলীকে নওগাঁ জেলা থেকে শাস্তিমূলক পার্বত্য জেলায় বদলি হয়েছিল। পরে তা বাতিল করে তাকে নাটোরে বদলি করা হয়। নতুন কর্মস্থলে যোগদানের পরপরই তার বিরুদ্ধে প্রণোদনা সামগ্রী বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ ওঠে।

নওগাঁ থেকে বদলি হয়ে আসার ১৬ দিনের মাথায় হাসান আলীকে পুনরায় বদলির কারণ জানতে চাইলে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রশাসন ও অর্থ উইংয়ের উপপরিচালক আনোয়ার হোসেন খান দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'তার বিরুদ্ধে প্রণোদনা সামগ্রী বিতরণের অনিয়মের খবর দেখে তাকে বদলি করা হয়েছে।'

অভিযোগ নিয়ে জানতে কৃষি কর্মকর্তা মো. হাসান আলীর মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

 

Comments