বাংলাদেশ

‘পরিবহন সিন্ডিকেটকে সুবিধা দিতে ট্রেন কমিয়ে ভাড়া বৃদ্ধি’

'ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে আগে ১৬ জোড়া ট্রেন চলাচল করত। করোনার সময় এই সংখ্যা কমিয়ে ৮টিতে আনা হয়, যা আর বাড়েনি।’
ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানো ও ভাড়া কমানোর দাবিতে আজ বিকেলে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় রেলস্টেশনে মানববন্ধন করে যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরাম। ছবি: স্টার

'পরিবহন সিন্ডিকেটকে' সুবিধা দিতে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে ট্রেনের সংখ্যা কমিয়ে ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন নারায়ণগঞ্জের যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরামের নেতারা।

ভাড়া কমানো ও ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানোর দাবিতে আজ বুধবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় রেলস্টেশনে মানববন্ধন করেছে সংগঠনটি।

এ সময় বক্তারা বলেন, 'ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে আগে ১৬ জোড়া ট্রেন চলাচল করত। করোনার সময় এই সংখ্যা কমিয়ে ৮টিতে আনা হয়, যা আর বাড়েনি। এদিকে ৮ মাস বন্ধ রাখার পর গত আগস্টে ট্রেন চালু করে ভাড়া ৫ টাকা বাড়িয়ে ২০ টাকা করা হয়েছে।'

'পরিবহন ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটকে সুবিধা দিতে ট্রেনের সংখ্যা কমিয়ে ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে,' বলেন তারা।

সংগঠনটির আহ্বায়ক রফিউর রাব্বি বলেন, 'বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যাতায়াত ব্যবস্থা সহজ, আরামদায়ক ও জনবান্ধব করতে রেলকে আধুনিক ও যাত্রীবান্ধব করা হয়েছে। কিন্তু আমাদের মতো জনবহুল দেশে সেই রেলকে লোকসানের অজুহাত দেখিয়ে তিলে তিলে ধ্বংস করা হয়েছে।'

তিনি বলেন, 'তিন মাসের কথা বলে ৮ মাস বন্ধ রাখার পর বিনা নোটিশে কমিউটার ট্রেনের কথা বলে ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। শুধু নামের পার্থক্য থাকলেও আগের চেয়ে বাড়তি কোনো সুযোগ-সুবিধা যাত্রীরা পাচ্ছে না। দূরত্ব অনুযায়ী এই রুটে ভাড়া ১৫ টাকা থেকেও কম হওয়ার কথা।'

নিম্নবিত্ত, চাকরিজীবী, শ্রমজীবী ও শিক্ষার্থীরা ট্রেনের নিয়মিত যাত্রী উল্লেখ করে এই দুর্মূল্যের বাজারে রেলের ভাড়া ৫ টাকা বাড়ানো অনুচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ট্রেনের বাড়তি ভাড়া না কমালে বৃহত্তর আন্দোলনের ঘোষণা দেন তিনি।

নারায়ণগঞ্জের পরিবহন সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে ২০১১ সালে যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ ফোরাম প্রতিষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বাসদের নারায়ণগঞ্জ জেলা আহ্বায়ক নিখিল দাস বলেন, 'আগেও ট্রেনে ফ্যান চলতো না ঠিকমতো, টয়লেট ব্যবহার করা যেত না। এখনো তাই। সুযোগ-সুবিধার ক্ষেত্রে আগের ট্রেনের সঙ্গে এই ট্রেনের কোনো পার্থক্য না থাকলেও ভাড়া বাড়িয়ে ট্রেনের সংখ্যা কমানো হয়েছে শুধু পরিবহন সিন্ডিকেটকে সুবিধা দিতে।'

জেলা সিপিবির সভাপতি হাফিজুল ইসলাম বলেন, 'রেল সেবার এই বেহাল দশার সুবিধা পায় বাস ও অন্যান্য পরিবহন সিন্ডিকেটগুলো।'

ট্রেনের সংখ্যা আগের মতো বাড়িয়ে ১৬ জোড়া করে যাত্রীসেবার মান বৃদ্ধির দাবি জানানো হয় মানববন্ধনে। একইসঙ্গে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও নারায়ণগঞ্জ রেলস্টেশন সংলগ্ন রেলের জমিতে কল্যাণ ট্রাস্টের নামে 'অবৈধভাবে' মার্কেট নির্মাণ বন্ধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

Comments