বাংলাদেশ
ওপেন সোসাইটি ফাউন্ডেশনের জরিপ

গণতান্ত্রিক শাসনের পক্ষে দেশের ৯১ শতাংশ মানুষ

১০টি সূচকের ভিত্তিতে করা এই প্রশ্নের উত্তরে বাংলাদেশের ৯১ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন, গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার পক্ষে তাদের অবস্থান।
ওপেন সোসাইটি ফাউন্ডেশনের জরিপ

বাংলাদেশের ৯১ শতাংশ মানুষ গণতান্ত্রিকভাবে শাসিত একটি দেশে বাস করা তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বলে মত দিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ওপেন সোসাইটি ফাউন্ডেশনের এক জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে।

জরিপে যেসব দেশে কর্তৃত্ববাদী শাসন রয়েছে তারা কি গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার চেয়ে ভালো করছে—১০টি সূচকের ভিত্তিতে করা এই প্রশ্নের উত্তরে বাংলাদেশের ৯১ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন, গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার পক্ষে তাদের অবস্থান।

এ ছাড়া বাংলাদেশের ৫৯ শতাংশ মানুষ অন্যান্য সরকারকাঠামোর চেয়ে গণতন্ত্রকে বেশি পছন্দ করেন বলে জানিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ওপেন সোসাইটি ফাউন্ডেশন নামের একটি অলাভজনক সংস্থার জরিপে বাংলাদেশের মানুষের এই অবস্থান উঠে এসেছে।

সংস্থাটি গত ১১ সেপ্টেম্বর 'ওপেন সোসাইটি ব্যারোমিটার: ক্যান ডেমোক্রেসি ডেলিভার?' শীর্ষক জরিপটি প্রকাশ করে।

মার্কিন ধনকুবের জর্জ সরোস ওপেন সোসাইটি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা। ন্যায়বিচার, গণতান্ত্রিক শাসন ও মানবাধিকার নিয়ে কাজ করে ওপেন সোসাইটি ফাউন্ডেশন।

বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৩০টি দেশের ৩৬ হাজার ৩৪৪ জনের অংশগ্রহণে জরিপটি করা হয়েছে। প্রতিটি দেশে গড়ে ১ হাজার জন জরিপে অংশ নেন।

এ ছাড়া জরিপে অংশ নেওয়া ৮২ শতাংশ মানুষ মনে করেন, মানবাধিকার হলো মূল্যবোধের প্রতিফলন।

এ ছাড়া কোন ধরনের মানবাধিকার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, এই প্রশ্নের উত্তরে বাংলাদেশের ৩৬ শতাংশ মানুষ মনে করেন নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকার, ২৮ শতাংশ মনে করেন সামাজিক ও অর্থনৈতিক অধিকার, ১৭ শতাংশ পরিবেশগত অধিকার এবং ১৩ শতাংশ মানুষ মনে করেন ডিজিটাল অধিকার বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

জরিপ প্রতিবেদনে 'গণতন্ত্রের প্রতি জনগণের আস্থা' শীর্ষক একটি অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, 'বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে জনপ্রিয় শাসন ব্যবস্থা হলো গণতন্ত্র। বিশ্বের ৮৬ শতাংশ মানুষ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে বাস করতে চান এবং প্রায় দুই তৃতীয়াংশ (৬২ শতাংশ) মানুষ অন্য যে কোনো শাসন ব্যবস্থার চেয়ে এটিকে বেশি পছন্দ করেন।'

এ ছাড়া জরিপে দেখা গেছে, বাংলাদেশের ৬৩ শতাংশ মানুষ মনে করেন বিশ্ব অর্থনতিতে চীনের উত্থান বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

জরিপটি করা হয়েছে বাংলাদেশ, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, চীন, কলম্বিয়া, মিসর, ইথিওপিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, ঘানা, ভারত, ইতালি, জাপান, কেনিয়া, মালয়েশিয়া, মেক্সিকো, নাইজেরিয়া, পাকিস্তান, পোল্যান্ড, রাশিয়া, সৌদি আরব, সেনেগাল, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা, তিউনিসিয়া, তুরস্ক, ইউক্রেন, সংযুক্ত আরব আমিরাত, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের ওপর।

চলতি বছরের ১৮ মে থেকে ২১ জুলাই পর্যন্ত জরিপের জন্য তথ্য সংগ্রহ করা হয়। জরিপে গণতন্ত্র, নাগরিক অধিকার, রাজনৈতিক অধিকার, সমতা, ন্যায়বিচার, জনগণের চাওয়া, অর্থনীতি, ক্ষমতা ও রাজনীতি, জলবায়ু পরিবর্তন ইত্যাদি নানা বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। জরিপে অংশগ্রহণকারীরা সবাই প্রাপ্তবয়স্ক।

জরিপে গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার প্রশ্নে ভারতের ৯৩ শতাংশ, শ্রীলঙ্কার ৮৫ শতাংশ, পাকিস্তানের ৭৯ শতাংশ, চীনের ৯৫ শতাংশ, যুক্তরাজ্যের ৮২ শতাংশ, যুক্তরাষ্ট্রের ৮০ শতাংশ, জাপানের ৮১ শতাংশ, সৌদি আরবের ৭৪ শতাংশ এবং রাশিয়ার ৬৫ শতাংশ মানুষ গণতান্ত্রিকভাবে শাসিত দেশে বাস করা তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন।

প্রতিবেদনে অনুসারে, বিশ্বের মাত্র ২০ শতাংশ মানুষ বিশ্বাস করেন, কর্তৃত্ববাদী দেশগুলো 'নাগরিকের চাহিদা' পূরণে বেশি সক্ষম। এ ছাড়া উত্তরদাতাদের মাত্র ১৬ শতাংশ মনে করেন জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় কর্তৃত্ববাদী রাষ্ট্রগুলো গণতন্ত্রের চেয়ে ভালো।

 

Comments