বাংলাদেশ

খালেদা জিয়াকে কেবিন থেকে সিসিইউতে স্থানান্তর

মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে তাকে সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয়েছে।
খালেদা জিয়ার ফাইল ছবি। সংগৃহীত

ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে কেবিন থেকে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) স্থানান্তর করা হয়েছে।

আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় খালেদা জিয়াকে সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয় বলে জানিয়েছেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন।

তিনি জানান, মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে খালেদা জিয়াকে সিসিইউতে স্থানান্তর করা হয়েছে।

এর আগে, গত ১৭ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়াকে সিসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসা শেষে পরদিন সকালে আবার তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়।

১৮ সেপ্টেম্বর সকালে টেলিফোনে বিএনপি মহাসচিব দ্য ডেইলি স্টারকে বলেছিলেন, 'এখন খালেদা জিয়াকে বাঁচাতে হলে উন্নত চিকিৎসা দরকার। ডাক্তাররা বলেছেন যা দেশে সম্ভব না। আমরা অনেকদিন ধরেই তাকে বিদেশে নেওয়ার কথা বলছি। কিন্তু সরকার কর্ণপাত করছে না। এখন একেবারে শেষ সময় চলে এসেছে। অবিলম্বে বিদেশে নেওয়া দরকার, না হলে তাকে বাঁচানো যাবে না।'

লিভার সিরোসিস, আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, কিডনি, ফুসফুস, হার্ট ও চোখের সমস্যাসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

২০২০ সালে শর্তসাপেক্ষে মুক্তির পর থেকে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বাধীন মেডিকেল বোর্ডের অধীনে চিকিৎসা নিচ্ছেন খালেদা জিয়া।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দিয়ে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। পরে একই বছর দুর্নীতির আরেকটি মামলায় তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের মধ্যে সরকার ২০২০ সালের ২৫ মার্চ এক নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে গুলশানের বাসায় অবস্থান এবং দেশ ত্যাগ না করার শর্তে সাময়িকভাবে মুক্তি দেয়।

সর্বশেষ গত ১৮ সেপ্টেম্বর তার সাজা স্থগিতের মেয়াদ আরও ছয় মাস বাড়ায় সরকার।

Comments