বাংলাদেশ

নেত্রকোণায় ‘ভাষা’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা ও প্রদর্শনী

‘প্রদর্শিত ছবিগুলো দেখে বিমোহিত হয়েছি।’
আয়োজনে অতিথিরা। ছবি: সংগৃহীত

নেত্রকোণায় 'ভাষা' শিরোনামের তিন দিনব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনী ও প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল শনিবার রাতে এই আয়োজন শেষ হয়েছে। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও মহান শহীদ দিবস উপলক্ষে 'নেত্রকোণা ফটোগ্রাফি সোসাইটি' শহরের ছোট বাজার এলাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার সড়কে পৌর আর্ট গ্যালারিতে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে।

প্রধান অতিথি হয়ে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আশরাফ আলী খান খসরু। এতে বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট আলোকচিত্রশিল্পী বারীণ ঘোষ। প্রদর্শনীর কিউরেটর রাকিব আহমেদের সঞ্চালনায় সেই সময় অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও বিচারক ছাড়াও বক্তব্য দেন, নেত্রকোণা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক কবি সরোজ মোস্তফা, বিশিষ্ট আলোকচিত্রী বারীণ ঘোষ, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি, আবৃত্তিশিল্পী অর্পিতা খানম, নেত্রকোণা সাহিত্য সমাজের সাধারণ সম্পাদক কবি সাইফুল্লাহ্ এমরান, সুফি কবি এনামুল হক প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আশরাফ আলী খান বলেন, প্রদর্শনীর বেশিরভাগ ছবিই প্রাকৃতিক দৃশ্য, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, জীবন ও জীবিকাকে অবলম্বন করে তোলা। জীবনের গল্পময় এমন আলোকচিত্র নিয়ে সাজানো প্রদর্শনীর ছবিগুলোর নেপথ্যে উঠে এসেছে আনন্দ-বেদনা কিংবা উচ্ছ্বাসের অভিযাত্রা। আছে যাপিত জীবনের বহুমাত্রিক চালচিত্র। এ ধরনের ইভেন্ট একটি শক্তিশালী প্রেরণা হিসেবে কাজ করে, বিশেষ করে আমাদের তরুণদের জন্য। এই উদ্যোগ নিঃসন্দেহে আমাদের সমাজ ও জাতির জন্য মূল্যবান অবদান রাখবে।

আলোকচিত্র শিল্পী বারীণ ঘোষ বলেন, নেত্রকোণায় এই প্রদর্শনী একটি অনন্য উদ্যোগ। প্রদর্শিত ছবিগুলো দেখে আমি বিমোহিত হয়েছি। আলোকচিত্রীদের অধিকাংশ ছবিতেই ফুটে উঠেছে জীবনবোধ ও জীবনের গল্প। এই প্রদর্শনী দেখে তরুণ প্রজন্ম উদ্বুদ্ধ হবে।

কবি সাইফুল্লাহ এমরান বলেন, 'ফটোগ্রাফির লেন্সের মাধ্যমে দৈনন্দিন জীবনের ক্রিয়াকলাপ এবং কাজের সৌন্দর্যের সারাংশ ক্যাপচার করবে। ফটোগ্রাফি একটি মাধ্যম হিসেবে সময়ের মধ্যে মুহূর্তগুলোকে আবদ্ধ করার ক্ষমতা রাখে, আগামী প্রজন্মের জন্য স্মৃতি সংরক্ষণ করে৷'

প্রদর্শনীর কিউরেটর রাকিব আহমেদ জানান, তিন দিনব্যাপী প্রদর্শনীতে মোট ৩৪ জন আলোকচিত্রীর তোলা দেড় শতাধিক ছবি প্রদর্শন করা হয়। প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক দর্শনার্থী এ প্রদর্শনী দেখেন। সমাপনী দিনে সেরা আলোকচিত্রীদের পুরস্কৃত করা হয়।

Comments

The Daily Star  | English

The taste of Royal Tehari House: A Nilkhet heritage

Nestled among the busy bookshops of Nilkhet, Royal Tehari House is a shop that offers students a delectable treat without burning a hole in their pockets.

2h ago