বাংলাদেশ

অষ্টমী স্নানোৎসবে পুণ্যার্থীদের ঢল

লাঙ্গলবন্দ স্নান উৎসব উদযাপন কমিটির সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকেল ৪টা ২০মিনিটে স্মানোৎসবের লগ্ন শুরু হয়। চলে মঙ্গলবার ৪টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত। স্নানের লগ্ন শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্নানোৎসবে মেতে ওঠে দেশ-বিদেশ থেকে আসা পুণ্যার্থীরা।
কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে পূণ্যস্নান উৎসবে বিপুল সংখ্যক পূণ্যার্থীর ঢল। ছবি: স্টার

দুদিনব্যাপী হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মহাঅষ্টমী পূণ্য স্নানোৎসব শেষ হয়েছে। নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার লাঙ্গলবন্দে ব্রহ্মপুত্র নদ, বরিশালের ঐতিহ্যবাহী দুর্গাসাগর ও কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলায় ব্রহ্মপুত্র নদেরপাড়ে পূন্যস্নান উৎসবে লাখো পুণ্যার্থী অংশ নিয়েছে। প্রতিবছর চৈত্র মাসের অষ্টমী তিথিতে এই স্থান হয়ে থাকে।

লাঙ্গলবন্দ স্নান উৎসব উদযাপন কমিটির সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকেল ৪টা ২০মিনিটে স্মানোৎসবের লগ্ন শুরু হয়। চলে মঙ্গলবার ৪টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত। স্নানের লগ্ন শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্নানোৎসবে মেতে ওঠে দেশ-বিদেশ থেকে আসা পুণ্যার্থীরা।

আয়োজকরা জানান, মন্ত্র পাঠ করে ফুল, বেলপাতা, ধান, দুর্বা, হরিতকী, ডাব, আম্রপল্লব নিয়ে পুণ্যার্থীরা স্নানে অংশ নেন। লগ্ন শুরুর পরপরই পুণ্যার্থীর ঢল নামে লাঙ্গলবন্দের তিন কিলোমিটার এলাকাজুড়ে। মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত চলবে স্নানোৎসব।

লাঙ্গলবন্দ স্নানোৎসব উদযাপন কমিটির সভাপতি সরোজ সাহা জানান, স্নানোৎসবে দেশের বিভিন্ন প্রাপ্ত ছাড়াও ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, ভুটানসহ বিভিন্ন দেশ থেকে পুণ্যার্থীরা আসছেন। এবার ১০ থেকে ১২ লাখ পুণ্যার্থী স্নানোৎসবে অংশ নেন। নারীদের কাপড় বদলানোর জায়গা ও বিশুদ্ধ খাওয়ার পানিসহ বিভিন্ন ধরণের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। ব্রহ্মপুত্র নদের ১৯টি ঘাটের মাধ্যমে পুণ্যার্থীরা স্নান সম্পন্ন করেছেন বলে জানান তিনি।

স্নান উপলক্ষে তিনস্তরের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। তিন কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বসানো ছিল সিসি ক্যামেরা। স্মানোৎসবকে ঘিরে নিরাপত্তায় পোশাকে ও সাদা পোশাকে পুলিশসহ দেড় হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন ছিল বলে জানান নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ('খ' সার্কেল) শেখ বিল্লাল হোসেন।

তিনি বলেন, 'সাদা পোশাকে গোয়েন্দা নজরদারির পাশাপাশি দেড় হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে। তিন কিলোমিটার এলাকা জুড়ে ৫০টির অধিক সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। সাতটি ওয়াচ টাওয়ার বসানো হয়েছে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে জেলার ট্রাফিক পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। ব্রহ্মপুত্র নদে নৌ-পুলিশ কাজ করেছে।'

এদিকে বরিশালের ঐতিহ্যবাহী দুর্গাসাগরে গতকাল বিকেল ৫টা ১৬ মিনিট থেকে আজ বিকেল ৪টা পর্যন্ত স্নানোৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। অষ্টমী স্নান উদযাপন কমিটির সভাপতি দিলীপ রায় জানান, এ উপলক্ষে স্থানীয় মাধবপাশা চন্দ্রীপ স্কুল অ্যান্ড কলেজে একটি গ্রামীণ মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মেলায় বরিশাল জেলার মৃৎশিল্প, কাঠের কাজ, বিন্নি খাবারসহ হস্তশিল্পের নানা লোকজ উপকরণ দেখা যায়।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার জাকির হোসেন মজুমদার জানান, মেলায় নিরাপত্তার জন্য জেলা পুলিশ, মেট্রোপলিটন পুলিশ, ও নৌ পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশের শতাধিক টিম ছিল।

এছাড়া কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে পূণ্যস্নান উৎসবেও বিপুল সংখ্যক পূণ্যার্থীর ঢল ছিল। রংপুর বিভাগের আট জেলা থেকে হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা এ পূণ্যস্নান উৎসবে অংশ নেন। এছাড়া প্রতিবেশি দেশ ভারতের কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার ও আসাম থেকে অনেক পূণ্যার্থী আসেন। মঙ্গলবার সূর্যোদয়ের পর থেকে পূণ্যস্নান উৎসব শুরু হয়ে সকাল ১০টা পর্যন্ত চলে।

ব্রহ্মপুত্রপাড়ে পূণ্যস্নান উৎসবে আসা হিন্দু পুরোহিত কানাই চন্দ্র চত্রবর্তী দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'ব্রহ্মপুত্রপাড়ে পূণ্যস্নান উৎসবে অংশ নিতে সব হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা ইচ্ছুক থাকেন। পূণ্যস্নান উৎসবে প্রতিবছরই ভক্তদের ঢল নামে। সব বয়সী ভক্তরা ব্রহ্মপুত্র নদের জলে স্নান করে ভগবানের কাছে আর্শীবাদ প্রার্থনা করেন। পূণ্যস্নান করার পর পরলোকগত পিতা-মাতা এবং আপনজনের আত্মার শান্তি প্রার্থনা করে ভক্তরা পিন্ডদান করেন।'

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার দিনহাটা এলাকা থেকে আসা ভক্ত প্রভাকর চন্দ্র দাস (৭০) দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আমি প্রায় ৪০ বছর আগে ভারতে চলে যাই। ভারতে বসবাস করলেও প্রতিবছর ব্রহ্মপুত্র নদেরপাড়ে পূণ্যস্নান উৎসবে আসি।'

ব্রহ্মপুত্রপাড়ে পূণ্যস্নান আয়োজক কমিটির সহ-সভাপতি প্রভাত চন্দ্র দাস দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'গেল ৩০০ বছর ধরে ব্রহ্মপুত্রপাড়ে পূণ্যস্নান উৎসব হয়ে আসছে। প্রতি বছর বাংলা চৈত্র মাসের শেষ অথবা বৈশাখ মাসের প্রথমদিকে এ উৎসব হয়। রংপুর বিভাগের আট জেলা ও ভারতের কোচবিহার, জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার ও আসাম থেকে বিপুল সংখ্যক ভক্ত এ উৎসবে অংশ নেন। পূণ্যস্নান উৎসব উপলক্ষে এখানে মেলা বসে।'

প্রতি বছর ব্রহ্মপুত্রপাড়ে পূণ্যস্নান উৎসবে এক লাখেরও বেশি ভক্তের সমাগম ঘটে বলে জানান তিনি।

৩ জনের মৃত্যু

মঙ্গলবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের লাঙ্গলবন্দের ব্রহ্মপুত্র নদে মায়ের সঙ্গে স্নান করতে নেমে পানিতে ডুবে নয় বছর বয়সী এক শিশু নিখোঁজ হয়। ওই শিশুর নাম রাজদ্বীপ। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাকে উদ্ধার করে বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত রাজদ্বীপ চট্টগ্রামের পটিয়ার এলাকার উজ্জ্বল দাসের ছেলে।

কলাগাছিয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক হাবিবুল্লাহ জানান, শিশু রাজদ্বীপ মঙ্গলবার দুপুরে মা প্রিয়াঙ্কা দাস, খালা ও নানির সাথে রাজঘাট এলাকায় পুণ্যস্নান করতে নামে। এ সময় রাজদ্বীপ মায়ের হাতছাড়া হয়ে গেলে পানির নিচে তলিয়ে যায়।

এদিকে, বরিশালে ঐতিহ্যবাহী দুর্গাসাগরে স্নান করতে নেমে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম রঞ্জিত মণ্ডল (১৮)। দুপুর ১১টায় এ ঘটনা ঘটে। এয়ারপোর্ট থানার ওসি মো. মানজুরুল হাসান চৌধুরী জানান, বরিশাল নগরীরর অক্সফোর্ড রোড নিবাসী সাগর মণ্ডলের ছেলে রঞ্জিত মণ্ডল স্নান করতে দুর্গা সাগরে নেমে ডুবে যায়। পরে তাকে শের-ই বাংলা মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হলে উপস্থিত ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করে।

চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদেরপাড়ে পূন্যস্নান উৎসবে ধর্মীয় আলোচনা করার সময় একজন পুরোহিত মারা গেছেন। মঙ্গলবার ভোরে ব্রহ্মপুত্রপাড়ে উপস্থিত ভক্তদের সাথে ধর্ম আলোচনা করছিলেন ওই পুরোহিত। নিহত পুরোহিত রশিক চন্দ্র দেবনাথ ঠাকুর (৬৭) লালমনিরহাট সদর উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়নের যোগিটারী গ্রামের বাসিন্দা। নিহত পুরোহিতের মরদেহ মঙ্গলবার সকালে বাড়িতে আনা হয়েছে। হৃদযন্ত্র ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার ছোট ভাই মানিক চন্দ্র দেবনাথ।

মানিক চন্দ্র দেবনাথ দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, 'আমার দাদা পুরোহিতের কাজ করতেন। তিনি প্রতিবছরই চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্রপাড়ে অনুষ্ঠিত পূণ্যস্নান উৎসবে অংশ নেন। সেখানে তিনি পুরোহিতের কাজ করতেন। এবছরও তিনি পূণ্যস্নান উ'ৎসবে অংশ করেন। রাতভর সেখানে ভক্তদের মাঝে ধর্ম আলোচনা করেন। হঠাৎ তিনি অসুস্থ হয়ে মাটিতে পড়ে যান এবং তাৎক্ষণিক তার মৃত্যু হয়।'

Comments

The Daily Star  | English

Personal data up for sale online!

A section of government officials are selling citizens’ NID card and phone call details through hundreds of Facebook, Telegram, and WhatsApp groups, the National Telecommunication Monitoring Center has found.

7m ago