বাংলাদেশ

‘ডা. জাফরুল্লাহ শুধু মানুষের নয়, সমাজের চিকিৎসায়ও নিয়োজিত ছিলেন’

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক স্মরণসভায় বক্তব্য দেন ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী।
ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় বক্তব্য দেন ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী। ছবি: সংগৃহীত

গণ বিশ্ববিদ্যালয় ট্রাস্টি বোর্ডের সভাপতি ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী চিকিৎসক হিসেবে মানুষের চিকিৎসায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে পারতেন। কিন্তু তিনি শুধু মানুষের চিকিৎসায় নয়, সমাজের চিকিৎসায় নিজেকে নিয়োজিত করেছিলেন। 

আজ মঙ্গলবার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রাণপুরুষ ও গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বপ্নদ্রষ্টা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক স্মরণসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

'ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী একজন সমাজ বিপ্লবী ছিলেন' মন্তব্য করে ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, 'তিনি ব্যতিক্রমধর্মী ক্ষণজন্মা মানুষ ছিলেন। আমাদের সময় তো নয়ই, আগের সময়েও তার মতো সমাজ বিপ্লবী মানুষ আমরা পাইনি। তিনি স্বপ্ন দেখতেন, তবে তা ব্যক্তিগত পরিচিতি বা ব্যক্তিগত মুনাফার জন্য নয়।'

'জীবনে তিনি যতগুলো প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন, তার সবগুলোই সামাজিক মালিকানায় পরিচালিত। ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর কাছে স্বাধীনতা মানে ছিল সামাজিক পরিবর্তন, সব নাগরিকের সমাজ ও রাষ্ট্রে সমান অধিকার, সমান সুযোগ লাভ,' বলেন তিনি।

স্মরণসভায় আরও বক্তব্য দেন গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি সদস্য সাবেক বিচারপতি মোহাম্মদ আব্দুর রউফ, অধ্যাপক দিলারা চৌধুরী, ফরিদা আখতার এবং অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল।

বক্তারা বলেন, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিকল্প চিন্তার মানুষ ছিলেন। অনেক নতুন কিছু তিনি করে দেখিয়েছেন, অনেক প্রথমের তিনি জন্ম দিয়েছেন। সমাজের ভালোর জন্য, সমাজের মানুষের ভালোর জন্য বিশেষ করে নারী মুক্তির জন্য তিনি অনেক দৃষ্টান্ত তৈরি করে গেছেন। 

গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সহধর্মিণী ও গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি শিরীন হকসহ অন্যান্য ট্রাস্টিরা উপস্থিত ছিলেন।

Comments