অপরাধী হলে শাস্তি পেতেই হবে: সাবেক সেনাপ্রধান-আইজিপি বিষয়ে কাদের

‘তদন্ত হচ্ছে মানে মামলা হলে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে।’
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের | ছবি: টেলিভিশন থেকে নেওয়া

অপরাধী হলে অপরাধের জন্য শাস্তি পেতেই হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানী ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

কোনো অপরাধী শাস্তি ছাড়া পার পাবে না জানিয়ে তিনি বলেন, 'সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদের অবৈধ সম্পদের বিষয়ে এখন তদন্ত হচ্ছে এবং আরও তদন্ত হবে এ কথা দুদক সূত্রে জানা গেছে। তদন্ত হচ্ছে মানে মামলা হলে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে।

'যিনি সেনাবাহিনীর প্রধান, তিনিও যদি অপরাধী হোন, তার বিরুদ্ধেও তদন্ত করতে দুদকের কোনো বাধা নেই। দুর্নীতি দমন কমিশন তদন্ত করতে পারবে। অপরাধী হলে অপরাধের জন্য শাস্তি পেতেই হবে। সে যে-ই হোক,' বলেন কাদের।

মির্জা ফখরুল ও বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, 'কথায় কথায় সাবেক আইজিপির দুর্নীতির কথা বলে। তাদের আমলে আশরাফুল হুদা আইজিপি, কে করেছে তার বিচার? বিএনপি আমলে কি তার বিচার হয়েছে? লতিফুল হুদা চট্টগ্রামে শেখ হাসিনার প্রাণনাশের চেষ্টায় জড়িত, এই লতিফুল হুদার বিচার কি হয়েছে? এসপি কহিনুরকে তখন বলা হতো ভিআইপি এসপি। এই কহিনুরের হাতে কত রাজনৈতিক কর্মী  নির্যাতিত হয়েছে। অন্তঃসত্ত্বা নারী পর্যন্ত রাজপথে মিছিল করতে গিয়ে কহিনুরের নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এই কহিনুরের দুর্নীতির বিষয় ঢাকা শহরের লোকের মুখে মুখে, কে করেছে বিচার?'

তিনি বলেন, 'তাদের আমলে তাদের যেসব নেতারা দুর্নীতি করেছে, হাওয়া ভবনের দুর্নীতি, এগুলোর বিচার কি তারা কোনো দিন করবে? তাদের এসব অপরাধের বিচার কি তারা করেছে?

'প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ দেশে পঁচাত্তর পরবর্তীকালে একমাত্র ক্ষমতাসীন রাজনীতিক, যিনি অপরাধীকে অপরাধী হিসেবে দেখেন। দলের লোক হোক—ক্ষমা নেই, যদি অপরাধ-অপকর্ম করে থাকে। সেটা তিনি এ পর্যন্ত প্রমাণ করেছেন,' যোগ করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

তিনি আরও বলেন, 'বেনজীরের বাড়ি তো টুঙ্গীপাড়া, সেই সূত্রেও তো অনেকে ভাবতে পারে যে ক্ষমা পাবে; অপরাধীর ক্ষমা নেই, এটা শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন। বুয়েটের আবরার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যারা জড়িত, তারা তো ছাত্রলীগের কর্মী। রেহাই পেয়েছে? কাউকে কি ছাড় দেওয়া হয়েছে? বিশ্বজিতের কথা সবার মনে আছে।'

বিএনপি নিজেদের অপরাধ ঢাকতে অপপ্রচার করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

অপরাধীর বিচার হতে হবে উল্লেখ করে তিনি জানান, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এনে শাস্তি কার্যকর করা হবে।

Comments

The Daily Star  | English

Last-minute cattle purchase: Markets abuzz with buyers in Ctg, thin turnout in Dinajpur

The cattle markets in Chattogram city are abuzz with buyers on the last day before Eid-ul-Azha. The markets in Dinajpur, however, are experiencing the opposite scenario with not many buyers even at the last moment

1h ago