রাজনীতি

জঙ্গিবাদ-সাম্প্রদায়িক শক্তি ছাড়া বিএনপির সভা-সমাবেশও অচল: কাদের

জঙ্গিবাদ-সাম্প্রদায়িক শক্তি ছাড়া বিএনপির সভা-সমাবেশও অচল বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ছবি: সংগৃহীত

জঙ্গিবাদ-সাম্প্রদায়িক শক্তি ছাড়া বিএনপির সভা-সমাবেশও অচল বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিল উপলক্ষে আজ রোববার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ আবারও ভোঁতা অস্ত্র ব্যবহার করছে; তারা আবারও জঙ্গিবাদ ও অগ্নিসন্ত্রাসের কথা বলছে—বিএনপির এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কাদের বলেন, এটা একেবারে ভোঁতা হয়ে গেছে এমন নয়। এখনো জঙ্গিবাদ, সাম্প্রদায়িক শক্তি ছাড়া বিএনপির সভা-সমাবেশও অচল। এখনো তারা সক্রিয় এবং এই জঙ্গিবাদ বিএনপির হাতে সৃষ্টি। সাম্প্রদায়িক শক্তির তারা প্রধান পৃষ্ঠপোষক। সেটা আগেও ছিল, এখনো আছে। ভোঁতা কার্যক্রমে দেখা যাবে।

তিনি বলেন, আগুন সন্ত্রাস করতে আসুক, মাঠে আসুক, জনগণ প্রস্তুত, জনগণকে সঙ্গে নিয়েই প্রতিরোধ করা হবে। আগুন সন্ত্রাস করতে দেওয়া হবে না বাংলাদেশের মাটিতে। আন্দোলন করুক আমাদের আপত্তি নেই। আমাদের কজন নেতা বিএনপির আমলে ঘরে থাকতে পেরেছে? বিএনপির সব নেতা ঘরে থাকে। এয়ার কন্ডিশনার রুমে থাকেন, বক্তৃতা করেন। আমাদের ঘরে থাকতে দেয়নি। আমাদের দলীয় কার্যালয়ের বারান্দায় একুশে ফেব্রুয়ারির আলোচনা সভা করতে দেয়নি। ৩ দিনব্যাপী আলোচনা সভা বিএনপি বাধা দিয়ে পণ্ড করে দিয়েছে। এখন তারা তাদের অফিসের সামনে বড় বড় সমাবেশ করে। প্রায় প্রতিদিনই করে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গত ১৪ বছর ধরে বিএনপির আন্দোলন দেখলাম। বিভিন্ন নির্বাচনেও তাদের ভূমিকা দেখলাম। দেশবাসী কী দেখলো, তাদের নিজেদের দলের চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দয়ায়-মহানুভবতায় মুক্তি পেয়ে বাসায় আছেন। বিএনপির কোনো অবদান এখানে আছে? বিএনপি দর্শনীয়, কার্যকর একটি বিক্ষোভ সমাবেশও কি বেগম জিয়ার জন্য করতে পেরেছে?

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তাদের আন্দোলন করতে দাও। কোনো প্রকার বাধা-বিঘ্ন আওয়ামী লীগ সৃষ্টি করেনি। পরিবহন ধর্মঘট; পরিবহনের লোকেরা তাদের ভয় পায়, আমরা কী করবো! পরিবহনে আওয়ামী লীগও আছে, বিএনপিও আছে, জাতীয় পার্টিও আছে—সবাই আছে। মালিক সমিতির প্রেসিডেন্ট জাতীয় পার্টির, সেক্রেটারি আওয়ামী লীগের। শ্রমিক ফেডারেশনে প্রেসিডেন্ট আওয়ামী লীগের, সেক্রেটারি বাসদ। ভাইস প্রেসিডেন্ট শিমুল বিশ্বাস, তিনি কোন দলের? তাকে প্রশ্ন করুন, পরিবহন ধর্মঘট কেন? কত ড্রাইভার-কন্ডাকটার পুড়িয়ে মেরেছে! শত শত গাড়ি ভাঙচুর করেছে। বিএনপিকে দেখলে, তারা হৈহৈ রৈরৈ শুরু করলে এরা তো ভয় পায়। আবার যদি পুরনো সন্ত্রাস ফিরে আসে! সে জন্য তারা হয়তো বন্ধ করেছে, যেটা তারা বলছে—বলেন কাদের।

Comments

The Daily Star  | English

DNCC completes waste removal on 2nd day

Dhaka North City Corporation has removed 100 percent of the waste generated during Eid-ul-Azha

1h ago