এই অবৈধ সরকার গণতন্ত্র ও ভোটিং সিস্টেম ধ্বংস করেছে: খন্দকার মোশাররফ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, এই অবৈধ সরকার গণতন্ত্রকে ধংস করে দিয়েছে। দেশের গণতন্ত্র ও ভোটিং সিস্টেমকে ধংস করে দিয়েছে। ২০১৪ সালে দেশের ১৫৩টি আসনে প্রার্থীই ছিল না। ২০১৮ সালে রাতে ভোট দিয়েছে। যা ইতোমধ্যে জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেছেন।
বিএনপি, খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আওয়ামী লীগ,
কুমিল্লা টাউন হল ময়দানে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ। ছবি: খালিদ নজরুল

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, এই অবৈধ সরকার গণতন্ত্রকে ধংস করে দিয়েছে। দেশের গণতন্ত্র ও ভোটিং সিস্টেমকে ধংস করে দিয়েছে। ২০১৪ সালে দেশের ১৫৩টি আসনে প্রার্থীই ছিল না। ২০১৮ সালে রাতে ভোট দিয়েছে। যা ইতোমধ্যে জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেছেন।

আজ শনিবার তেল গ্যাস বিদ্যুৎ ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে কুমিল্লা টাউন হল ময়দানে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, 'আওয়ামী লীগের লোকজন দুর্নীতি, ব্যাংক লুটপাট , বিদেশে টাকা পাচার করে দেশের অর্থনীতি ধ্বংস করে দিয়েছে। যা আর কখনোই মেরামত করতে পারবে না। দেশের ব্যবসায়ীরা ডলার সংকটে প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি আমদানি করতে পারছে না। বিএনপির গণতান্ত্রিক আন্দোলনের প্রচেষ্টাই হচ্ছে এ সরকারকে বিদায় করা।'

খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই উল্লেখ করে তিনি বলেন, 'এ সরকার অন্যায়ভাবে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়েছে। এ সরকার যাবে না, এ সরকারকে বিদায় করে আমাদের নেত্রীর মুক্তি আনতে হবে। এ সরকার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে বানোয়াট মামলা দিয়ে বিদেশে থাকতে বাধ্য করছে। এ সরকার থাকলে তারেক রহমান দেশে ফিরতে পারবে না। দেশে ফেরাতে চাইলে এ সরকারকে বিদায় করতে হবে। নিয়মতান্ত্রিকভাবে, গণতান্ত্রিকভাবে আন্দোলন করছি। এ আন্দোলনকে সফল করে গণঅভ্যুত্থান ঘটিয়ে সরকারকে বিদায় করতে হবে।'

'এ সরকারকে বিদায় করতে পদযাত্রা থেকেই সরকার পতনের আওয়াজ তোলা হবে। আগামী ১১ ফেব্রুয়ারি সারা দেশে ইউনিয়ন পর্যায়ে 'পদযাত্রা' কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি,' বলেন তিনি।

  

Comments