‘দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে ঈদ মানুষের জন্য আনন্দের বার্তা নিয়ে আসেনি’

‘শুধু অর্থনীতির ক্ষেত্রে না, রাজনৈতিক ক্ষেত্রেও স্বচ্ছতা নেই, জবাবদিহিতা নেই।’
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। স্টার ফাইল ছবি

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে ঈদুল আজহা সাধারণ মানুষের জন্য আনন্দের বার্তা নিয়ে আসেনি বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ বৃহস্পতিবার ঠাকুরগাঁও সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের বড় মাঠে সকালে ঈদের নামাজ আদায় শেষে শহরের কালীবাড়ি এলাকার নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, 'গত কয়েক মাস ধরে সরকারের অব্যবস্থাপনার কারণে, পরিকল্পনার অভাবে এবং একইসঙ্গে তাদের দুর্নীতির কারণে, সিন্ডিকেটকে নিয়ন্ত্রণ করতে না পারার কারণে, আজকে এই ঈদুল আজহায় মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে গেছে। যেসব জিনিসগুলোর দাম অল্প ছিল, সেগুলোর দামও এত বেশি বেড়েছে যে এর ফলে শুধু নিম্ন আয়ের মানুষ নয়, মধ্য আয়ের মানুষও অসহায় হয়ে পড়েছে। যেমন: আদার দাম একদিনে এক লাফে ২০০ টাকা বেড়েছে, মরিচের দাম বেড়ে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা হয়েছে। এজন্য এবারকার ঈদ সামগ্রিকভাবে সাধারণ মানুষের জন্য কোনো বার্তা নিয়ে আসেনি।'

'তারপরেও ঈদুল আজহার মূল উদ্দেশ্য থাকে ত্যাগ স্বীকার করা। অর্থাৎ মানুষের জন্য ত্যাগ স্বীকার করার পাশাপাশি মানুষের হক আদায় করা এবং সত্যিকার অর্থে সমাজকে সুষ্ঠু ও বৈষম্যহীন করার লক্ষ্যে ঈদুল আজহা আমাদের কাছে বড় একটি ইবাদত, উপাসনা এবং বড় রকমের উৎসবও বটে।'

বিএনপি মহাসচিব বলেন, 'এই দিন আমরা অনেকেই উৎসব করতে পারছি না, আমাদের সাধারণ মানুষেরা উৎসব করতে পারছে না, এজন্য আমরা তাদের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করছি। আপনারা জানেন যে, এই দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে আমরা গত এক বছর ধরে আন্দোলন করে আসছি। এরমধ্যে আমাদের প্রায় ১৭ জন নেতাকর্মী এই আন্দোলনে প্রাণ দিয়েছেন। মোট কথা হলো, এই সরকার ব্যর্থ হয়েছে অর্থনীতিকে নিয়ন্ত্রণ করতে, দ্রব্যমূল্যকে নিয়ন্ত্রণ করতে, মুদ্রাস্ফীতিকে নিয়ন্ত্রণ করতে এবং অর্থনীতি একটা বিপর্যয়ের দিকে চলে গেছে।'

'এর অন্যতম প্রধান কারণ হচ্ছে স্বচ্ছতার অভাব। গতকালও দেখেছেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে তারা বলেছে, যেসব দেশগুলোতে অর্থনীতির ক্ষেত্রে কোনো স্বচ্ছতা নেই, তার মধ্যে বাংলাদেশ একটি। অর্থাৎ আমরা যে কথাগুলো বলে আসছি, এগুলো শুধুমাত্র আমাদের কথা নয়। জাতীয় অর্থনীতিবিদরা বলেছেন, বাইরের দেশগুলোর বিভিন্ন রিপোর্টে আসছে অর্থনীতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশে কোনোরকম স্বচ্ছতা নেই। শুধু অর্থনীতির ক্ষেত্রে না, রাজনৈতিক ক্ষেত্রেও স্বচ্ছতা নেই, জবাবদিহিতা নেই। যে কারণে আজকে একটা দুঃশাসন প্রতিষ্ঠা হয়েছে।'

ঈদুল আজহার দিনে চলমান দুরাবস্থা থেকে নিজেদেরকে মুক্ত করার জন্য এবং একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দেওয়ার জন্য আন্দোলন সংগ্রামে সবাইকে অংশগ্রহণের আহ্বান জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

Comments

The Daily Star  | English

PM's comment ignites protests across campuses

Hundreds of students from several public universities, including Dhaka University, took to the streets around midnight to protest what they said was a "disparaging comment" by Prime Minister Sheikh Hasina earlier in the evening

6h ago