দিনাজপুর

একই সময়ে কর্মসূচি বিএনপি-আ. লীগের, ৫০ এর বেশি মাইকে চলছে প্রচারণা

দিনাজপুরে আজ বুধবার একই সময়ে কর্মসূচি পালন করবে জেলা আওয়ামী লীগ ও বিএনপি।
ছবি: সংগৃহীত

দিনাজপুরে আজ বুধবার একই সময়ে কর্মসূচি পালন করবে জেলা আওয়ামী লীগ ও বিএনপি।

দিনাজপুর শহরের ইনস্টিটিউট মাঠপ্রাঙ্গণে বিকেল ৩টায় সমাবেশ করবে বিএনপি। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সেখানে উপস্থিত থাকবেন।

একই সময়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে কর্মসূচি পালন করবে দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগ।

জেলা পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২ দলের জন্য এলাকা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে দুই রাজনৈতিক দলই তাদের প্রস্তুতি শেষ করেছে।

বিএনপির নেতাকর্মীরা জানান, রংপুর বিভাগের ৮ জেলা থেকে প্রায় ৫০ হাজারের বেশি লোক দলটির কর্মসূচিতে যোগ দেবেন। বিকেল ৩টায় দিনাজপুর ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গন থেকে পদযাত্রা কর্মসূচি শুরু হয়ে দিনাজপুর শহরের লিলিমোড়, স্টেশন রোড, পৌরসভা মোড়, সদর হাসপাতাল মোড়, নিমতলা, মডার্ন মোড় হয়ে আবার দিনাজপুর ইনস্টিটিউটে গিয়ে শেষ হবে।

অন্যদিকে, সমাবেশের জন্য দিনাজপুর শহরের বাসুনিয়াপট্টি এলাকায় রাস্তার ওপর মঞ্চ তৈরি করেছে আওয়ামী লীগ।

দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলতাফুজ্জামান মিতা বলেন, 'আমরা শান্তিপূর্ণভাবে তাদের কর্মসূচি পালন করবেন। বিকেল সাড়ে ৩টায় নির্ধারিত স্থানে আমাদের কর্মসূচি শুরু করার কথা রয়েছে।'

দিনাজপুরের ১৩টি উপজেলা থেকে নেতাকর্মীরা কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকবেন বলে জানান তিনি।

এই দুই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে দিনাজপুরে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। দিনাজপুরে পুরো শহর জুড়ে প্রায় ৫০টির বেশি মাইক লাগানো হয়েছে।

তবে প্রচার-প্রচারণা করতে গিয়ে পুলিশি বাধার শিকার হওয়ার কথা জানিয়েছেন দিনাজপুর জেলা বিএনপির সভাপতি ও দিনাজপুর সদর উপজেলার সাবেক চেয়্যারম্যান অ্যাডভোকেট মোফাজ্জল হোসেন দুলাল।

মঙ্গলবার বিকেলে শহরে বিএনপির ২ নেতাকর্মীকে আটক করা হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি।

অভিযোগের বিষয়ে দিনাজপুরের পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহমেদ পিপিএম বলেন, 'কর্মসূচির ২ দিন আগেই তারা শহরে বেপরোয়াভাবে মোটরসাইকেল বহর নিয়ে ঘুরছেন। এতে ছোট এই শহরে জনগণের সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এ কারণেই শহরে বেপরোয়াভাবে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণের কাজ করছে ট্রাফিক পুলিশ।'

তিনি আরও বলেন, 'এটা তাদের রাজনৈতিক কর্মসূচি। তাদের এই কর্মসূচিতে পুলিশের পক্ষ থেকে কোনো বাধা নেই। তবে ছোট এই শহরে যাতে জনগণের সমস্যা সৃষ্টি না হয়-সে ব্যাপারে সজাগ থাকবে পুলিশের সদস্যরা।'

Comments

The Daily Star  | English

This was BNP-Jamaat's bid to destroy economy: PM

Prime Minister Sheikh Hasina today said she had an apprehension that the BNP-Jamaat nexus might unleash destructive activities across the country to cripple the country's economy after they failed to foil the last national election

27m ago