‘নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের রূপরেখা নিয়ে আলোচনা শুরু করুন’

‘সরকারের দায়িত্বহীন আচরণের কারণে আজ বিদেশি সম্রাজ্যবাদী ও আধিপত্যবাদী শক্তি দেশে অযাচিত হস্তক্ষেপ করছে।’
রুহিন হোসেন প্রিন্স। ছবি: সংগৃহীত

বর্তমান সংকট থেকে দেশ ও মানুষের মুক্তি পেতে চলতি ব্যবস্থার পরিবর্তন করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স।

বর্তমান সংকট থেকে উত্তরণে 'আগামী সংসদ নির্বাচন নির্দলীয় সরকারের অধীনে হবে'— সরকারকে এই ঘোষণা দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, 'এখনই নির্বাচনকালীন নির্দলীয়, নিরপেক্ষ, তদারকি সরকারের রূপরেখা নিয়ে আলোচনা শুরু করুন।'

আজ সোমবার রতন সেনের ৩১তম 'হত্যা বার্ষিকীতে' খুলনা জেলা সিপিবি আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

রাজনীতিতে দ্বি-দলীয় ধারার বিপরীতে বাম গণতান্ত্রিক বিকল্প শক্তি সমাবেশ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, দুঃশাসনের অবসান ঘটিয়ে ব্যবস্থা বদল ছাড়া মানুষের মুক্তি নেই। সরকারের দায়িত্বহীন আচরণের কারণে আজ বিদেশি সম্রাজ্যবাদী ও আধিপত্যবাদী শক্তি দেশে অযাচিত হস্তক্ষেপ করছে।'

তিনি সরকারের দুঃশাসন ও দেশি-বিদেশি লুটেরা-আধিপত্যবাদী শক্তির বিরুদ্ধে সংগ্রাম গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে বলেন, পদ্মা সেতু হলো, অথচ খালিশপুর, রূপসার কল-কারখানা বন্ধ হলো। শ্রমজীবী মানুষের মুক্তি এলো না, দক্ষিণাঞ্চলের বঞ্চনা দূর হলো না। এ অবস্থার অবসানে তিনি বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে যার যার দাবিতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণ আন্দোলন, গণসংগ্রাম গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

সিপিবি খুলনা জেলা কমিটির উদ্যোগে শহীদ হাদিস পার্কে আজ বিকেল ৪টায় জেলা সভাপতি ডা. মনোজ দাশের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এস এ রশীদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক শেখ আব্দুল হান্নান, মহানগর সভাপতি মিজানুর রহমান বাবু, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিত্যানন্দ ঢালী, জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য বটিয়াঘাটা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই গাইন, অ্যাডভোকেট এম এম রুহুল আমিন, বটিয়াঘাটা উপজেলা সভাপতি অশোক সরকার, দাকোপ উপজেলা সভাপতি কিশোর রায়, টিইউসি জেলা সভাপতি এইচ এম শাহাদাৎ, ডুমুরিয়া উপজেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট চিত্তরঞ্জন গোলদার, শাহীনা আক্তার, মহানগর সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. বাবুল হাওলাদার, সিপিবি নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা কিংশুক রায় প্রমুখ।

সমাবেশে রুহিন হোসেন প্রিন্স ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, 'কমরেড রতন সেনের হত্যাকারী ও মদদদাতারা চিহ্নিত হওয়ার পরও তাদের বিচার না হওয়া দুঃখজনক।'

তিনি হত্যা মামলার পুনরায় তদন্ত ও বিচার দাবি করে বলেন, হত্যাকারীদের ক্ষমা নেই।

সিপিবির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, 'কমরেড রতন সেন এই সমাজ ব্যবস্থা পরিবর্তন করে সমাজতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করেছেন। তার সংগ্রাম ছিল অসাম্প্রদায়িকতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন,  লুটপাটকারী দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে। এই দুর্বৃত্তায়িত চক্রই কমরেড রতন সেনকে ১৯৯২ সালের এই দিনে প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যা করেছে। কমরেড রতন সেনের আদর্শের মৃত্যু নেই। আমরা এই আদর্শ বাস্তবায়ন করে তার হত্যার প্রতিশোধ নেবো।'

সমাবেশ শেষে রুহিন হোসেন প্রিন্স রতন সেনের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এরপর এক লাল পতাকার বিশাল মিছিল নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

Comments

The Daily Star  | English

Bangladeshi students terrified over attack on foreigners in Kyrgyzstan

Mobs attacked medical students, including Bangladeshis and Indians, in Kyrgyzstani capital Bishkek on Friday and now they are staying indoors fearing further attacks

4h ago