রাজনীতি
পটুয়াখালী

‘পাগলের মার্কা নৌকা’ বক্তব্য দেওয়া নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে আ. লীগ

আওয়ামী লীগের পদধারী একজন নেতা নৌকা প্রতীককে ব্যঙ্গ করে কথা বলায় ক্ষোভ জানিয়েছেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।
আনসার উদ্দিন মোল্লা
লতাচাপলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান আনসার উদ্দিন মোল্লা। ছবি: সংগৃহীত

পটুয়াখালী-৪ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহবুব তালুকদারের পক্ষে নির্বাচনী পথ সভায় বক্তব্য দিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা।

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার মহিপুর কো-অপারেটিভ মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে পথ সভায় বক্তব্য দেন লতাচাপলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান আনসার উদ্দিন মোল্লা।

তিনি বলেন, 'প্রত্যেক মা-বোনদের বুঝাবেন—এইবার আওয়ামী লীগের মার্কা ঈগল, আর পাগলের মার্কা হচ্ছে নৌকা।'

এ সময় নৌকার সমর্থকদের হুমকি দিয়ে তিনি বলেন, 'ব্যালটে হাত দিবেন না, হাত কেটে দেব।'

তার এই বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপকভাবে আলোচনা-সমালোচনা সৃষ্টি হয়।

আওয়ামী লীগের পদধারী একজন নেতা নৌকা প্রতীককে ব্যঙ্গ করে কথা বলায় ক্ষোভ জানিয়েছেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোতালেব হাওলাদার বলেন, 'পাগলের মার্কা নৌকা নয়, নৌকা বঙ্গবন্ধু মার্কা, নৌকা শেখ হাসিনার মার্কা। তবে যে নৌকাকে পাগলের মার্কা বলেছেন সে নিজেও পাগল আর তার ঈগল মার্কার প্রার্থীও পাগল।'

'পাগল না হলে কেউ এমন মন্তব্য করতে পারে না। এ ব্যাপারে আমরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নিব,' বলেন তিনি।

জানতে চাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আলমগীর বলেন, 'আনসার মোল্লা নিজে নৌকা নিয়ে নির্বাচন করে চেয়ারম্যান হয়েছেন। নৌকা পাগলের মার্কা হলে তিনি নৌকা নিয়ে নির্বাচন করলেন কেন? তার এই বক্তব্য দলের সংগঠন বিরোধী, দলের শৃঙ্খলা পরিপন্থি। আমরা এ বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নিব।'

এ বিষয়ে জানতে আনছার উদ্দিনের মোবাইলে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলেও তিনি ফোন ধরেননি। মোবাইলে এসএমএস পাঠানো হলেও তিনি কোনো সাড়া দেননি।

Comments

The Daily Star  | English

A different Eid for residents of St Martin's Island

Number of animals sacrificed half than usual, price of essentials high

1h ago