রাজনীতি

‘মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ৩ সদস্য পালিয়ে বাংলাদেশে, শিগগির ফেরত পাঠানো হবে’

‘জলদস্যুদের হাতে জিম্মি ২৩ জনকে শিগগির দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।’
‘মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ৩ সদস্য পালিয়ে বাংলাদেশে, শিগগির ফেরত পাঠানো হবে’
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ | ছবি: টেলিভিশন থেকে নেওয়া

বিদ্রোহী হামলার মুখে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর তিন সদস্য পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। শিগগির তাদের ফেরত পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত রংপুর বিভাগীয় মত বিনিময় সভা শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

মিয়ানমার থেকে বিজিপির (বর্ডার গার্ড পুলিশ) আরও তিন সদস্য পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে হাছান মাহমুদ গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, 'মিয়ানমার থেকে আজকে তিনজন সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা—একজন সার্জেন্ট, একজন ক্যাপ্টেন ও একজন সৈনিক পালিয়ে এসেছে। তারা আমাদের বিজিবির (বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ) হেফাজতে আছে। ইতোপূর্বে বিজিপির ১৭৭ জন পালিয়ে এসেছিল তাদের নৌপথে নিয়ে যাওয়ার জন্য মিয়ানমার প্রস্তাব করেছে। আমরা সেটি নিয়ে কাজ করছি।

'আমরা আশা করছি, খুব সহসা তাদের ফেরত পাঠাতে পারব। আজকে নতুন করে সেনাবাহিনীর তিন সদস্য পালিয়ে আমাদের দেশে আশ্রয় নিয়েছে,' বলেন তিনি।

জলদস্যুদের হাতে জিম্মি ২৩ জনকে শিগগির দেশে ফিরিয়ে আনা হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, 'সোমালিয়ার জলদস্যুদের সঙ্গে ইতোমধ্যে যোগাযোগ হয়েছে এবং তাদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা চলছে। আমরা আশা করছি, আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সহসা আমাদের নাবিকদের মুক্ত করতে পারব। জাহাজটিও মুক্ত করতে পারব।'

তিনি বলেন, 'আমাদের নাবিকরা সবাই ভালো আছে, তারা কেবিনে আছে, খাবার-দাবারের কোনো সমস্যা নেই। নাবিকদের সঙ্গে কোনো খারাপ আচরণ এ পর্যন্ত করা হয়নি।'

Comments