ইউরোপ

ভাগনার বিদ্রোহ দমনে প্রাণ হারানো পাইলটদের প্রতি পুতিনের শ্রদ্ধা

পুতিন গতকাল সোমবার রুশ টেলেভিশনে বক্তব্য দেন। এটাই ছিল ইয়েভগেনি প্রিগোঝিনের নেতৃত্বে সশস্ত্র বিদ্রোহের পর রুশ প্রেসিডেন্টের প্রথম আনুষ্ঠানিক বক্তব্য। এ বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি স্বীকার করে নেন, ভাগনার গ্রুপের যোদ্ধারা রুশ উড়োজাহাজ ভূপাতিত করেছিল। এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অসমর্থিত সূত্রে এ ধরনের তথ্য পাওয়া যাচ্ছিল।
টেলিভিশনে বক্তব্য দিচ্ছেন ভ্লাদিমির পুতিন। ছবি: রয়টার্স
টেলিভিশনে বক্তব্য দিচ্ছেন ভ্লাদিমির পুতিন। ছবি: রয়টার্স

 

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ভাগনার গ্রুপের অভ্যুত্থান ঠেকাতে গিয়ে প্রাণ হারানো পাইলটদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন ও রুশ জনগণকে দেশপ্রেম ও একাত্মতা দেখানোর জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। 

আজ মঙ্গলবার বার্তাসংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানায়।

পুতিন গতকাল সোমবার রুশ টেলিভিশনে বক্তব্য দেন। এটাই ছিল ইয়েভগেনি প্রিগোঝিনের নেতৃত্বে সশস্ত্র বিদ্রোহের পর রুশ প্রেসিডেন্টের প্রথম আনুষ্ঠানিক বক্তব্য। এ বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি স্বীকার করে নেন, ভাগনার গ্রুপের যোদ্ধারা রুশ উড়োজাহাজ ভূপাতিত করেছিল। এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অসমর্থিত সূত্রে এ ধরনের তথ্য পাওয়া যাচ্ছিল।

একাত্ম থেকে 'পিতৃভূমির' সুরক্ষা দেওয়ার জন্য পুতিন রুশ জনগণ, সশস্ত্র বাহিনী, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও নিরাপত্তা সেবাদাতাদের ধন্যবাদ জানান। তিনি জানান, এ থেকে এটাই প্রমাণ হয়েছে যে রাশিয়া 'কোনো ধরনের ব্ল্যাকমেইল বা অভ্যন্তরীণ গোলযোগ' সৃষ্টির প্রচেষ্টায় মাথা নত করবে না।

তিনি আরও জানান, রাশিয়ার শত্রুরা চায় দেশটি 'গৃহযুদ্ধে জড়িয়ে পড়ুক।'

নিহত পাইলটদের বিষয়ে পুতিন বলেন, 'নিহত পাইলটদের বীরত্ব, সাহস ও আত্মত্যাগ রাশিয়াকে মর্মান্তিক ও ভয়াবহ পরিণতি থেকে বাঁচিয়েছে।' তিনি আরও জানান, এই বিদ্রোহ রাশিয়ার অস্তিত্বকে হুমকির মুখে ফেলেছে এবং যারা এর নেপথ্যে আছে, তাদেরকে শাস্তি দেওয়া হবে।

তবে কতজন পাইলট নিহত হয়েছেন বা কতগুলো উড়োজাহাজ ভূপাতিত হয়েছে, সে বিষয়ে কোনো আনুষ্ঠানিক সংখ্যা প্রকাশ করা হয়নি।

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ নিরীক্ষাকারী কিছু রুশ টেলিগ্রাম চ্যানেল ও ব্লগ দাবি করেছে, শনিবার ১৩জন রুশ বৈমানিককে নিহত হন।

রুশ ব্লগ রাইবার জানায়, ৩টি এমআই-৮ এমটিপিআর ইলেকট্রনিক ওয়ারফেয়ার হেলিকপ্টার এবং ক্রুসহ ১টি আইএল-১৮ উড়োজাহাজ ভূপাতিত হয়।

রয়টার্স নিরপেক্ষ ভাবে এসব তথ্য যাচাই করতে পারেনি।

পুতিন জানান, বিদ্রোহে নেতৃত্বদানকারীরা 'অপরাধ করেছে। তারা দেশকে এমন সময় বিভক্ত ও দুর্বল করতে চেয়েছে, যখন বাইরে থেকে আসা বড় আকারের হুমকি ও নজিরবিহীন অভ্যন্তরীণ চাপের মুখে রয়েছে রাশিয়া।

তিনি আরও জানান, বিদ্রোহের পরিকল্পনাকারীরা তাদের অধীনস্থ সেনাদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে।

'তারা তাদেরকে মিথ্যে বলেছে, মৃত্যুর মুখে, গোলাগুলির মুখে ঠেলে দিয়েছে—যাতে তারা নিজ দেশের মানুষের ওপর গুলি চালাতে পারে', যোগ করেন পুতিন।

পুতিন আরও জানান, রাশিয়ার শত্রুরা এটাই চায়—রুশরা নিজেদের মধ্যে বিবাদে জড়িয়ে পরুক।

তিনি বলেন, বিদ্রোহের সময় 'বড় আকারে রক্তপাত এড়িয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য সরাসরি নির্দেশ দিয়েছি'।

ভাগনার সেনারা নিজ নিজ ঘাঁটিতে ফিরে গেলে এবং প্রিগোঝিন বেলারুশে নির্বাসনে যেতে রাজি হলে বিদ্রোহের অবসান ঘটে।

ভাগনার নেতা প্রিগোঝিন তার টেলিগ্রাম চ্যানেলে একটি ১১ মিনিটের বক্তব্য পোস্ট করেছেন।

তিনি জানান, তার সেনাদের ওপর হেলিকপ্টার হামলা চালালে তারা পাল্টা গুলি ছুঁড়ে সেগুলোকে ভূপাতিত করতে বাধ্য হয়।

পুতিন আরও জানান, তিনি তার অঙ্গীকার অনুযায়ী ভাগনার বাহিনীকে বেলারুশে চলে যেতে, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হতে অথবা নিজ নিজ পরিবারের কাছে ফিরে যেতে দেবেন।

পুতিন ভাগনার যোদ্ধা ও কমান্ডারদের অস্ত্র ত্যাগ করে 'ভাইয়ে ভাইয়ে রক্তপাত' না ঘটানোর জন্য ধন্যবাদ জানান। তিনি জানান, ভাগনারের বেশিরভাগ সদস্যই দেশপ্রেমিক।

Comments