৩ দিনেই ১০০ কোটি রুপি!

মুক্তির ৩ দিনেই ১০০ কোটি রুপি আয় করবে বলিউডের বহুল আলোচিত চলচ্চিত্র ‘থাগস অব হিন্দোস্তান’- এমন ভবিষ্যদ্বাণী দিয়েছে ভারতের বক্স অফিস।

থাগস অব হিন্দোস্তান’-এর ট্রেইলার

মুক্তির ৩ দিনেই ১০০ কোটি রুপি আয় করবে বলিউডের বহুল আলোচিত চলচ্চিত্র ‘থাগস অব হিন্দোস্তান’- এমন ভবিষ্যদ্বাণী দিয়েছে ভারতের বক্স অফিস।

আগামীকাল (৮ নভেম্বর) মুক্তি পেতে যাচ্ছে মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চন ও আমির খানের অ্যাকশন-অ্যাডভেঞ্চর মুভি ‘থাগস অব হিন্দোস্তান’। মুক্তির আগেই ছবিটি নিয়ে শুরু হয়েছে হৈচৈ।

বলিউড বিশ্লেষকদের মতে, দীপাবলীর বন্ধে মুক্তি পেতে যাওয়ায় ছবিটির প্রতি রয়েছে সব সারির দর্শকদের বিশেষ আকর্ষণ। সেই কারণে ছবিটির টিকিটের দামও বাড়িয়ে দিয়েছে পরিবেশনা সংস্থা। তাদের দাবি, ছবিটির নির্মাণ খরচ বেশি হওয়ায় টিকিটের দাম বেশি ধরা হয়েছে। তবে এর প্রতিবাদও করেছেন ছবিটির অন্যতম অভিনেতা আমির খান।

বক্সঅফিসইন্ডিয়াডটকম-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ৩ নভেম্বর ‘থাগস অব হিন্দোস্তান’-এর অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হওয়ার পর প্রথম দিনেই কাটতি হয়েছে দুই লাখ টিকিট। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, অগ্রিম টিকিট বিক্রির হার ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়’, ‘সঞ্জু’ এবং ‘অ্যাভেঞ্জারস- ইনফিনিটি ওয়ার’-এর তুলনায় বেশি। তবে তা ‘বাহুবলি- দ্য কনক্লুশন’-এর তুলনায় কম।

চলচ্চিত্র প্রদর্শক অক্ষয়ে রাথির দাবি- ‘থাগস অব হিন্দোস্তান’ মুক্তির ৩ দিনের মধ্যেই ১০০ কোটি রুপির মাইলফলক অতিক্রম করবে। তিনি বলেন, “প্রথম কারণ, কোন একটি চলচ্চিত্র মুক্তির জন্যে বছরের সেরা দিন হচ্ছে দীপাবলীর পরের দিন। দ্বিতীয়ত, এতে অভিনয় করেছেন মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চন, আমির খান ও ক্যাটরিনা কাইফ। এসব মিলিয়ে দর্শকদের কাছে সিনেমাটি বেশ উপভোগ্য হবে বলে আশা করা যাচ্ছে।”

বলিউডের ইতিহাসে এবারই প্রথম টিকিটের দাম এতো বেশি হাঁকা হলো। ছবিটির একটি টিকিটের সর্বোচ্চ দাম ধরা হয়েছে ১৮শ রুপি। এ প্রসঙ্গে রাথির মন্তব্য- তা সিনেমাটির প্রতি দর্শকদের দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে দিবে।

এছাড়াও, গল্প ও নির্মাণগুণেই ‘থাগস অব হিন্দোস্তান’ আমিরের অপর চলচ্চিত্র ‘দঙ্গল’-কে ছাড়িয়ে বলেও মনে করেন এই চলচ্চিত্র প্রদর্শক।

তথ্যসূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

আরও পড়ুন:

১ টিকিটের দাম ১৮শ রুপি, মুখ খুললেন আমির খান

Comments

The Daily Star  | English
Cuet students block Kaptai road

Cuet closed as protest continues over students' death

The Chittagong University of Engineering and Technology (Cuet) authorities today announced the closure of the institution after failing to pacify the ongoing student protest over the death of two students in a road accident

24m ago