শাহেনশাহ-র সঙ্গে প্রথম দেখা লায়লার

সূর্যের আলোয় কিছুটা নরমের ছোঁয়া। হেমন্তের বিকাল। হালকা শীতের আমেজ ছড়িয়ে রয়েছে চারদিকে। জ্যাম ঠেলে এফডিসির ভেতরে প্রবেশ করতেই অন্যদিনের চেয়ে একটু ভিড় লক্ষ্য করা গেল। এর আসল কারণটা জানা গেলো একটু পরে। এফডিসিতে চলছে শাকিব খানের শুটিং। তাই ছড়িয়ে রয়েছে একটু উষ্ণতা।
Shakib Khan and Nusrat Faria
অভিনেতা শাকিব খান এবং নুসরাত ফারিয়া। ছবি: স্টার

সূর্যের আলোয় কিছুটা নরমের ছোঁয়া। হেমন্তের বিকাল। হালকা শীতের আমেজ ছড়িয়ে রয়েছে চারদিকে। জ্যাম ঠেলে এফডিসির ভেতরে প্রবেশ করতেই অন্যদিনের চেয়ে একটু ভিড় লক্ষ্য করা গেল। এর আসল কারণটা জানা গেলো একটু পরে। এফডিসিতে চলছে শাকিব খানের শুটিং। তাই ছড়িয়ে রয়েছে একটু উষ্ণতা।

বিশাল সেট ফেলা হয়েছে নবাব বাড়ির আদলে। বাড়ির উঠোন জুড়ে চলছে রঙ খেলার উৎসব। সবার মুখে, শরীরে লেপটে রয়েছে রঙ। উৎসুক মানুষ দূরে দাঁড়িয়ে দেখছেন বিষয়টা। কারণ, শুটিং সেটের ভেতরে যাওয়ার অনুমতি নেই কারো।

মুঠোফোনে পরিচালক শামীম আহমেদ রনীর কাছে অনুমতি নিয়ে অবশেষে শুটিং স্পটে প্রবেশ। তার পরিচালনায় ‘শাহেনশাহ’ ছবির শুটিং চলছে এখানে। আজই ‘শাহেনশাহ’ শাকিব খানের সঙ্গে প্রথম দেখা হবে নবাব বাড়ির মেয়ে ‘লায়লা’ নুসরাত ফারিয়ার। দুজনার প্রথম শুটিংও একসঙ্গে। চমৎকার করে সাজানো হয়েছে দৃশ্যটাকে। মেকআপ রুমে গিয়ে দেখা মিললো ‘শাহেনশাহ’-র।

ছবির গেটআপ অনুযায়ী মুখের একদিকে রঙ মেখে বসে রয়েছেন শাকিব খান। কিছুক্ষণ পর একজন সহকারী এসে জানালেন- “শট রেডি”। এরপর শাকিব এসে দাঁড়ালেন নবাব বাড়ির সেটে। কয়েক মিনিট ধরে মেকআপ শিল্পী সবকিছু ঠিক করে দিলেন। শুরু হলো রঙের ছড়াছড়ি।

শাকিব খান আর নুসরাত ফারিয়া প্রথম মুখোমুখি হলেন। মুগ্ধ হয়ে দুজন-দুজনার দিকে তাকিয়ে রয়েছেন। কারো মুখে কোনো শব্দ নেই। নুসরাত ফারিয়া চলে যাচ্ছেন। মুগ্ধ চোখে তার চলে যাওয়ার পথের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন শাকিব। শেষ হলো দৃশ্যটা।

পরিচালক বললেন, “বড় নবাবের কাছে এসেছেন শাহেনশাহ শাকিব খান। ফিরে যাওয়ার পথে রঙের উৎসবে নবাবের মেয়ে লায়লাকে দেখে ভালো লেগে যায় তার। এই দৃশ্যটারই শুটিং হচ্ছে এখন। আমার বিশ্বাস নতুন এক জুটিকে দেখতে পাবেন দর্শকরা।”

এই অংশের শুটিং শেষে মেকআপ রুমে বসেছিলেন শাকিব খান। তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে আসলেন পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার, বদিউল আলম খোকন ও শাহীন কবীর টুটুল। প্রায় বিশ মিনিটের মতো ছিলেন তারা। অতীতের অনেক কথার স্মৃতিচারণ করলেন গুলজার। সেদিন শাকিব খান ঘুরে ফিরে একই কথা বারবার বলছিলেন, “আমাদের চলচ্চিত্র থেকে একজন প্রতিনিধি প্রয়োজন সংসদ নির্বাচনে। যিনি আমাদের সুখ-দুঃখের কথা বলবেন জাতীয় সংসদে। তিনি যিনিই হন তার পক্ষে প্রচারণা করব। অন্য অঙ্গন থেকে যদি নির্বাচনে আসতে পারে আমরা কেনো আসবো না।”

কেনো বারবার এই কথা বলছিলেন তার উত্তর জানা ছিলো না কারোই। সন্ধ্যা নামার একটু আগেই মেকআপ উঠিয়ে চলে গেলেন শাকিব। সন্ধ্যায় সোনারগাঁও-এ জরুরি মিটিং রয়েছে তার। তবে কী মিটিং তা জানা যায়নি।

Comments

The Daily Star  | English

Old, unfit vehicles running amok

The bus involved in yesterday’s accident that left 14 dead in Faridpur would not have been on the road had the government not caved in to transport associations’ demand for allowing over 20 years old buses on roads.

9h ago