আপডেট: দ্বিতীয় দিনেই ম্যাচের লাগাম বাংলাদেশের হাতে

প্রথম ইনিংসে ৫০৮ রানের পাহাড় গড়ার পর বল হাতেও দুর্দান্ত বাংলাদেশ। টাইগারদের স্পিনে দ্বিতীয় দিনে ৭৫ রান তুলতেই টপ অর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যানকে হারিয়েছে তারা। ফলে মিরপুর টেস্টের লাগাম দারুণ ভাবেই নিজেদের হাতে নিয়েছে বাংলাদেশ। এখনও ৪৩৩ রানে এগিয়ে আছে স্বাগতিকরা।
উইকেট তুলে নেওয়ার পর মিরাজকে ঘিরে টাইগারদের উল্লাস। ছবি : ফিরোজ আহমেদ।

প্রথম ইনিংসে ৫০৮ রানের পাহাড় গড়ার পর বল হাতেও দুর্দান্ত বাংলাদেশ। টাইগারদের স্পিনে দ্বিতীয় দিনে ৭৫ রান তুলতেই টপ অর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যানকে হারিয়েছে উইন্ডিজ। ফলে মিরপুর টেস্টের লাগাম দারুণ ভাবেই নিজেদের হাতে নিয়েছে বাংলাদেশ। এখনও ৪৩৩ রানে এগিয়ে আছে স্বাগতিকরা।  

তবে এদিন মাত্র ২৯ রানেই ক্যারিবিয়ানদের পাঁচ উইকেট তুলে নিয়েছিল টাইগাররা। ইনিংসের প্রথম ওভারেই উইকেট নিয়েছিলেন সাকিব। পড়ে নেন আরও একটি। অন্য প্রান্তে তিনটি উইকেট তুলে নেন মেহেদী হাসান মিরাজ। মজার ব্যাপার পাঁচটি উইকেটই টাইগাররা পেয়েছে বোল্ড করে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

দ্বিতীয় দিন শেষে

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ১৫৪ ওভারে- ৫০৮ (সাদমান ৭৬, সৌম্য ১৯, মুমিনুল ২৯, মিঠুন ২৯, সাকিব ৮০, মুশফিক ১৪, মাহমুদউল্লাহ ১৩৬, লিটন  ৫৪, মিরাজ ১৮, তাইজুল ২৬, নাঈম ১২; রোচ ২/৬১, লুইস ১/৬৯, চেজ ১/১১১, ওয়ারিক্যান ২/৯১, বিশু ২/১০৯, ব্র্যাথওয়েট ০/৫৭)।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংস: ২৪ ওভারে ৭৫/৫ (ব্র্যাথওয়েট ০, পাওয়েল ৪, হোপ ১০, আম্রিস ৭, চেজ ০, হেটমায়ার ব্যাটিং ৩২*, ডওরিচ ব্যাটিং ১৭* ; সাকিব ২/১৫ ,মিরাজ ৩/৩৬, নাঈম ০/৯, তাইজুল ০/১০, মাহমুদউল্লাহ ০/০) 

পঞ্চাশ পার করল উইন্ডিজ

শুরু থাকেই টাইগারদের বোলিং ঘূর্ণিতে নাস্তানুবাদ অবস্থা উইন্ডিজের। ২৯ রানেই শেষ টপ অর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যান। তবে ছন্দে থাকা দুই ব্যাটসম্যান শিমরন হেটমায়ার ও শেন ডরউইচ দলের হাল ধরার চেষ্টা করছেন। এ দুই ব্যাটসম্যানের ব্যাটে দলীয় পঞ্চাশ রানের কোটা পার করেছে সফরকারীরা। ১১৫ বলে এসেছে দলীয় পঞ্চাশ রান।

২০ ওভার শেষে উইন্ডিজের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৫৭ রান। ডরউইচ ১৪ ও হেটমায়ার ১৭ রানে ব্যাট করছেন।

হোপকেও ফেরালেন মিরাজ

আবারো উইন্ডিজ শিবিরে আঘাত হেনেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। বোল্ড করে দিয়েছেন শাই হোপকে। তার বলে পেছনে পায়ে দাঁড়িয়ে রক্ষণাত্মক ঢঙে খেলতে গিয়ে আউট হয়ে যান হোপ। ৩০ বল খেলে ২টি চারের সাহায্যে ১০ রান করেছেন এ ব্যাটসম্যান।

১২ ওভার শেষে উইন্ডিজের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৩০ রান। ৪ রান নিয়ে ব্যাট করছেন হেটমায়ার। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমেছেন শেন ডরউইচ।

চেজকে বোল্ড করলেন মিরাজ

সাকিব আল হাসানের পর মেহেদী হাসান মিরাজও জোড়া উইকেট তুলে নিলেন। ফিরিয়েছেন রোস্টন চেজকে। তার ভেতরে ঢোকা বলে রক্ষণাত্মক ঢঙে খেলতে গিয়ে লাইন মিস করে বোল্ড হয়ে যান চেজ। ১ বল খেলে কোন রান করতে পারেননি এ ক্যারিবিয়ান।

১০ ওভার শেষে উইন্ডিজের সংগ্রহ ৪ উইকেটে ২০ রান। ৫ রানে ব্যাট করছেন শাই হোপ। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমেছেন শিমরন হেটমায়ার।  

সাকিবের দ্বিতীয় আঘাতে ফিরলেন আমব্রিস

৬ রানেই নেই দুই ওপেনার। এ অবস্থায় সুনীল আমব্রিসের কাছে দায়িত্বশীল ইনিংসই চেয়েছিল দল। কিন্তু উল্টো উইন্ডিজকে বিপদে ফেলে দিলেন তিনি। সাকিব আল হাসানের বলে এগিয়ে গিয়ে খেলতে গিয়ে লাইন মিস করে বোল্ডই হয়ে গেছেন আমব্রিস। ফলে শুরুতেই বিপদে সফরকারীরা। ১২ বলে ৭ রান করেছেন আমব্রিস।

৯ ওভার শেষে উইন্ডিজের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ১৭ রান। ২ রানে ব্যাট করছেন শাই হোপ।

পাওয়েলকে ফেরালেন মিরাজ

সাকিবের পর উইন্ডিজ শিবিরে আঘাত হেনেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। দারুণ এক ডেলিভারিতে কাইরেন পাওয়েলকে বোল্ড করে দিয়েছেন এ স্পিনার। বলটি অবশ্য রক্ষণাত্মক ঢঙেই খেলতে চেয়েছিলেন এ ওপেনার। কিন্তু লাইন মিস করলে ব্যাট প্যাডের মাঝ খান দিয়ে উইকেট আঘাত করলে সাজঘরমুখী হতে হয় তাকে। ১৫ বলে ৪ রান করেছেন পাওয়েল।

৬ ওভার শেষে উইন্ডিজের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৬ রান। ২ রান নিয়ে ব্যাট করছেন শাই হোপ। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমেছেন সুনীল আমব্রিস।

শুরুতেই সাকিবের আঘাত

শুরুতেই উইন্ডিজ অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে ফিরিয়েছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তার বলে রক্ষণাত্মক ঢঙেই খেলতে গিয়েছিলেন ব্র্যাথওয়েট। কিন্তু বল টার্ন করে ভেতরে ঢুকলে লাইন মিস করেন তিনি। ফলে বোল্ড হয়েই সাজঘরমুখী হন অধিনায়ক। ৬ বল মোকাবেলা করে কোন রান করতে পারেননি এ ওপেনার।

১ ওভার শেষে ১ উইকেট হারালেও কোন রান করতে পারেনি উইন্ডিজ। কাইরেন পাওয়েলের সঙ্গে নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে যোগ দিয়েছেন শাই হোপ।

মাহমুদউল্লাহ সেঞ্চুরিতে টাইগারদের বড় সংগ্রহ

দারুণ এক সেঞ্চুরি করেছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। টানা দ্বিতীয় টেস্টে সেঞ্চুরি। সঙ্গে অভিষিক্ত সাদমান ইসলাম, অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ও উইকেটরক্ষক লিটন কুমার দাসের হাফসেঞ্চুরি। সব মিলিয়ে বড় সংগ্রহই পেয়েছে বাংলাদেশ দল। প্রথম ইনিংসে ৫০৮ রান করেছে দলটি।

টেস্টে ব্যাটিং ব্যর্থতা জিম্বাবুয়ে সিরিজেই কাটিয়ে উঠেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। সে ধারায় এদিনও করলেন দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি। ১৩৬ রানের ইনিংস খেলে দলকে বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে আউট হয়েছেন তিনি। ২৪২ বলে ইনিংসে ১০টি চার মেরেছেন সাইলেন্ট কিলার।

উইন্ডিজের পক্ষে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন কেমার রোচ, ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট ও দেবেন্দ্র বিশু।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: 

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ১৫৪ ওভারে- ৫০৮ (সাদমান ৭৬, সৌম্য ১৯, মুমিনুল ২৯, মিঠুন ২৯, সাকিব ৮০, মুশফিক ১৪, মাহমুদউল্লাহ ১৩৬, লিটন  ৫৪, মিরাজ ১৮, তাইজুল ২৬, নাঈম ১২; রোচ ২/৬১, লুইস ১/৬৯, চেজ ১/১১১, ওয়ারিক্যান ২/৯১, বিশু ২/১০৯, ব্র্যাথওয়েট ০/৫৭)।

পাঁচশো ছাড়িয়ে গেল বাংলাদেশ

সেঞ্চুরি করলেন মাহমুদউল্লাহ। অপর প্রান্তে টাইগারদের সব ব্যাটসম্যানই পার করেছেন দুই অঙ্কের কোটা। সঙ্গে তিনটি ফিফটি। সব মিলিয়ে দারুণ ব্যাটিং করে এর মধ্যেই পাঁচশ রান পার করেছে বাংলাদেশ।

১৫৩ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৯ উইকেটে ৫০৭ রান। ১৩৬ রানে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ। নাঈম হাসান উইকেটে আছেন ১১ রানে।

তাইজুলকে ফেরালেন ব্র্যাথওয়েট

মাহমুদউল্লাহকে সঙ্গ দিয়ে বড় সংগ্রহের পথে দলকে এগিয়ে নিতে দারুণ সাহায্য করছিলেন তাইজুল। তবে তাকে সাজঘরে ফিরিয়েছেন উইন্ডিজ অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট। ভেঙেছেন নবম উইকেটে ৫৬ রানের জুটি। উইকেটরক্ষক শেন ডরউইচের তালুবন্দি করে তাকে ফিরিয়েছেন তিনি। আউট হওয়ার আগে ৫৮ বলে ২৬ রানের ইনিংস খেলেছেন তাইজুল।

১৪৫ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৯ উইকেটে ৪৭৫ রান। ১১২ রানে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ। নতুন ব্যাটসম্যান নাঈম হাসান উইকেটে আছেন ৩ রানে।

মাহমুদউল্লাহ-তাইজুল জুটিতে পঞ্চাশ

দারুণ এক সেঞ্চুরি তুলে বাংলাদেশকে বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে যাচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ। তাকে ভালো সঙ্গ দিচ্ছেন তাইজুল ইসলাম। এর মধ্যেই এ দুই ব্যাটসম্যান নবম উইকেটে পঞ্চাশ রানের জুটি গড়েছেন। ১০২ বলে এসেছে এ জুটির ফিফটি।

১৪১ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ৪৬৮ রান। ১০৮ রানে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ। তাইজুল ইসলাম উইকেটে আছেন ২৬ রানে।  

মাহমুদউল্লাহর তৃতীয় সেঞ্চুরি

দিনের শুরুতে কিছুটা নড়বড়ে ছিলেন মাহমুদউল্লাহ। সময় বাড়তেই ধীরে ধীরে সাবলীল। এরপর নব্বইয়ের ঘরে ঢোকার পর থেকেই ছটফট করছিলেন এ ব্যাটসম্যান। ৯০ থেকে সেঞ্চুরিতে পৌঁছাতে খেলেছেন ৩০টি বল। মাঝে একবার তো রানআউট হওয়া থেকে বেঁচেছেন। তবে শেষ পর্যন্ত ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছাতে পেরেছেন তিনি।

রোস্টন চেজের বলে স্কয়ার কাট করে সীমানা পার করেই ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরিটি করেন মাহমুদউল্লাহ। ২০৩ বলে এ রান করেন সাইলেন্ট কিলার খ্যাত এ ব্যাটসম্যান। তাতে চারের মার ছিল ৬টি।

১৪০ ওভার শেষে ৮ উইকেটে ৪৫৭ রান করেছে বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহ ১০৩ ও তাইজুল ২১ রানে ব্যাট করছেন।  

মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে এগুচ্ছে বাংলাদেশ 

লাঞ্চের পর পরই লিটন দাসের উইকেট হারিয়েও পথ হারায়নি বাংলাদেশ। নিজের তৃতীয় সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়ে দলকে এগিয়ে নিচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। মেহেদী হাসান মিরাজকে নিয়ে দলের সংগ্রহ চারশো ছাড়িয়ে নিয়ে গেছেন তিনি। নিজে পৌঁছে গেছেন নব্বুইর ঘরে। 

১৩১ ওভার শেষে ৮ উইকেটে ৪৫৭ রান করেছে বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহ ৯১ ও তাইজুল ৫ রানে ব্যাট করছেন।

রিভিউ নিয়ে মিরাজকে ফেরালেন ওয়ারিক্যান

উইকেটে নেমে সাবলীল ভাবেই ব্যাট করছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। কিন্তু খুব বেশিক্ষণ টিকতে পারলেন না তিনি। জোমেল ওয়ারিক্যানের অফ স্টাম্পের বাইরে রাখা বলে খোঁচা মারতে গিয়ে উইকেটরক্ষক শেন ডরউইচের তালুবন্দি হন এ অলরাউন্ডার। ২৬ বলে ১৮ রান করেছেন মিরাজ।

১২৪ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ৪১৬ রান। ৮৪ রান নিয়ে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমেছেন তাইজুল ইসলাম।

ব্র্যাথওয়েটের বলে বোল্ড লিটন

দারুণ খেলছিলেন লিটন কুমার দাস। ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাটিং করে তুলে নিয়েছিলেন ক্যারিয়ারের চতুর্থ হাফসেঞ্চুরি। কিন্তু সে রানকে তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগারে নিতে আরও একবার ব্যর্থ হলেন এ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। অযথাই ঝুঁকি নেওয়ার খেসারত দিয়েছেন। ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটের লেগ স্টাম্পের বাইরে রাখা বলে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড হয়ে গেছেন তিনি। তাতে ভাঙে সপ্তম উইকেটের ৯২ রানের জুটি। আউট হওয়ার আগে ৬২ বলে ৮টি চার ও ১টি ছক্কায় ৫৪ রান করেছেন লিটন।

১১৯ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৩৯৬ রান। ৮১ রানে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ। নতুন ব্যাটসম্যান মেহেদী হাসান মিরাজ উইকেটে আছেন ১ রানে।

ওয়ানডে স্টাইলে লিটনের ফিফটি

জিম্বাবুয়ে সিরিজে বাজে খেলায় জায়গা হারিয়েছিলেন দল থেকে। কিন্তু ফিরলেন মুশফিকুর রহীমের ইনজুরিতে। আর সুযোগ বেশ দারুণ ভাবেই কাজে লাগিয়েছেন লিটন কুমার দাস। শুরু থেকেই আত্মবিশ্বাসী ব্যাটিং করে এর মধ্যেই তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের চতুর্থ হাফসেঞ্চুরি। ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাটিং করে ৫০ বলেই এ রান করেন তিনি। রোস্টন চেজের বলে কাভার দিয়ে সীমানা পার করেই ফিফটি স্পর্শ করেন এ ব্যাটসম্যান।

লাঞ্চের আগে ১১৫ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৩৮৭ রান। ৭৫ রান নিয়ে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ। লিটন উইকেটে আছেন ৫৩ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: (দ্বিতীয় দিনের লাঞ্চ পর্যন্ত) 

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ১১৫ ওভারে ৩৮৭/৬ (সাদমান ৭৬, সৌম্য ১৯, মুমিনুল ২৯, মিঠুন ২৯, সাকিব ৮০, মুশফিক ১৪, মাহমুদউল্লাহ ব্যাটিং  ৭৫, লিটন  ব্যাটিং ৫৩; রোচ ২/৫৭, লুইস ১/৫২, চেজ ১/৯৩, ওয়ারিক্যান ০/৬৫, বিশু ২/৯৮, ব্র্যাথওয়েট ০/১৪)।

মাহমুদউল্লাহ-লিটন জুটিতে পঞ্চাশ

মুশফিকুর রহীমের ইনজুরিতেই দলে জায়গা পেয়েছেন লিটন কুমার দাস। মুশফিক দলে থাকলেও উইকেট কিপিং করার জন্যই দলে আছেন তিনি। সুযোগ পেয়ে তা কাজে লাগানোর দারুণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন এ ব্যাটসম্যান। মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে জুটি বেঁধে এর মধ্যেই সপ্তম উইকেটে ৫০ রানের জুটি উপহার দিয়েছেন তিনি। মাত্র ৬৪ বলে এসেছে এ জুটির পঞ্চাশ রান।

১০৮ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৩৫২ রান। ৬৪ রান নিয়ে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ। লিটন ব্যাট করছেন ২৯ রানে।    

মাহমুদউল্লাহর হাফসেঞ্চুরি

দিনের শুরু থেকেই কিছুটা নড়বড়ে ছিলেন মাহমুদউল্লাহ। তার বিপক্ষে বেশ কিছু জোরালো আবেদন করেছিল উইন্ডিজের বোলাররা। দুইবার তো রিভিউও নিয়েছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত টিকে গেছেন আম্পায়ার্স কলের কারণে। সে সুযোগটা কাজে লাগিয়েছেন তিনি। তুলে নিয়েছেন টেস্ট ক্যারিয়ারের ১৬তম ফিফটি। ৮৮ বলে ৪টি চারের সাহায্যে এ রান করেছেন তিনি।

১০১ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৩১৩ রান। ৫০ রানে ব্যাট করছেন মাহমুদউল্লাহ। লিটন কুমার দাস উইকেটে আছেন ৫ রানে।  

সাকিবকে আউট করলেন রোচ

আগের দিন বেশ দায়িত্বশীল ব্যাটিং করেছিলেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ৫৫ রানের ইনিংসে ছিল মাত্র একটি বাউন্ডারি। কিন্তু দ্বিতীয় দিন মাঠে নেমেই বেশ তড়িঘড়ি শুরু করে দিয়েছিলেন। এদিন ২৫ রান তুলতেই মেরেছেন ৫টি বাউন্ডারি। কেমার রোচের বলে আরও একটি মারতে গিয়ে তার খেসারত দিয়েছেন। গ্যালিতে ধরা পড়েছেন শাই হোপের হাতে। ১৩৯ বলে ৮০ রানের ইনিংস খেলেছেন অধিনায়ক। সাকিবের বিদায়ে ভেঙেছে ষষ্ঠ উইকেটে গড়া ১১১ রানের জুটি।

৯৭ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৩০১ রান। ৪৭ রান নিয়ে উইকেটে আছেন মাহমুদউল্লাহ। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নেমেছেন লিটন কুমার দাস।

সাকিব-মাহমুদউল্লাহ জুটিতে একশ

১৯০ রানে সেরা পাঁচ উইকেট হারানোর পর মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে দলের হাল ধরেছিলেন সাকিব আল হাসান। আগের দিনের শেষ বেলা থেকেই প্রতিরোধ গড়ে যাচ্ছিলেন তারা। দ্বিতীয় দিনেও সে ধারা ধরে রেখেছেন এ দুই ব্যাটসম্যান। যদিও দিনের শুরু কিছু ঝুঁকিপূর্ণ শট খেলেছেন সাকিব। তবে এখনও অক্ষত থেকে এর মধ্যেই শতরানের জুটি গড়েছেন ষষ্ঠ উইকেটে। কেমার রোচের বলে ফ্লিক করে ফাইন লেগ দিয়ে সীমানা পার করে জুটির শতরান স্পর্শ করেন মাহমুদউল্লাহ। ১৬৬ বলে এসেছে এ জুটির একশ রান।

৯৫ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ২৯০ রান। সাকিব ৭৮ এবং মাহমুদউল্লাহ ৩৮ রানে ব্যাট করছেন।  

প্রথম দিন শেষে সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৯০ ওভারে ২৫৯/৫ (সাদমান ৭৬, সৌম্য ১৯, মুমিনুল ২৯, মিঠুন ২৯, সাকিব ব্যাটিং ৫৫, মুশফিক ১৪, মাহমুদউল্লাহ ব্যাটিং ৩১; রোচ ১/৩৮, লুইস ১/৩৫, চেজ ১/৬১, ওয়ারিক্যান ০/৪৬, বিশু ২/৬৯, ব্র্যাথওয়েট ০/৮)।

 

Comments

The Daily Star  | English
Cuet students block Kaptai road

Cuet closes as protest continues over students' death

The Chittagong University of Engineering and Technology (Cuet) authorities today announced the closure of the institution after failing to pacify the ongoing student protest over the death of two students in a road accident

1h ago